খুব শীঘ্রই মুক্তি পেতে চলেছে সলমন খান ও ক্য়াটরিনা কাইফ অভিনীত ছবি 'ভারত'। ছবির ট্রেলার ঘিরে ইকতিমধ্য়েই দর্শকদের মধ্য়ে চরম উত্তেজনা তৈরি হয়েছে। ছবির একটি গানও মুক্তি পেয়েছে। 'স্লো মোশন'  নামের এই গানটিতে সলমনের সঙ্গে রয়েছে দিশা পটানি। 

গানটি সার্কাসের প্রেক্ষাপটে তৈরি। ভারত ছবিতেই বড় জায়গা জুড়ে রয়েছে সার্কাস। ১৯৬৪-এর ভারতে সার্কাস মানুষের বিনোদনের অন্যতম উৎস ছিল। ছবিতেও দেখানো হবে সেই সময়ে সলমন খান ও দিশা পটানি দুজনেই রাশিয়ান সার্কাসের সদস্য়। সেই প্রেক্ষাপট থেকেই 'স্লো মোশন' গানটি আলি আব্বাস জাফারের এই ছবিতে রাখা হয়েছে। 

ছবির এই গানটটিতে সার্কাসের মতো করে সেট সাজানো হয়েছে। সম্প্রতি গানটির 'বিহাইন্ড দ্য় সিন'-এর একটি ভিডিও প্রকাশ পেয়েছে। সার্কাসের মতো করে এই ছবিতে সেট ডিজাইন করেছে রনজিশ হেডাও। তিনি জানিয়েছেন, এই সেট ডিজাইন করার আগে প্রায় ২টো থেকে ৩টে বড় মাপের সার্কাস দেখেছেন তিনি। 

সার্কাসের আবহ তৈরিতে যাতে কোনও ফাঁকি না থাকে, তাই সারা বিশ্ব থেকে সার্কাস শিল্পীদের নেওয়া হয়েছে এই ছবিতে। এঁদের মধ্য়ে রয়েছেন জাগলারস, স্টিল ওয়াকারস, ফায়ার থ্রোয়ারস, অ্য়াক্রোব্য়াটস আরও অনেকে। আলি আব্বাস জাফার বিহাইন্ড দ্য় সিন ভিডিওতে জানিয়েছেন, সারা বিশ্ব থেকে প্রায় ১২০ জন সার্কাসের শিল্পীকে নিয়ে তৈরি হয়েছে সার্কাসের সেট। এঁদের জন্য় মোট ১৭৩টি পোশাক ডিজাইন করা হয়েছে। জানিয়েছেন ছবির ডিজাইনার অ্য়াশলে রোবেলো। 

ছবিতে দিশা পটানিও বেশ কিছু স্টান্ট করেছেন। নিজের ইনস্টাগ্রামে প্রায়ই বিভিন্ন স্টান্টের ভিডিও প্রকাশ করেন দিশা। তাই সার্কাস বিষয়টির সঙ্গে নিজেকে খাপ খাওয়াতে যে তাঁর মোটেই কোনও সমস্য়া হয়নি তা 'স্লো মোশন' গানটির ভিডিও দেখলেই বোঝা যায়। সলমনকেও ৬০-এর দশকের সার্কাস শিল্পীর বেশে মানানসই লেগেছে। 

আলি আব্বাস জাফারের এই ছবিতে প্রথমে সলমনের বিপরীতে প্রিয়ঙ্কা চোপড়ার অভিনয় করার কথা ছিল। তারপরে সেই ছবিতে জায়গা করে নেন ক্য়াটরিনা কাইফ। ক্য়াটরিনাকেও এই ছবিতে এক অন্য় অবতারে দেখা যাবে। ছবিতে এছাড়াও রয়েছেন তব্বু, জ্য়াকি শ্রফ, সুনীল গ্রোভার। কোরিয়ান ছবি 'ওড টু মাই ফাদার' ছবি থেকে অনুপ্রাণিত আলি আব্বাসের ভারত। 

সলমন খানের 'রিল লাইফ প্রোডাকশন' এবং টি-সিরিজের যুগ্ম প্রযোজনায় এই ছবি তৈরি হয়েছেষ এর আগে আলি আব্বাস জাফারের 'সুলতান', 'টাইগার জিন্দা হ্য়ায়' ছবিতে অভিনয় করেছেন সলমন খান। আগামী ৫ জুন ইদের মরশুমে এই ভারত-এর মুক্তি পাওয়ার কথা।