সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর ঠিক ৪৪ দিন পরই ঘুরে গেল তদন্তের মোড়। বিহারে প্রয়াত অভিনেতা সুশান্তের বাবা লিখিত অভিযোগ জানিয়ে ঝড় তুলেছেন সর্বত্র। মঙ্গলবার পাটনা থানয় একটি ১৬ দফার দীর্ঘ অভিযোগ রিয়ার বিরুদ্ধে দায়ের করেন প্রয়াত অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের বাবা। সেই অভিযোগের ভিত্তিতেই তড়িঘড়ি তদন্ত শুরু করে বিহার পুলিশ। ইতিমধ্যই ৪ সদস্যের একটি টিম পৌঁচিছে গিয়েছে মুম্বইয়ে। ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৪১, ৩৪২, ৩৮০, ৪০৬, ৫০৬ এবং ৩০৬ ধারায় রিয়ার বিরুদ্ধে এফআইআর করা হয়েছে। 

আরো পড়ুনঃ সুশান্তের আগেও প্রথম ছেলের মৃত্যু, রাজপুত পরিবারে কি পুত্রসন্তান বিয়োগের আশঙ্কা, প্রশ্ন নেটদুনিয়ায়

বিহার পুলিশের তরফ থেকে সব রকমভাবে চেষ্টা করা হয় রিয়া চক্রবর্তীর সঙ্গে দেখা করার, যদিও তা এখনও সম্ভবপর হয়নি বলেই পুলিশ সূত্রে খবর। অন্যদিকে ইতিমধ্যেই বিহার পুলিশ স্থির করে নিয়েছেন যে কে হবেন মুখ্য সাক্ষী সুশান্ত তদন্তের কেসে। একের পর এক তথ্য পুলিশের হাতে তুলে দিয়েছে সুশান্তের বন্ধু মহেশ শেট্টিকে। তাঁর মতে রিয়ার একাধিক পদক্ষেপ সন্দেহ জনক। সুশান্তের বিশ্বস্ত সকল কর্মীদেরই ছাড়িয়েছেন তিনি। 

রিয়া ও তাঁর মা সুশান্তের দেহরক্ষীকে বদল করে দিয়েছিলেন ঠিক কলডাউনের আগে ২২ মার্চ, বলে দাবি করেন মহেশ শেট্টি। এখানেই শেষ নয়, সুশান্ত তাঁর কোনও বন্ধু, দিদি ও পরিবারের সকলের সঙ্গে কথা বলার পরই ফোনকে রিসেট করতেন। কারণ রিয়া ও তাঁর পরিবার চাইতেন না যে সুশান্ত কারুর সঙ্গে যোগাযোগ রাখুক। মহেশের এই একাধিক তথ্য যা বর্তমানে সাক্ষ্য প্রমাণ হিসেবে ব্যবহার করার কথা ভেবেছেন বিহার পুলিশ। ক্রমেই পাল্লা ভারি হচ্ছে সুশান্তের পরিবারের দিকে, এখন দেখার তদন্তের নয়া মোড় অপেক্ষায় আরও কত চমক।