দিশা পাটানি বলিউডের দ্বিতীয় সারির নায়িকাদের মধ্যে একজন। কয়েকটি ছবিতে অভিনয় করতেই দ্রুতগতিতে জনপ্রিয়তার শীর্ষে উঠেছেন দিশা। অতি শীঘ্রই বলিউডে নিজের পাকা জায়গাও করে নিয়েছেন। কেবল কি হটনেস এবং সৌন্দর্যের জোরে। তা বোধহয় নয়। স্ক্রিন প্রেজেন্সেও রয়েছেন মিষ্টতা। যা নজর কেড়েছে ভারতীয় পুরুষদের। মুগ্ধ হয়েছে অসংখ্য দর্শকও। তাঁর রূপ-গুণ যতখানি প্রশংসা পায় তেমনই তাঁর ফ্যাশন সেন্সও টেক্কা দেয় অন্যান্য বলিউড অভিনেত্রীদের। তাঁর ফ্যাশন ফান্ডা এবার নজর কেড়েছে বিদেশি ব্র্যান্ডেরও। ফসিল নামক নামী ঘড়ি এবং স্টাইলিশ গয়নার ব্র্যান্ডে নয়া ভারতীয় মুখ এখন দিশা। 

আরও পড়ুনঃকালো বিকিনিতে ঐশ্বর্য, এমন অবস্থায় বলিউড ছবিতেও ধরা দেননি বিশ্বসুন্দরী

তাঁর ফ্যাশন সেন্সে মুগ্ধ হয়েছেন ফসিল গ্রুপের ভারতের ম্যানেজিং ডিরেক্টর জনসন ভার্গিস। ক্যামেরার সঙ্গে দিশার সাবলিল সম্পর্কে তিনি একেবারে ক্লিন বোল্ড। যার কারণে দিশাকে বানিয়ে ফেলেছেন ফসিল ইন্ডিয়ার ব্র্যান্ড অ্যাম্বাস্যাডর। ভার্গিস জানান, "ভারতে ফসিল বেশ জনপ্রিয়তা লাভ করেছে। ইউথ সেনসেশন দিশার সঙ্গে কাজ করতে পারা অত্যন্ত সৌভাগ্যের বিষয়। তাঁকে দেখার পর থেকেই আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম ভারতীয় মুখ হিসাবে দিশাকেই বেছে নেওয়া উচিত।"

আরও পড়ুনঃএক ঘন্টায় ছ'লাখ লাইকস 'দিল বেচারা'র গানে, ফের সমস্ত রেকর্ড ভাঙার মুখে সুশান্ত

 

দিশাও যে ফসিলের মত ব্র্যান্ড অ্যাম্বাস্যাডরের সঙ্গে কাজ করতে পেরে আনন্দিত বোধ করছেন তা বোঝাই গেল তাঁর মন্তব্যে। "সেরা ডিজাইন এবং বিরল প্রকৃতির ঘড়ি এবং গয়না তৈরি করে ফসিল। যা সচরাচর দেখাই যায় না। এমন কোম্পানির সঙ্গে কাজ করতে পেরে আমি ধন্য। ফসিলের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাস্যাডর হওয়া সত্যিই ভাগ্যের বিষয়। ফসিলের স্টাইল ফ্যাশনের দুনিয়ায় এক ভিন্ন ছাপ ফেলেছে। আমার স্টাইলের সঙ্গে যথেষ্ট মিল রয়েছে।" এই ব্র্যান্ডের সঙ্গে কাজ করার সুযোগ পেয়ে দিশা, বরুণ ধাওয়ানের সঙ্গে কাজ করার সুযোগ পাচ্ছেন। ২০১৮ থেকেই বরুণ ফসিলের ব্যান্ড অ্যাম্বাস্যাডর।