মানব কম্পিউটর শকুপন্তলা দেবী। মুখে মুখে অঙ্ক করে তাক লাগিয়েছিলেন গোটা বিশ্বকে। অঙ্ক যাঁর কাছে ছিল ম্যাজিক ফিগার। সংখ্যা দেখা মাত্রই মস্তিষ্কে চলত কঠিন সমাধান। গণিতজ্ঞ শকুন্তলা দেবীর সেই দাপটেই অবাক হয়েছিল সকলেই। পরিচিতি ঘটেছিল মানব কম্পিউটর নামেই। ১৯৮০ সালে ১৮ জুন তিনি গিনেস বুকে নাম তোলেন। মুখে মুখে বেছে নেওয়া ১৩ সংখ্যার গুণফল করে দিয়েছিলেন মাত্র ২৮ সেকেন্ডে। তবে এতদিন মেলেনি সেই সার্টিফিকেট। 

আরও পড়ুনঃ কেন সুশান্তের মৃত্যুর ৪৪ দিন পর পরিবারের এফআইআর, কারণ খোলসা করলেন আইনজীবী

শুধু মুখেই শোনা যেত গিনেস বুকে নাম ওঠার কথা। কিন্তু ছিল না কোনও প্রমাণ। এবার দীর্ঘ ৪০ বছর পর সেই সার্টিফিকেট পৌঁচ্ছে গেল শকুন্তলা দেবীর মেয়ে অনুপমার কাছে। তাঁর কথায়- আমি জানি এই খ্যাতি বিশ্বের অন্যতম, আমি যেখানেই যাই সেখানেই সকলে এই নিয়ে কথা বলে। অনুপমার বয়স তখন ছিল দশের কাছাকাছি। আজ সেই সার্টিফিকেট হাতে পেয়ে গর্বিত শকুন্তলা দেবীর মেয়ে। 

 

 

পাশাপাশি ওটিটি প্ল্যাটফর্মে ইতিমধ্যেই মুক্তি পেয়েছে শকুন্তলা দেবী ছবি। যেখানে মুখ্য ভুমিকাতে অভিনয় করেছেন বিদ্যা বালান। এই খবর পেয়ে তিনিও আনন্দিত। জানান, লন্ডনে ছবির শ্যুটিং-এর সময় অনেকবার অনুপমার কাছে গিয়েছিলেন তিনি। কথায় কথায় বুঝেছিলাম শকুন্তলা দেবীর কাছে কোনও সার্টিফিকেট ছিল না। সেই সার্টিফিকেট হাতে পেলেন শকুন্তলা দেবীর মেয়ে ৩০ জুলাই।