সুপার থার্টি ছবি এক প্রকার সুপারহিট। এখনও বক্স অফিসে নিজের জায়গা পাকা করেই টক্কর দিয়ে চলেছে। শুধু তাই নয়, এবার দুশো কোটির ক্লাবে নিজের জায়গা করার দিকেই পা বাড়িয়ে এই ছবি। ফলে হৃত্বিক রোশনের জীবনে এই ছবি এক স্মরণীয় স্মৃতি হয়েই রইল। এক শিক্ষকের জীবনী অবলম্বণে তৈরি ছবি সুপার থার্টি। শিক্ষক ছাড়া প্রকৃত শেখার জায়গাটাই বোধ হয় থাকে না। সেই সত্যকেই মেনে নিয়ে হৃত্বিক রোশন নিজেই তাঁর সুপার থার্টি ফ্লোরের শিক্ষকদের ধন্যবান জানালেন।

আরও পড়ুনঃ শাহরুখ খানের আগামী ছবি নিয়ে আবারও জল্পনা বি টাউনে! চিত্রনাট্য নিয়ে ব্যাস্ত কিং খান

নিজের সোশ্যাল মিডিয়ার পাতায় ছবি শেয়ার করে সকলের সঙ্গে পরিচয় ঘটালেন তাঁর দুই শিক্ষকের সঙ্গে, গণেশ ও বিনোদ। তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা শিকার করে তিনি জানলেন ধন্যবাদ। লিখলেন তাঁরা না থাকলে এইভাবে তিনি অভিনয় করতে পারতেন না। গণেশ, তাঁকে বিহারি ভাষায় সাবলিলভাবে কথা বলতে শিখিয়েছেন। তিনি জানান, 'গণেশ, তুমি একজন অনবদ্য অভিনেতা, তুমি যেভাবে সময় নিয়ে, ধৈর্য ধরে আমায় বিহারি উচ্চারণ শিক্ষিয়েছ তার জন্য ধন্যবাদ'। অন্যদিকে তিনি আবার বিনোদের প্রতি লিখেছিলেন, 'তুমি আমার অন্তরের অজানা সুপ্ত ক্ষমতাগুলিকে আবিষ্কার করতে সাহায্য করেছ।' 

 

 

এই ছবিতে হৃত্বিক রোশনের অনবদ্য অভিনয়ের পেছনে যে এই দুজনের ভুমিকা অনস্বীকার্য তা হৃত্বিকের এদিনের পোস্টে স্পষ্ট। শুক্রবার মুক্তি পেয়েছে কঙ্গনা রানওয়াতের ছবি জাজমেন্টাল হ্যায় কেয়া, সেই ছবি এখন বক্স অফিসে কতটা টক্কর দিতে পারে সুপার থার্টিকে, সেই দিকেই এখন লক্ষ হৃত্বিক রোশনের।