কেরিয়ারের শুরু থেকেই হৃত্বিক রোশন পর্দায় নিজের অভিনয়ের গুণেই মুগ্ধ করেছিলেন দর্শকদের। একের পর এক ছবি বক্স অফিসে বিস্তর সাফল্যের মুখ দেখেছিল। কিন্তু সেই সমীকরণ পর্দায় বেশিদিন স্থায়ী হয়নি। অভিনেতা হৃত্বিক রোশনকে সকলেই পছন্দের তালিকায় ওপরের সারিতে রাখলেও মুখ থুবরে পড়তে হয়ছিল বেশ কিছু ছবিকে। একটা সময়ের পর বেশ কিছুটা বিরতি। 

আরও পড়ুনঃঅ্যাসিসটেন্ট পরিচালক থেকে অ্যাকশন ফিল্মের মাফিয়া, রোহিত শেট্টির জন্মদিনে সেরার সেরা ছবির তালিকা

আরও পড়ুনঃছোটপর্দার 'পূজা' থেকে ওয়েবের 'মায়া', নেটদুনিয়ার সেরা সেক্স সিম্বলের তকমা এখন শমার ঝুলিতে

ভক্তদের মুখ ছিল ম্লান। কবে আবারও পর্দায় সেভাবে পাওয়া যাবে গ্রিক গডের সেরার সেরা উপস্থাপনা। সেই আশ মিটিয়েই নয়া মোড় নিয়ে ২০১৯ এর ১২ জুলাই পর্দায় উপস্থিত হয়েছিলেন হৃত্বিক রোশন। প্রথম বায়োপিকে নজর কাড়লেন তিনি। ছবির নাম সুপার থার্টি। আনন্দ কুমারের বায়োপিক মুহুর্তের মধ্যে ছড়িয়ে পড়েছিল খবরের শিরোনামে। অনবদ্য চিত্রনাট্য আর ততটাই ব্যালন্স অভিনয়। ঝাঁ-চকচকে পর্দা নয়, সেটে উচ্চ শ্রেণীর ছোঁয়া নয়, রাস্তার দাঁড়িয়ে ছেঁড়া জামা পরে পাঁপর বিক্রি  করেছিলেন হৃত্বিক এই প্রথম। 

আরও পড়ুনঃবছরে একটা ছবি আর সেটাই সুপারহিটের তকমা, এক্সপেরিমেন্টাল লুকে বাজিমাত আমিরের

ছবি বক্স অফিসে শুধু ঝড়ই তোলেনি। একের পর এক সেরার সেরা তালিকাতে নামও লিখিয়েছিল। অনবদ্য অভিনয় করে সকলকে তাক লাগিয়ে ছিলেন হৃত্বিক। ফিরে ছিলেন অচেনা লুকে চেনা ফর্মে। এক বছরের মাথায়ও সেরার সেরা তালিকাতে অন্য ছবিকে কড়া টক্কর দিয়ে চলেছে সুপার থার্টি। সম্প্রতি জি সিনে পুরস্কারের মঞ্চে সেরা অভিনয়ের পুরস্কারটিও নিজের দখলেই রাখলেন হৃত্বিক রোশন। বর্তমানে তিনি বেশ কয়েকটি ছবির কাজ নিয়ে ব্যাস্ত।