শ্রীদেবীর মৃত্যুর দেড় বছর হয়ে গিয়েছে। কিন্তু স্ত্রীর মৃত্যুর শোক থেকে সে ভাবে বেরোতে পারেননি বনি কাপুর। তাই যে কোনও প্রসঙ্গেই কথা বলতে বলতে তুলে আনেন স্ত্রীর প্রসঙ্গ। সম্প্রতি এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলার সময়েও স্ত্রীর স্মৃতিচারণায় মগ্ন হলেন তিনি। 

জাহ্নবীর তৈরি কড়া ডায়েট মেনে সম্প্রতি ১২ কেজি ওজন কমিয়েছেন বনি। তবে এই প্রথম নয়। এর আগেও ওজন কমিয়েছিলেন তিনি। বনি সংবাদমাধ্যমের কাছে বলেন, আমি যখন শ্রীদেবীর সঙ্গে বিয়ের প্রস্তুতি নিচ্ছি, তখন আমায় ডায়েট করে ১৪ কেজি ওজন কমাতে হয়েছিল। 

তবে শুধু শ্রীদেবীর জন্য ওজন কমানোই নয়। শ্রীদেবীর জন্য মোটাও হয়েছিলেন তিনি। শ্রীদেবী যখন গর্ভবতী, তখন তাঁর সঙ্গে ওজন বাড়িয়েছিলেন বনি কাপুরও। বনির কথায়, শ্রী যখন গর্ভবতী তখন ও অনেক মিল্ক শেক ও আইসক্রিম খেতেন। ও মিষ্টি খেতে ভালবাসত আর আমিও ফালুদা, আইসক্রিম খেতে পছন্দ করতাম। আমরা সেই সময়ে আমাদের পছন্দের রেস্তোরাঁয় যেতাম আর অনেক অনেক খেতাম।

কিন্তু এখন আর কবজি ডুবিয়ে খেতে পারেন না বনি। কারণ জাহ্নবী তৈরি করে দিয়েছেন কড়া ডায়েট চার্ট। বনি জানাচ্ছেন, জাহ্নবী আমায় একটা ডায়েট চার্ট ঠিক করে দিয়েছেন। আমার এক পারিবারিক বন্ধু আছে যিনি ডায়েটিশিয়ান। ওর সঙ্গে কথা বলেই জাহ্নবী ঠিক করেছে আমি কী খাব, কী খাব না। শ্রী-ও চাইত আমি ওজন কমাই। আমি খুব চেষ্টা করতাম কিন্তু আমি খেতে খুব ভালবাসি। তাই শ্রীও হাল ছেড়ে দিয়েছিল। 

কিন্তু এখন শ্রীদেবীর কথা মনে রেখে আর মেয়ে জাহ্নবী কাপুরের কড়া শাসনে ওজন অনেকটাই কমিয়ে ফেলেছেন বনি কাপুর।