সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর তদন্তে নেমেই একের পর এক নয়া মোড় নিয়ে হাজির কেন্দ্রের তিন বিভাগ। বর্তমানে তদন্তের অধিকাংশটাই জুড়ে রয়েছে নার্কোটিক্স। একের পর এক গ্রেফতার এখন মাদক চক্রে। সুশান্ত সিং রাজপুত নিতেন দ্রাগ। জল্পনার শুরু এই স্টেটমেন্ট থেকেই। একের পর এক বয়ানে উঠে আসতে থাকে এমনই তথ্য। কিন্তু কোথায় পেতেন অভিনেতা এই মাদক। সামনে এসেছিল রিয়া চক্রবর্তীর নাম। তারপর থেকেই এনসিবি-র অ্যাকশন সকলের চোখের সামনেই ভাইরাল। 

 

 

তড়িঘড়ি একের পর এক গ্রেফতার হতে থাকে। প্রথম শুরু হয় রিয়া চক্রবর্তীর ভাই শৌভিক ও স্যামুয়েলকে দিয়ে। এরপর মোট ১১ জনকে হেফাজতে নিয়েছিল নার্কোটিক্স। আবারও চলে জেরা। এনসিবি থেকে সাফ জানিয়ে দেওয়া হয়, তাঁর সন্ধানে রয়েছে বড় মাথার। এবারহ সেই পথেই এগোচ্ছে তদন্ত। কারা মাদক চক্রে জড়িত, তা ক্ষতিয়ে দেখছে কেন্দ্রের এই সংস্থা। এবার তাদের হাতে এল কারমজিৎ। আন্ধেরি থেকে তাকে আটক করা হয় রবিবার। শৌভিকের এই বন্ধুর নাম কী সামনে এনেছেন খোদ শৌভিক! আরও কার কার নাম রয়েছে অপেক্ষায়!

 

 

কে বা কারা মাদক চক্রের সঙ্গে জড়িত, কীভাবে চলছে সরকারের নাকের তলা দিয়ে ড্রাগস পার্টি! তাও ক্ষতিয়ে দেখা হচ্ছে বর্তমানে। ইতিমধ্যেই বলিউডে মাদক যোগ নিয়ে একাধিক তথ্য ভাইরাল। কখনও সামনে উঠেএসেছে অভিনেতা-অভিনেত্রীদের মাদক নেওয়ার ঘটনা, কখনও আবার সামনে উঠে এসেছে বিভিন্ন তারকাদের রক্তের নমুনা পরীক্ষার প্রসঙ্গ। ২৫ সেলেবের নামের একটি তালিকাও ইতিমধ্যেই তৈরি করে ফেলেছে এনসিবি। এখন দেখার একের পর এক আটক মাদক চক্রের মাথারা আরও কার কার নাম প্রকাশ্যে আনেন।