ভারতীয় সেনাদের প্রশংসায় পঞ্চমুখ প্রিয়ঙ্কা। কেন এই পক্ষপাতিত্ব! প্রশ্ন তুলে ছিল পাকিস্তান। সেখান থেকেই শুরু জল্পনা। পাকিস্তানের যুক্তিতে, ইউনিসেফের গুডউইল অ্যাম্বস্যাডর হওয়ার সত্ত্বেও কীভাবে তিনি এই ধরনের মন্তব্য করেন! ফলে তোপের মুখে পড়তে হয় প্রিয়ঙ্কা চোপড়াকে। 

আরও পড়ুনঃ 'সব ঠিক হয়ে যাবে'- আমির কন্যার পোস্ট ঘিরে নয়া জল্পনা

ফেব্রুয়ারী মাসে পুলওয়ামা ঘটনাকে নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি মন্তব্য পোস্ট করেন প্রিয়ঙ্কা। সেখানেই তিনি ভারতীয় সেনাদের প্রশংসা করে লেখেন জয় হিন্দ। সেই পোস্ট দেখা মাত্রই সোশ্যাল মিডিয়াতে সরব হয়েছিলেন পাকিস্তানের বহু ব্যক্তিত্বরা। প্রকাশ্যেই দাবি তোলা হয় তাঁকে সরিয়ে দেওয়া হক এই পদ থেকে। এখানেই শেষ নয়,  এক অনুষ্ঠানে তাঁকে এক পাকিস্তানের মহিলা প্রশ্ন করেছিলেন তিনি কেন যুদ্ধ পরিস্থিতিতে সমর্থন করছেন! 

আরও পড়ুনঃ আবারও প্রেমে মজলেন স্বরা ভাস্কর! বিখ্যাত ব্যক্তিত্বের পুত্রের সঙ্গে জড়ালো নাম

স্পষ্টভাবেই তিনি সেদিন বুঝিয়ে দিয়েছিলেন, তিনি একজন ভারতীয়। তাঁর এই মতামত প্রকাশ্যের অধিকার রয়েছে। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করেই পাকিস্তান থেকে দাবি তোলা হয় যে তাঁকে বাদ দেওয়া হক গুগউইল অ্যাম্বাস্যাডর পদ থেকে। সেই খাতে একটি চিঠিও পাঠিয়েছিলেন পাকিস্তানের মানবাধিকার মন্ত্রী শিরিন মাজারি। কিন্তু সেই দিকে নজর না দিয়েই রাষ্ট্রসংঘ জানিয়ে দেয় প্রিয়ঙ্কার নিজের মত পোষনের অধিকার রয়েছে। ফলে তিনি কোনও ভুল করেননি।