বাদশার বাদশা হয়ে ওঠার স্বপ্নই হল কাল, বিশ্ব রেকর্ড গড়ার চেষ্টায় এবার পুলিশের জ্বালে পড়লেন ব়্যাপার। বলিউডে এখন অধিকাংশ গানই সাজিয়ে তুলছেন তিনি। পাশাপাশি বেশ কিছু রিয়ালিটি শো-তেও একাধারে বাজতে থাকে তাঁর গাওয়া বিভিন্ন গান। মুহূর্তে ভিউ ছাড়িয়ে যায় কোটি। তবে তাতে সন্তুষ্ট নন গায়ক। এমন গান তৈরি করতে হবে যা ভিউয়ের নিরিখে বিশ্বরেকর্ড গড়ে তোলে। 

আরও পড়ুনঃ বিবাহ অভিযান, অতিথির তালিকায় ৩০, লকডাউনেই জমকালো বিয়ের আসর রানা-মিহিকার

সেই পথে পা বাড়িয়েই লরকি পাগল হ্যায় গানটি তৈরি করেছিলেন তিনি। চেয়েছিলেন গান মুহূর্তে হয়ে উঠবে ভাইরাল। ২৪ ঘণ্টার ভিউতে ঝড় তুলবে বিশ্বের দরবারে, গড়বে রেকর্ড। ঠিক তেমনটাই হওয়ার পথে এগিয়ে ছিল গান। কিন্তু স্বপ্নপূরণ হল না। কীভাবে হু হু করে বাড়তে থাকে গানের ভিউ, না গানের জন্য বা ভক্তদের হাতে হাতে নয়, রীতিমত টাকার বিনিময়ে তিনি ভিউ কিনেছিলেন। পুলিশের জেরার মুখে সবটাই শিকার করলেন এবার বাদশা। 

কানাঘুষো খবর পাওয়ার পরই মুম্বই পুলিশ সমন পাঠিয়েছিলেন বাদশার নামে। ব়্যাপার জানিয়েছিলেন, তিনি সহযোগিতা করবেন। এবার করলেনও তেমনটাই। তবে প্রাথমিকভাবে সবটাই অস্বীকার করেছিলেনতিনি। পরবর্তীতে পুলিশকে সবটা খুলে জানালেন বাদশা। তিনি ৭২ লক্ষ টাকার বিনিময়ে কিনেছিলেন সাত কোটি দুই লক্ষ ভিউ। যা দিয়ে তিনি চেয়েছিলেন বিশ্ব রেকর্ড গড়তে। ২০১৯ সালে মুক্তি পাওয়া এই গান নিয়েই এখন ক্রাইম ব্রাঞ্চ উঠে পরে লেগেছে, জানিয়েছেন তাঁদের কাছে রয়েছে ২৫০টিরও প্রশ্ন, বাদশা সবটাই শিকরা করেছেন, তাঁর মতে তিনি এক এজেন্সিকে টাকাটা দিয়েছিলেন এই ফেক প্রমোশনের জন্য।