সুশান্ত সিং রাজপুতকে নিয়ে একের পর এক গোপন তথ্য প্রকাশ্যে আসছে। যত সময় এগোচ্ছে তার মৃত্যু নিয়ে  জট ক্রমশ গাঢ় হচ্ছে।  বিজেপি সাংসদ তথা  অভিনেত্রী রূপা গঙ্গোপাধ্যায় বিভিন্ন বিষয় সোশ্যাল মিডিয়ায় তুলে ধরেছেন। এবার সুশান্তের বাড়ির চাবি নিয়ে প্রশ্ন তুললেন রূপা। কীভাবে এত তাড়াতাড়ি সুশান্তের বাড়ির ডুপ্লিকেট চাবি তৈরি হল, তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন বিজেপির রাজ্যসভার সাংসদ রূপা গঙ্গোপাধ্যায়। তবে শুধু সুশান্তের চাবি নিয়েই প্রশ্ন তোলেন নি এর পাশাপাশি নিজের বাড়ির আধুনিক লক সিস্টেমের ছবিও পোস্ট করেছেন রূপা।

আরও পড়ুন-বয়স প্রায় ৫০ ছুঁই ছুঁই, হার না মানা লড়াকু 'জয়া'-র রইল একগুচ্ছ সেরা ছবি...

নিজের টুইটারে রূপা একের পর এক ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন। রূপা জানিয়েছেন,  আমি আমার বাড়ির লক ডোর ও চাবির ছবি পোস্ট করলাম। এখনকার প্রতিটি বাড়িতেই দরজাগুলি আধুনিক লক সিস্টেমের হয়। আমার ধারণা ওর বাড়িতেও এমনই আধুনিক লক সিস্টেমের দরজা ছিল। কিন্তু সেই লকের চাবি এত তাড়াতাড়ি কীভাবে ডুপ্লিকেট করা সম্ভব হল, তা নিয়ে একাধিক প্রশ্ন তুলেছেন রূপা। দেখে নিন পোস্টটি।

 

 

এখানেই ক্ষান্ত হননি। তিনি আরও জানিয়েছেন, সুশান্তের মামলায় এই বিভিন্ন বিষয় প্রশ্ন তোলা প্রায় অসম্ভব হয়ে যেত, যদি না সোশ্যাল মিডিয়া থাকত। বিভিন্ন প্রতিবেদনের তথ্য অনুসারে সুশান্তের ঘরের ডুপ্লিকেট চাবিটি পাওয়া যাচ্ছিল না। একটি চাবিওয়ালাকে দিয়ে ডুপ্লিকেট চাবি বানিয়ে নাকি ঘর খোলা হয়। তাহলে অন্য চাবি ছাড়া কীভাবে ডুপ্লিকেট চাবি তৈরি করা হল , সেই প্রশ্নও উঠে আসছে।

 

 

কিছুদিন আগেই সুশান্তের মৃত্যুর সিবিআই তদন্ত নিয়ে  দাবি করেছিলেন অভিনেত্রী রূপা গঙ্গোপাধ্যায়। নিজের টুইটারে অভিনেত্রী রূপা জানিয়েছেন, অভিনেতার মৃত্যুর তদন্তভার কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থার হাতে তুলে দেওয়া হোক। এবার সুশান্ত সিং রাজপুতের  সোশ্যাল মিডিয়া নিয়ে সরব হয়েছেন রূপা গঙ্গোপাধ্যায়  ।  একের পর এক সোশ্যাল মিডিয়া পোস্ট ডিলিট হয়ে যাচ্ছে সুশান্তের। কিন্তু কীভাবে হচ্ছে?   কে-ই বা ব্যবহার করছে সুশান্তের ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্ট?  কারাই বা জড়িত রয়েছে?  পুলিশ নাকি অন্য কেউ ?   এই সমস্ত নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন বিজেপি সাংসদ তথা  অভিনেত্রী রূপা গঙ্গোপাধ্যায়। সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুতে স্বজনপোষণ যেন আর ভালভাবে মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে। যত সময় এগোচ্ছে তার মৃত্যু নিয়ে  জট ক্রমশ গাঢ় হচ্ছে।   এমনকী সুশান্তের পরিবারের পক্ষ থেকেই তার মৃত্যুকে আত্মহত্যা নয় বলেই দাবি করেছেন। ঠিক কোন পরিস্থিতিতে আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছেন সুশান্ত সেই কারণ খতিয়ে দেখতেই তদন্তে নেমেছে পুলিশ। একের পর এক অভিনেতারা তার মৃত্যু নিয়ে সরব হচ্ছেন সোশ্য়াল মিডিয়ায়। সম্প্রতি সুশান্ত  সিং রাজপুতের মৃত্য নিয়ে গর্জে উঠেছেন মহাভারতের দ্রৌপদী রূপা গঙ্গোপাধ্যায়। সত্যিই কি মানসিক চাপ থেকেই  আত্মহত্যা নাকি পরিকল্পনা মাফিক খুন? এই নিয়ে সকলের মনে দানা বেঁধেছে  হাজারো রহস্য। সুশান্তের মৃত্যুর খবরে উত্তাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়া। এখনও পর্যন্ত সুশান্তের মৃত্যুর কোনও সুইসাইড নোডও উদ্ধার করা হয়নি , তাই এটি যে আত্মহত্যা তা-ই বা কী করে জানাল পুলিশ, এই প্রশ্নও তুলেছেন বিজেপি নেত্রী।