২০২০ সাল, এককথায় মানুষ চেনার বছর। কথায় বলে বিপদে পড়লেই বোঝা যায় তোমার প্রকৃত বন্ধু কে। এই বছরটা সাধারণ মানুষের জীবনে ঝড়। সাহায্য চেয়ে গোটা বিশ্বে ওঠে হাহাকার। কাল বাড়ি ফিরে আর্তনাদ, কলরবের খিদের জ্বালা। এই ভয়াবহ পরিস্থিতিতে যখন সরকার দিশেহারা সেই সময় হাজার হাজার পরিযায়ী শ্রমিক দের পাশে দাঁড়িয়েছিলেন সোনু সুদ। সকলকে পৌঁছে দিয়েছিলেন বাড়িতে। বিপদে মানুষের ঈশ্বরকে ডাকতেন না, সোনু সুদ এর সোশ্যাল মিডিয়া পাতায় ভিড় জমাতেন।

 

 

চাকরির আবেদন থেকে শুরু করে, বাড়ি ফেরার ওষুধ, সবই যেন মিল ছিল মুহূর্তে। ভেঙ্গে পড়া মানুষ নতুন করে বাঁচার স্বপ্ন দেখছিলেন। ধীরে ধীরে বাড়তে থাকে তার ভক্তের সংখ্যা। কোন মা তার ছেলেকে বাড়িতে ফিরে পেয়ে পুজো করতেন অভিনেতার, কেউ আবার তার নামে দোকান খুলে পাতেন নতুন ব্যবসা। সেই থেকে শুরু। গোটা দেশজুড়ে দেড়গুণতি ভক্ত ছড়িয়ে পড়ে।

 

 

ইতিমধ্যেই বিহারে স্থাপন করা হয়েছে তার একটি মূর্তি। এবার তেলেঙ্গানার সিড্ডিপেট জেলার দুব্বা টান্ডা গ্রামে মূর্তি স্থাপন করা হয়। এই  মন্দির এই দক্ষিণী আদব কায়দায় পুজো করা হয় তার। এই ছবি ও খবর ছড়িয়ে পড়ার পরই নজরে আসে সোনুর। মুহূর্তে তিনি সোশ্যাল মিডিয়ার পাতায় হয়ে ওঠেন সরব। লেখেন এ আমার প্রাপ্য নয়। মুহূর্তে তা ছড়িয়ে পড়ে সোশ্যাল মিডিয়ায়। আবারো প্রশংসায় পঞ্চমুখ নেটিজেন। তার এই মানুষিকতাই তাকে করে তুলেছে ভগবান।