পত্রলেখা বসু চন্দ্র, বর্ধমান: লকডাউনে বাজারে খাবার জোগাড় করতে কালঘাম ছুটছে,তার ওপর চড়া কলেজ ফি। বেগতিক বুঝে আগেই ফি কমানোর দাবিতে উপাচার্যের দ্বারস্থ হলেন পড়ুয়ারা। পড়ুয়াদের এই দাবিতে অবস্থান বিক্ষোভে সামিল হয়েছে এবিভিপিও। বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে অবস্থান বিক্ষোভ শুরু করেছে তারা। বর্ধমান রাজ কলেজে লকডাউনে ফি কমানোর দাবিতে আন্দোলনে নেমেছে ছাত্র-ছাত্রীরা। তাদের দাবি, অন্য কলেজের তুলনায় দ্বিগুণের বেশি ফি দেওয়ার নোটিশ দেওয়ার পরই প্রতিবাদে সামিল হয়েছে অখিল ভারতীয় বিদ্যার্থী পরিষদ।

পড়ুয়াদের অভিযোগ , ষষ্ঠ সেমিস্টারের অনার্স এবং জেনারেল-এর জন্য কলেজ কর্তৃপক্ষ চলতি মাসের ৩১ তারিখে ফি জমা দেওয়ার নোটিশ জারি করেছে। সেই ফি এর পরিমাণ অন্য কলেজের তুলনায় অনেক বেশি বলে অভিযোগ।  ইতিমধ্যেই  ছাত্র-ছাত্রীরা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ, কলেজের প্রিন্সিপাল , জেলা শাসকের কাছে ইমেলের মাধ্যমে ফি কমানোর আবেদন করেছে। কিন্তু তাতেও কোনও সদুত্তর তারা পায়নি বলে অভিযোগ। 

তাদের বক্তব্য লক ডাউনের সময় কোনো ক্লাস হয়নি। অথচ কলেজ কর্তৃপক্ষ টিউশন ফি, ইলেকট্রিক ফি,গেম ফি, সহ বেশ কিছু ফি নিচ্ছে। এমনিতেই অর্থনৈতিক সংকটে রয়েছে বহু ছাত্র-ছাত্রীর পরিবার। এই অবস্থায় ফি কমানো না হলে তারা ভর্তি হতে পারবে না, এই আশঙ্কা করছে।

আজ এবিভিপি-র পক্ষ থেকে বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে কয়েকজন ছাত্র অবস্থান-বিক্ষোভ করে। পাশাপাশি  কয়েকজন কলেজ পড়ুয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের কাছে নতুন করে ফি কমানোর আবেদন জানিয়েছেন। রাজ কলেজের প্রিন্সিপাল নিরঞ্জন মন্ডল ফোনে  জানিয়েছেন, বিষয়টি ভাবনা চিন্তার মধ্যে আছে । ছাত্রদের সাথে কথা বলব। ৩১ তারিখ শেষ তারিখ নিয়ে ছাত্রছাত্রীদের সাথে আলোচনা করবেন বলে তিনি জানিয়েছেন। তারপর সিদ্ধান্ত জানাতে পারবেন।