নেশা নয়,মাইনে পেলে মাঝে মাঝে লুকিয়ে লটারির টিকিট কিনত গলসির ম্যাক্স চালক সেখ রুপেস।  মঙ্গলবার পূর্ব বর্ধমানের গলসিতে সন্ধ্যার লটারি খেলায় ভ্গায় খুলে গেল তাঁর। লাটারিতে এক কোটি টাকা পেলেন তিনি। 

রূপেস জানিয়েছে, আত্মীয় বিয়োগের জন্য বিকেলে গলসি বাজারে ফল কিনছিলেন। ওই সময় দুশো টাকা তার পটেকে ছিল। তা থেকে তিনি ষাট টাকা খরচ করে দুটি সিরিজ ডিয়ার ইভিনিং লটারি কেনেন বাজারেরই একটি লটারির দোকান থেকে।  পরে রাত নটার পর জানতে পারেন ওই দুটির মধ্যে একটি টিকিটে তার এক কোটি টাকা বেধেছে। তিনি 87A 12782 এবং 87A 12783 এই দুটি নম্বরের পাঁচ সেমের টিকিট কেনেন। তার মধ্যে 87A 12782 নম্বরে তার ভাগ্যে লেগে যায় এক কোটি টাকা। রাত থেকে সুরক্ষার জন্য তিনি চুপচাপ থাকেন। তারপর সকাল হতেই তিনি বর্ধমানের স্টেট ব্যাংকের মেন শাখায় যোগাযোগ করেন ও সেখানে জমা দেন তার ওই টিকিট। ষাট টাকার টিকিটই এখন ভাগ বদলে দিল রূপেসের।

স্থানীয়রা জানান, গলসিতে সরকারি এক রেশন ডিস্ট্রিবিউটারর গাড়ি চালাত রূপেস। সপ্তাহের অধিকাংশ দিন সে রেশন নিয়ে এলাকার ডিলারদের বাড়িতে নিয়ে যেত। ওখান থেকে সে মাসিক সাত হাজার টাকা মাইনে পেত। বাড়িতে স্ত্রী, কন্যা, মা বাবা ও ভাইকে নিয়ে তাদের অভাবের সংসার। বাবা দিনমজুর। অভাবের সংসারে অনেক কষ্টে বড় হয়েছেন। তবে বর্তমানে রুপেস ও তার ছোট ভাই সেখ আনারুল গাড়ি চালিয়ে তাদের সংসার চালাতেন। 

রূপেস জানিয়েছেন,এই টাকায় কিছু জমি কিনবেন। তারপর পাকা বাড়ি করবেন এলাকায়। তিল তিল করে গড়ে তোলা স্বপ্ন পূরণের পালা এবার। তাই এখনই কোথায় কী করবেন তা জানাবেন না সবাইকে।