মাথায় হাত সাধারণ মানুষের। জানা গিয়েছে, দেশ জুড়ে প্রায় সাড়ে ৪ কোটি রেশন কার্ড বাতিল করেছে কেন্দ্রীয় সরকার। কেন্দ্রীয় উপভোক্তা বিষয়ক মন্ত্রকের তরফ থেকে জানানো হয়েছে এই কথা।  খাদ্য এবং গণবণ্টন সম্পর্কিত তথ্য দিতে গিয়ে এ কথা সাফ জানিয়েছে কেন্দ্রীয় উপভোক্তা বিষয়ক মন্ত্রক। শুধু এই নয় জানা গিয়েছে, ২০১৩ সাল থেকে এখন পর্যন্ত মোট চার কোটি ঊনচল্লিশ লক্ষ রেশন কার্ড বাতিল করা হয়েছে। 

কেন্দ্রের তরফে এই বিষয়ে জানানো হয়েছে যে, দেশের ৮১ কোটি ৩৫ লক্ষ মানুষকে খুব কম মূল্যে PDS-এর মাধ্যমে খাদ্যশস্য বা রেশন দেওয়া করা হচ্ছে। ২০১১ সালের গনণা অনুযায়ী, দেশের জনসংখ্যার প্রায় দুই-তৃতীয়াংশ মানুষই সরকারি রেশন ব্যবস্থার অধীনে রয়েছে এবং তাঁরা রেশন ব্যবহারও করেন। ২০১৩ সাল থেকে তথ্যগত ত্রুটি-সহ কার্ড বা ভুয়ো রেশন কার্ডগুলি বাতিল করা হয়েছে। 

আরও পড়ুন- সর্বনাশ, প্যান কার্ডের এই কাজটি না করলেই দিতে হবে বড় অঙ্কের জরিমানা

তবে এই বিপুল সংখ্যাক রেশন কার্ড একদিনে বাতিল করা হয়নি। ২০১৩ সাল থেকেই চলছে এই পক্রিয়া। তবে যে শুধু কার্ড বাতিল হয়েছে তা নয়, পাশাপাশি এই সাত বছর ধরে সঠিক ও যোগ্য সুবিধাভোগী পরিবারগুলিকে নতুন কার্ডও দেওয়া হয়েছে। দেশের ৮১ কোটিরও বেশি মানুষ এই লকডাউনের সময়ে রেশন থেকে ২ টাকা ও ৩ টাকা কেজি দরে চাল, গম এবং অন্যান্য শস্য পেয়ছে। 

আরও পড়ুন- ১ মিনিটে লেনদেন এবার আরও সহজ,আকর্ষণীয় নয়া ফিচার্স নিয়ে হাজির 'Whatsapp Pay'

শুধু এই নয় বহু দিন আগে থেকেই কেন্দ্রীয় সরকারের তরফ থেকে এক দেশ এক রেশন কার্ড চালু করার বিষয়ে চিন্তা ভাবনা চালাচ্ছে। এই কার্ডের ফলে দেশের যে কোনও প্রান্ত থেকেই সঠিক ও যোগ্য সুবিধাভোগী পরিবারগুলি রেশন নিতে পারবেন। এর পাশাপাশই ভুয়ো কার্ডের কারচুপি বন্ধ করতে  রেশন কার্ডের সঙ্গে আধার কার্ড লিঙ্ক করানোও বাধ্যতামূলক করা হচ্ছে। আর যেই সমস্ত কার্ডে এই লিঙ্ক থাকবে না ভবিষ্যতে সেই কার্ড বাতিলের সম্ভাবনাও থাকতে পারে।