দারিদ্র্যসীমার নিচে থাকা পরিবারের মহিলাদের বিনামূল্যে গ্যাসের কানেকশন দেওয়ার জন্য কেন্দ্রীয় সরকারের উজ্জ্বলা প্রকল্পে প্রায় আট লক্ষাধিক গ্রাহক রয়েছে। গত বছরের নভেম্বর মাস থেকে শুরু করে বারবার মূল্য বৃদ্ধির কারণে মহার্ঘ্য এই গ্যাসের দাম দিতে নাজেহাল হচ্ছে সাধারণ মানুষ। ২০১৯ সালের সেপ্টেম্বর মাসে আয়েশা শেখ নামে এক মহিলাার হাতে স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী উজ্জ্বলা শংসাপত্র তুলে দিয়েছিলেন। সেই আয়েশাও জানিয়েছেন, গ্যাসের এই দাম বৃদ্ধির ফলে চরম সমস্যা দেখা দিয়েছে।

আরও পড়ুন- দেশে জিডিপি ০.৪ শতাংশ বৃদ্ধি, করোনা আবহেই আশার আলো দেখছেন বিশেষজ্ঞরা 

গ্যাসের মূল্য বৃ্দ্ধির ফলে সিলিন্ডার কিনতে অসুবিধায় পড়ছেন কয়েক লক্ষ মানুষ। ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের বিভিন্ন চ্যানেলে মানুষের এই চরম সমস্যার দৃশ্য দেখা গিয়েছে। বেশ কিছু গ্রামে গ্যাসের বদলে আবারও মাটির উনুনে রান্না শুরু করেছে কয়েক লক্ষ পরিবার। ২০২০ সালের নভেম্বর মাস থেকে চলতি মাসের ১ তারিখ পর্যন্ত অর্থাৎ মাত্র তিন মাসে গ্যাসের দাম ৫০ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। ২০২০ সালের ৩০ নভেম্বর গ্যাসের দাম ছিল ৫৯৪ টাকা। ২০২১ সালের পয়লা মার্চে সেই দাম পৌঁছেছে  ১ মার্চ- ৮৪৫.৫০ টাকা। স্বাধীন ভারতে এই প্রথম এত কম সময়ে এই মূল্যবৃদ্ধি দেখল দেশবাসী।

আরও পড়ুন-  মার্চ মাসে ৭ দিন বন্ধ থাকবে রাজ্যের সব ব্যাঙ্ক, কাজে সেরে ফেলুন আগে থেকেই, না হলেই চরম দুর্ভোগ 

 

এই বিষয়ে এসবিআই স্টাফ অ্যাসোসিয়েশনের (বেঙ্গল সার্কেল) প্রাক্তন ডেপুটি চিফ সেক্রেটারি অশোক মুখার্জী জানিয়েছেন, 'ডিজেল, পেট্রোল এবং এলপিজির মূল্য বৃদ্ধি সাধারণ মানুষকে মারাত্মক সমস্যায় ফেলে দিয়েছে। ২০১৪ সালে যখন ইউপিএ সরকার ক্ষমতায় ছিল তখন অপরিশোধিত তেলের দাম ছিল ১১০ টাকা এবং পেট্রল, ডিজেল এবং এলপিজির সিলিন্ডারের দাম ছিল ৭১ টাকা এবং ৫৫ টাকা। এলপিজি সিলিন্ডারগুলিও অনেক কম দাম ছিল। এখন আন্তর্জাতিক বাজারে অপরিশোধিত তেলের দাম অর্ধেক। তবে ডিজেল, পেট্রল এবং এলপিজি সিলিন্ডারের দাম বেড়েছে। কিছু কিছু রাজ্যে পেট্রোলের দাম পড়ছে ১০০ টাকা ছাড়িয়ে গিয়েছে। ডিজেল ৮৫ টাকা ছাড়িয়েছে এবং কলকাতায় এলপিজি সিলিন্ডারের দাম ৮৪৫ - টাকা। ফলস্বরূপ সাধারণ মানুষ সমস্যার মুখোমুখি হচ্ছেন। ডিজেল যেমন পরিবহন, রেলপথ, ট্রাক্টর, পাম্প অপারেট করতে ব্যবহৃত হয় সেই কারণে খাদ্য উৎপাদনেও এই ব্যয় বৃদ্ধি পাচ্ছে। এখন প্রশ্ন হল প্রধানমন্ত্রী উজ্জ্বল যোজনার অধীনে যে দারিদ্র্যসীমার নিচে বাসকারী পরিবার গ্যাস পেয়েছিলেন তারা কীভাবে গ্যাস কিনবেন! তাই তারা আবার পুরানো ব্যবস্থায় ফিরে যাচ্ছেন।'