Asianet News BanglaAsianet News Bangla

Crypto risk-ক্রিপটো সংক্রান্ত কোনও সমস্যায় পাওনা যাবে না আইনি সাহায্য, জানাল RBI

ফের ক্রিপটোকারেন্সি নিয়ে সতর্ক করল রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া। আরবিআই-র তরফে জানানো হয়েছে,ভারতে ক্রিপ্টো বিনিয়োগের ক্ষেত্রে ঝুঁকি নিলে কোনও আইনি ভিত্তির সম্ভাবনা নেই৷  

Crypto Investing risk,No legal backing, frowned upon by the RBI
Author
Kolkata, First Published Nov 18, 2021, 11:20 AM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

ক্রিপটোকারেন্সির(Cryptocurrency) বারবাড়ন্ত ক্রমশ বেড়েই চলেছে। এই বিষয়ের ওপর আলোকপাত করে ক্রিপটো নিয়ে বৈঠক সেরে ফেলেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী(Modi)।তাঁর আগে  রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়ার(RBI) গভর্নর শক্তিকান্ত দাসও(Shaktikanta Das) এই বিষয় সতর্কও করেছেন। তিনি বলেছেন যে ক্রিপটোর বাজার যত রমরমা হবে ততই দেশের আর্থিক স্থিতি নষ্ট হবে।  ফের ক্রিপটোকারেন্সি(Cryptocurrency) নিয়ে ক্রিপটো বিনিয়োগকারীদের সতর্ক করল রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া। আরবিআই-র তরফে জানানো হয়েছে,ভারতে ক্রিপ্টো বিনিয়োগের ক্ষেত্রে ঝুঁকি নিলে কোনও আইনি ভিত্তির সম্ভাবনা নেই৷  ভারতে ১০ কোটি ক্রিপ্টো বিনিয়োগকারীদের এই তথ্যের সত্যতা এখনও প্রতিষ্ঠিত হয়নি, কারণ এটি কোনও সরকারী উৎস থেকে নেওয়া নয় ।  এটি এমন একটি মুদ্রা  যার ব্যক্তিগত গ্রহণযোগ্যতা রয়েছে কিন্তু  কোন আইনি শিলমোহর নেই(No Legal backing) ।বিটকয়েন(Bitcoin) এবং অন্যান্য ক্রিপ্টোগুলির দামে উল্কাগতিতে বৃদ্ধি পেয়েছে।  ভারতে মিউচুয়াল ফান্ড বিনিয়োগকারী এবং ডিম্যাট অ্যাকাউন্টের সংখ্যার চেয়ে অনেক বেশি। ক্রিপ্টোকারেন্সিতে বিনিয়োগ এবং রিটার্নের পুরো বিষয়টাই ধোঁয়াশা।  এটিকে একটি মুদ্রা হিসাবে বিবেচনা করা যেতে পারে কারণ এটি ক্রমবর্ধমান গ্রহণযোগ্যতা অর্জন করছে । মুদ্রার অন্য দিকটি নজরে আনতে হবে। ব্যক্তিগত গ্রহণযোগ্যতার মাধ্যমে এটি মুদ্রা হিসেবে যোগ্যতা অর্জন করছে । সাধারণত , একটি মুদ্রা দেশে সার্বভৌম স্বীকৃতি দ্বারা একটি মুদ্রায় পরিণত হয় । বিটকয়েনের ক্ষেত্রে , শুধুমাত্র একটি দেশ যেটি এটিকে আইনি দরপত্র হিসাবে অনুমোদন করে তা হল এল সালভাদর ।  

২০১৮ সালের ৬ এপ্রিল ভারতীয় রিজার্ভ ব্যাঙ্ক ভার্চুয়াল মুদ্রায় ( VC )লেনদেনের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করে একটি সার্কুলার প্রকাশ করেছিল। সেখানে বলা হয়েছিল, যে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক দ্বারা নিয়ন্ত্রিত সংস্থাগুলি, ব্যাঙ্কগুলি  ভার্চুয়াল মুদ্রার সঙ্গে কোনও রকম  লেনদেন করবে না।  ২০২০ সালের ৪ মার্চে দেওয়া  সুপ্রিম কোর্টের একটি রায়ে সেই সার্কুলারকে একপাশে সরিয়ে দিয়েছে। অস্পষ্টতা দূর করে ব্যাখ্যা দিতে ,আরবিআই ২০২১ সালের ৩১ মে , একটি সার্কুলার জারি করেছিল । সর্বশেষ সার্কুলারে বলা হয়েছিল, মিডিয়া রিপোর্টের মাধ্যমে এটি তাদের নজরে এসেছে যে নির্দিষ্ট কিছু ব্যাঙ্ক বা নিয়ন্ত্রিত সংস্থাগুলি তাদের গ্রাহকদের ভার্চুয়াল মুদ্রায় লেনদেনের ব্যাপারে সতর্ক করেছে। এই সার্কুলারটি মাননীয় সুপ্রিম কোর্ট নির্দেশ মতো একবারে বাতিল করা হয়েছে তা নয়। নাগরিকদের ভার্চুয়াল মুদ্রা কেনার জন্য প্রকৃত মুদ্রা ( INR) ব্যবহার করার অধিকার রয়েছে এবং এর উল্টোটাও আছে। 

আরও পড়ুন-HUSKYX Returns 45000%-কম প্রচলিত ডিজিটাল কারেন্সি হাস্কিক্স, ২৪ ঘন্টায় রিটার্ন দিয়েছে ৪৫,০০০%

আরও পড়ুন-Cryptocurrency: প্রধানমন্ত্রী মোদীর নেতৃত্বে ক্রিপ্টোকারেন্সি নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক, পথ খুঁজতে আলোচনা

তবে একটি জিনিস পরিষ্কার, আরবিআই ক্রিপ্টোকারেন্সি অনুমোদন করে না এবং শুধুমাত্র সুপ্রিম কোর্টের রায়ের কারণে লেনদেনের অনুমতি দিচ্ছে । রিজার্ভ ব্যাঙ্ক, সেন্ট্রাল ব্যাংক ডিজিটাল কারেন্সি ( CBDC )চালু করতে চলেছে। কিছু কিছু ক্ষেত্রে, CBDC কে আরবিআই দ্বারা চালু করা ক্রিপ্টোর প্রতিদ্বন্দ্বী হিসাবে বর্ণনা করা হয়েছে।  CBDC হবে আইনি টেন্ডার মুদ্রার আরেকটি রূপ , বিদ্যমান মুদ্রার মতোই , শুধুমাত্র তার মোডটি হবে ডিজিটাল। ক্রিপ্টোর জন্য কোন নিয়ন্ত্রকের সমর্থন নেই, যা অন্যান্য বিনিয়োগে, একটি নিয়ন্ত্রক, একটি বিনিময় , আইনি কাঠামো ইত্যাদির আকারে রয়েছে ৷ আপনার কম্পিউটার হ্যাকিংয়ের মাধ্যমে বা কোনও  চুরির ক্ষেত্রে বা প্রযুক্তিগত সমস্যা যেমন আপনার কম্পিউটারের হার্ডওয়্যার ক্র্যাশ বা আপনার পাসওয়ার্ডের ভুল স্থানান্তর ইত্যাদির জন্য কোন প্রতিকারের ব্যবস্থা নেই । উল্লেখ্য, সম্প্রতি , সরকার সংসদের শীতকালীন অধিবেশনের আগে ক্রিপ্টোকারেন্সিতে পরিকল্পিত বিল প্রবর্তনের বিষয়ে ঐকমত্য অর্জনের জন্য বৈঠক করেছে। ,  


Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios