অপরিচিত মাঠে নেমে এখনও পর্যন্ত চেনা ছকের বাইরে গেলেন না মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। দুপুর বারোটা পর্যন্ত নিজেকে গৃহবন্দি রাখলেন। নন্দীগ্রামের রোয়াপাড়ায় একটি বাড়ি ভাড়া নিয়েছেন তৃণমূল নেত্রী। এদিন সকাল থেকে সেই অস্থায়ী ঠিকানাতেই থাকলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে ভয়ে তৃণমূলের এজেন্টরা বুধে বসতে পারছে না, এই খবর পেয়ে বাড়ি থেক বার হন মমতা। নন্দীগ্রামের বুথগুলি ঘুরে দেখবেন বলেও সূত্রের খবর।  নির্বাচন কমিশনের কছেও সুষ্ঠুভাবে ভোট করানোর আর্জি জানিয়েছেন তিনি।   অন্যদিকে তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বী বিজেপি প্রার্থী শুভেন্দু অধিকারী সকাল থেকেই চষে ফেললেন নিজের ভোট কেন্দ্র গুলি। 

নন্দীগ্রামে প্রার্থী হওয়ার পাশাপাশি তিনি আগেই জানিয়েছিলেন ভোট পর্যন্ত সেখানেই থাকবেন তিনি। একটি জনসভায় ঘোষণাও করেছিলেন সেই কথা। তিনি বলেছিলেন ভোট করিয়েই তিনি নন্দীগ্রাম থেকে যাবেন। দোলের দিন থেকেই রোয়াপাড়ার অস্থায়ী ঠিকানেই রয়েছেন তিনি। গতকাল হুগলি ও হওড়ায় নির্বাচনী জনসভা করেন। রাতেই ফিরে আসেন নন্দীগ্রামে। তবে এদিন সকাল থেকে আর বাড়ির বাইরে যাননি মমতা। ভোটের দিনে এটাই পরিচিত ছবি। কংগ্রেস থেকে তৃণমূল গঠন করে লালবাড়ির দখল নিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু কোনও বারই ভোটের দিন তাঁকে বাড়ির বাইরে বার হতে দেখা যায়নি। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বরাবরই কলকাতা সংলগ্ন কেন্দ্র থেকেই প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছেন। এই প্রথম তিনি কলকাতার বাইরে থেকে ভোট যুদ্ধে সামিস হলেন। তবে রণক্ষেত্র পরিবর্তনের পরেই নিজের তৈরি করা মিথ ভাঙলেন না তিনি। এবারও সেই একই ছবি। তবে সূত্রের খবর তিনি নন্দীগ্রামের বুথ পরিদর্শনে বার হবেন। কিন্তু কখন? তা নিয়ে কোনও মন্তব্য করেননি তাঁর ঘনিষ্টরা।  এদিন দুপুর ১টা পর্যন্ত সাংবাদিকদের সঙ্গে কথাও বলেননি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে দুপুর দেড়টা নাগাদ রোয়াপাড়ার ভাড়া বাড়ি থেকে বেরিয়ে বুথের দিকে চলে যায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। 

নন্দীগ্রামের তৃণমূল প্রার্থী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের রাজনৈতিক সফর, 'অগ্নিকন্যা' থেকে 'দিদি' হওয়ার লড়া...

দিদি থেকে আন্টি হলেন মমতা, কটাক্ষ করে আর কী কী বললেন নন্দীগ্রামে মুখ্যমন্ত্রীর প্রতিপক্ষ শুভেন্দু ...

তবে ভোটের দিন নিজেকে গৃহবন্দি করে রাখা নতুন কিছু নয়। তৃণমূল নেত্রীর ঘনিষ্টরা জানিয়েছেন এর আগেও নির্বাচনে নিজেকে ঘর বন্দি করে রেখেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কালীঘাটের বাড়িতে বসে ভোট পরিচালনা করেছেন তিনি। সমস্ত খরবাখর নেওয়ার পাশাপাশি দলীয় নেতা কর্মীদের প্রয়োজনীয় পরামর্শও নাকি তিনি দিয়ে থাকেন টেলিফোনের মাধ্যমে। দলীয় নেতা কর্মীদের কাছ থেকে খবর নেওয়ার পাশাপাশি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় চোখ রাখেন নিউজ চ্যানেলগুলির ওপরেও। তাই বাইরে না বার হলেও তৃণমূল নেত্রী যে সক্রিয় রয়েছেন তা তাঁর ঘনিষ্ট অনুগামীরাই জানিয়েছেন। 

 

অন্যদিকে সম্পূর্ণ অন্য ছবি শুভেন্দু অধিকারীর। সকাল থেকেই বাইকে সওয়ার হয়ে ভোট দিতে যান। তারপর একে একে নন্দীগ্রামের বিস্তীর্ণ এলাকা ঘুরে বেড়ান। নন্দীগ্রামের রানিচকের কাছে বিক্ষোভের মুখেও পড়েন শুভেন্দু অধিকারী। তবে এদিন সকাল থেকেই আত্মবিশ্বাসী দেখাচ্ছিল তাঁকে। তিনি সাদা পাঞ্জাবি আর পায়জামা সঙ্গে গেরুয়া উত্তরীয় পরে ঘুরে বেড়ান ভোট কেন্দ্রে। এদিন সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে কিছুটা সুর চড়িয়ে শুভেন্দু অধিকারী আক্রমণ করেন আক্রমণ করেন মমতাকে। তিনি বলেন এখন আর গুন্ডামি না করে আন্টি এখন সংযন দেখাচ্ছেন।