গত গতমাসে করোনা সংক্রমমের সংখ্যা চার লক্ষের গণ্ডি পেরিয়েছিল। ঝড়ের বেগে ছড়িয়ে পড়া এই মারণ ভাইরাস হু-হু করে কারছিল সাধারণ মানুষের রাতে ঘুম। সেই পরিস্থিতিতেই কীভাবে সংক্রমণ ঠেকানো যায় তা নিয়ে রাত-দিন এক করে বিভিন্ন মহলে চলছিল পর্যালোচনা। বেশ কয়েকটি রাজ্য বেছে নিয়েছে লকডাউনের রাস্তা। মিলছে না সঠিক পরিষেবা, মিলছে না অক্সিজেন, সক্রিয় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ক্রমেই বাড়তে থাকায় ঘুম উড়েছিল ডাক্তারদেরও। তবে সেই সংখ্যা বর্তমানে বেশ কিছুটা কমের দিকে।

সুখবর, টানা ৪০ দিন পর করোনা সংক্রমণের সংখ্যা দৈনিক কমে নামল ২ লক্ষের নীচে। গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা নেমে এলো অনেকটাই। মোট আক্রান্ত হয়েছে এদিন ১ লক্ষ ৯৬ হাজার ৪২৭ জন। ফলে সামান্য বাড়লেও স্বস্তিতেই রয়েছে সংখ্যা। তবে সেই হারে কমছে না মৃত্যুর হার। গত সোমবার করোনা প্রাণ কেড়েছে ৩ হাজার ৫১১ জনের। এখনও পর্যন্ত ভারতে করোনা পরীক্ষা করা হয়েছে ৩৩,২৫,৯৪,১৭৬ জনের। গত ২৪ ঘণ্টায় ২০,৫৮,১১২ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়, যার মধ্যে আড়াই লাখ পজিটিভ। 

আমেরিকার পর ভারতই প্রথম যেখানে করোনা সংক্রমণের সংখ্যা ২৫ মিলিয়ান পার করে। মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ভারতের বুকে ২,৫৪,৯৬,৩৩০। এখনও পর্যন্ত সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে ২,৬৯,৪৮,৮৭৮ জন। পাশাপাশি মোট মৃত্যুর সংখ্যাটাও নেহাতই কম নয়। করোনা এখনও পর্যন্ত ভারতের বুকে প্রাণ কেড়েছে ৩,০৭,২৩১ জনের। করোনা সংক্রমণের হার কমে দাঁড়ালো ৯.৫৮ শতাংশে।