করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় তরঙ্গে রীতিমত বিপর্যস্ত দেশ। পরিস্থিতি মোকাবিলায় টিকাকর্মসূচিই হাতিয়ার কেন্দ্রীয় সরকারে। তবে টিকা পর্যাপ্ত না থাকার অভিযোগে সরব হয়েছে একাধিক রাজ্যসরকার। তারই পরিপ্রেক্ষিতে  কেন্দ্রীয় সরকার জানিয়েছেন এখনও পর্যন্ত রাজ্য ও কেন্দ্র শাসিত অঞ্চলগুলিকে ২১.৮০ কোটিরও বেশি  কোভিড ভ্যাকসিনের ডোজ সরবরাহ করা হয়েছে। এখনও পর্যন্ত রাজ্য ও কেন্দ্র  শাসিত অঞ্চলগুলির কাজে। ১.৯০ কোটি টিকার ডোজ পাওয়া যাবে। দেশে টিকা কর্মসূচি শুরু হয়েছে জানুয়ারি সাম থেকে। প্রথমে চিকিৎসক ও ফ্রন্টলাইন করোনা যোদ্ধাদের টিকা দেওয়া হয়েছে। পরবর্তীকালে বৃদ্ধ ও দীর্ঘদিন রোগেফভোগা মানুষদের টিকা প্রদান করা হয়। সম্প্রতি ১৮ উর্ধ্বোদের টিকা কর্মসূচিও চলছে গোটাদেশে।

স্বাস্থ্য মন্ত্রক জানিয়েছে আগামী তিন দিনের মধ্যে রাজ্য ও কেন্দ্র শাসিত অঞ্চলগুলিকে আরও টিকা পাঠান হবে। স্বাস্থ্য মন্ত্রকের তরফ থেকে জানান হয়েছে প্রায় ৪০ লক্ষ ৬৫০ হাজার কোভিড টিকা পাঠানোর ব্যবস্থা করা হচ্ছে। মন্ত্রকের দেওয়া বিবৃতি অনুযায়ী সরকার এখনও পর্যন্ত বিনা মূল্যে ২১ কোটি ৮০ লক্ষেও বেশি টিকা রাজ্য ও কেন্দ্র শাসিত অঞ্চলগুলিকে সরবরাহ করেছে। যার মধ্যে শনিবার বিকেল  পর্যন্ত ১৯ কোটি ৫০ হাজার মানুষকে টিকা প্রদান করা হয়েছে। তাই রাজ্যগুলি এখন নিশ্চিত হয়ে টিকাকর্মসূচি চালিয়ে যেতে পারে। 

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের বিবৃতিতে অনুযায়ী রবিবার সকাল পর্যন্ত দেসে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ২ কোটি ৬৫ লক্ষেরও বেশি। দৈনিক সংক্রমণের পরিসংখ্যন ২ লক্ষ ৪০  হাজারের বেশি। গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছে ৩ হাজার ৭৪১জনের। তবে এখনও পর্যন্ত সুস্থ হয়ে ওঠা মানুষের সংখ্যা ৩ লক্ষ ৫৫ হাজারের বেশি। স্বাস্থ্য মন্ত্রক জানিয়েছে, করোনাভাইরাসের আক্রান্ত হয়ে দেশে এখনও পর্যন্ত ২ লক্ষ ৯৯ হাজারেরও বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে। দেশে অ্যাক্টিভ কেসের সংখ্যা ২৮ লক্ষেরও বেশি।