করোনার হাত থেকে রেহাই পেলেন না ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত। সিঙ্গাপুরে এই মুহূর্তে রয়েছেন অভিনেত্রী। সেখান থেকেই সংবাদমাধ্যমকে পাঠানো বার্তায় তাঁর করোনা আক্রান্ত হওয়ার কথা জানিয়েছেন ঋতুপর্ণা। পাঠানো বার্তায় তিনি আরও জানিয়েছেন যে, ভালো রয়েছেন এবং নিভৃতবাসেই আপাতত তাঁর দিন কাটছে। চিকিৎসকের নিয়মিত পরামর্শও নিচ্ছেন ঋতুপর্ণা। যদিও, করোনা আক্রান্ত হওয়ার কোনও লক্ষণ পরিলক্ষিত হয়নি। তিনি অ্যাসিমটোমেটিক বলেও জানিয়েছেন অভিনেত্রী। পুরেো বিষয়েই স্থানীয় প্রশাসনের নির্দেশ মেনেই চিকিৎসা করাচ্ছেন বলেও জানিয়েছেন। তাঁর পরিবার ও বাড়ির অন্যান্য লোকেরা সুস্থ এবং সুরক্ষিত রয়েছেন বলেও বার্তাতে উল্লেখ করেছেন। 

আরও পড়ুন- Sleeveless ব্লাউজে নতুন প্রেমের ছোঁয়া, বসন্তকে আগমণ জানিয়ে ঋতুপর্ণার জীবনে নয়া সূচনা

লকডাউনের সময় সিঙ্গাপুরে আটকে পড়েছিলেন ঋতুপর্ণা। লকডাউন শুরুর মাস খানেক আগে তিনি সিঙ্গাপুরে পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে গিয়েছিলেন। পুজোর আগে এশিয়ানেট নিউজ বাংলাকে দেওয়া একান্ত সাক্ষাৎকারে সিঙ্গাপুরের লকডাউন জীবন নিয়ে অনেক কথাই বলেছিলেন তিনি। কীভাবে পরিবারের সঙ্গে তাঁর সময় কাটছে থেকে শুরু করে ছেলে-মেয়ে-স্বামী সকলকে নিয়ে জীবনের এক চরম স্বাদ যে উপভোগ করছেন তাও জানিয়েছিলেন অভিনেত্রী। এই সাক্ষাৎকারের মাস খানেক পরেই কলকাতায় এসেছিলেন ঋতুপর্ণা। কলকাতায় পৌঁছানোর পর শ্যুটিং নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়েছিলেন অভিনেত্রী। 

আরও পড়ুন- কেমন কেটেছে ২০২০, দেখে নিন টলি অভিনেত্রীদের সেরা কিছু ভিডিও

২ মাস ধরে কলকাতা-সহ দেশের অন্যান্য স্থানে থাকার সময় ৪টি ছবির শ্যুটিং করেছিলেন ঋতুপর্ণা। কলকাতা ও সল্টলেকে শ্যুটিং করার সঙ্গে সঙ্গে তিনি দার্জিলিঙে গিয়েও দুই থেকে তিন দিন ধরে শ্যুটিং করেছিলেন। দীঘাতেও দিন-এর শ্যুটিং-এর শিডিউল হয়েছিল। এছাড়াও কলকাতায় একাধিক সামাজিক অনুষ্ঠানেও অংশ নিয়েছিলেন তিনি। কেন্দ্রীয় সরকারের উদ্যোগে আলিপুরেও একটি সভায় গিয়েছিলেন তিনি। যেখানে প্রসেনজিত থেকে শুরু করে টলিউডের বহু নামি তারকা এবং পরিচালকরাও উপস্থিত ছিলেন। এর কিছুদিন পরেই মুম্বই-এ পাড়ি দিয়েছিলেন ঋতুপর্ণা। সেখানে নতুন একটি হিন্দি ছবির স্ক্রিপ্ট পড়ার বিষয় ছিল। এরপরই সিঙ্গাপুরে ফিরে গিয়েছিলেন ঋতুপর্ণা। সেখানে নিয়ম মোতাবেক কোভিড টেস্ট করাতে গিয়ে দেখা যায় অভিনেত্রীর পরীক্ষার ফল পজিটিভ এসেছে।