রবিবার বিজেপি-র সঙ্গে সম্পর্ক ত্যাগের কথা দলের শীর্ষ নেতৃত্বকে চিঠি লিখে জানিয়েছেন কলকাতা পুরসভার প্রাক্তন মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায়। সোমবারই বিজেপির রাজ্যসভাপতি দিলীপ ঘোষ শোভন চট্টোপাধ্যায় ও তাঁর বান্ধবী বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়ের দলত্যাগ প্রসঙ্গে মুখ খুললেন। তিনি বলেন দল কখনই চায়না বিচ্ছিন্ন হয়ে যাওয়া স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে কোনও রকম প্রতিদ্বন্দ্বীতা হোক। পাশাপাশি তিনি বলেন বিজেপি একটি শৃঙ্খলাবদ্ধ দল। দলের নিয়মানুবর্তীতাকেই প্রথম গুরুত্ব পায়। 


সংবাদ সংস্থা এএনআইকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে বিজেপি রাজ্যসভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, বিজেপি শৃঙ্খলাবদ্ধ দল। এখানে কর্মীদের দলের নির্দেশ মেনে কাজ করতে হব। দল যাকে যা নির্দেশ দিয়েছে তাই পালন করতে হবে। কেউ নিজের ইচ্ছে মত কাজ করতে পারে না। দল চেয়েছিল শোভন চট্টোপাধ্যায় বেহাল পূর্ব কেন্দ্র থেকে তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করুক। বেহার পশ্চিম কেন্দ্রের প্রার্থী তালিকা এখনও পর্যন্ত ঘোষণা করা হয়নি। কিন্তু প্রথম থেকেই বেহালা পূর্ব কেন্দ্রের প্রার্থী হওয়ার কথা বলেছিলেন শোভন চট্টোপাধ্যায়। এই কেন্দ্রেই তৃণমূল কংগ্রেসের টিকিতে লড়াই করছেন শোভন চট্টোপাধ্যায়ের স্ত্রী রত্না চট্টোপাধ্যায়।  আর এই কেন্দ্রে বিজেপি প্রার্থী করেছে অভিনেত্রী পায়েল সরকারকে। যা মেনে নিতে পারেননি শোভন। 

পেট্রোল ও ডিজেল থেকে বিপুল পরিমাণে রাজস্ব আদায় হয়, স্বীকার করলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী, জেনে নিন লাভের প...

ঝাড়গ্রামের সভায় উপস্থিত না হওয়ার জন্য ক্ষমা চাইলেন অমিত শাহ, তীব্র কটাক্ষ তৃণমূল নেত্রীর ...

অন্যদিকে সূত্রের খবর শোভন চট্টোপাধ্যায় তাঁর বান্ধবী বৈশাখীর জন্যেই টিকিটের দাবি জানিয়েছিলেন। যা মেনে নেয়নি বিজেপি। বিজেপির শীর্ষ নেতত্ব জানিয়েছিলেন একটি টিকিটই দেওয়া সম্ভব, যা তাঁরা শোভন চট্টোপাধ্য়ায়ের জন্য রেখেছিল। এএনআইকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে দিলীপ ঘোষ জানিয়েছিলেন বেহালা পশ্চিম কেন্দ্রের জন্যই শোভন বৈশাখীর নাম প্রস্তাব করেছিল। কিন্তু তা সম্ভব ছিল না বলেও জানান হয়েছে দলের পক্ষ থেকে। দিলীপ ঘোষ এদিন স্পষ্ট করে জানিয়ে দিয়েছেন দল কোনও স্বামী স্ত্রীর মধ্যে লড়াইকে প্রশ্রয় দিতে চায় না। 

২০১৯ সালে তৃণমূল কংগ্রেস ছেড়ে বিজেপিতে যোগদান করেছিলেন শোভন চট্টোপাধ্যায়। সেই সময় তাঁর সঙ্গে ছিলেন বান্ধবী বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়।  রবিবার দুজনেই বিজেপির সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করেন। বৈশাখী সোশ্যাল মিডিয়ায় বার্তা দিয়ে বিজেপির বিরুদ্ধে রীতিমত অসন্তোষ প্রকাশ করেন। সেখানেই তিনি বলেন শোভন চট্টোপাধ্যায় তাঁর আইকন। বিজেপি তাঁদের মর্যাদা দেয়নি বলেও অভিযোগ করেন তিনি।