আগামী ৪৮ ঘন্টা নিমতলা মহাশ্মশানে শুধু করোনার মৃতদেহ সৎকার করা হবে। এমনটাই জানিয়েছে কলকাতা পুরসভা। এরপর মঙ্গলবার সকাল ৬ টা থেকে ফের অন্য মৃতদের সৎকার হবে। জানা গিয়েছে, করোনা দেহ সৎকারের চাপ সামলাতে দুটি নয়া শ্মশান এবং এক কবরস্থান তৈরি করছে কলকাতা পুরসভা। 

আরও পড়ুন, বন্ধ শ্মশান, করোনা রোগীর দেহ আগলে ১৬ ঘন্টা করুণাময়ী আবাসনের পরিবার 

 

প্রশাসনের তরফে আর্জি জানানো হয়েছে, এই ৪৮ ঘন্টায় নন কোভিড মৃতদেহ সৎকাররে জন্য রতনবাবু বা কেওড়াতলা মহাশ্মশানে নিয়ে যাওয়ার জন্য।   করোনায় মৃত্যু লাগাম ছাড়াভাবে বাড়ছে।  শনিবারের স্বাস্থ্য ভবনের করোনা বুলেটিন অনুযায়ী,রাজ্যে একদিনে মৃত ১২৭ জন  এবং এর মধ্যে কলকাতায় একদিনে মৃত্যু সংখ্যা ৩৪ জন। কলকাতায় মোট মৃতের সংখ্যা ৩,৬৫০।  সেই কারণে বৈদ্যতিক চুল্লি রক্ষাণাবেক্ষণের জন্য ২ দিন স্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছে এমন দেহের সৎকার বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে প্রশাসন। কলকাতা পুরসভার স্বাস্থ্য় বিষয়ক প্রশাসক অতীন ঘোষ জানিয়েছেন, নিমতলার ৪ টি বৈদ্যুতিক চুল্লিতেই করোনা দেহ দাহ করা হচ্ছে। মৃতদেহের সঙ্গে প্লাস্টিক গলে গিয়ে সমস্যা তৈরি হচ্ছে। এমনকী ধোঁয়া নিয়ন্ত্রক যন্ত্রগুলিও ঠিক মতো কাজ করছে না। তাই চাপ কমিয়ে চারটি চুল্লিকে সম্পূর্ণ মেরামত করা হচ্ছে। তবে কাঠের চুল্লিতেই নন-কোভিড দেহ দাহ করা হচ্ছে।'

আরও পড়ুন, শুধু পশ্চিমবঙ্গেই কোভিডে ১২ হাজারের উপরে মৃত্যু, দেহ সৎকারে সামাল দিতে তৈরি হবে নয়া শ্মশান 
 
প্রসঙ্গত, শহরে মাত্র ১০ টি চুল্লিতে করোনার মৃত দেহ দাহ করা হয়। এর মধ্যে ধাপায় ৬ টি, নিমতলায়  ২টি, বিরজুনালায় ২ টি চুল্লি রয়েছে। একটি চুল্লিতে দিনে ১৫ টি করে দেহ দাহ করা হয়। একটি দেহ দাহ করতে ১ ঘন্টা সময় লাগে। ফলে একদিনে ১৫ টির বেশি দেহ দাহ করা সম্ভব হয়না। জানা গিয়েছে, করোনা দেহ সৎকারের চাপ সামলাতে দুটি নয়া শ্মশান এবং এক কবরস্থান তৈরি করছে কলকাতা পুরসভা। 


আরও দেখুন, Live Covid 19- কোভিড সরঞ্জামে GST ছাড়ের ইস্যুতে মোদীকে চিঠি মমতার, করোনা বিধি মেনে কবিগুরুর জন্মজয়ন্তী