লকডাইনের জেরে করোনা গ্রাস করতে চলেছে রাজ্য়-সহ গোটা দেশের কোষাগারও। এর ফলে অর্থনৈতিক মন্দা দেখা দিয়েছে বিশ্বের বহু দেশে।  দেশ-সহ গোটা রাজ্য জুড়ে তান্ডব চালাচ্ছে কোবিড১৯। এখনও পর্যন্ত বাংলায় ৩৭ জনের দেহে করোনার সংক্রমণ ধরা পড়েছে। মৃত্যু হয়েছে ৩ জনের। বেসরকারী সংস্থাগুলি এই দুর্দিনে বেতন দিতে পারবে কি না তা নিয়ে চিন্তায় রয়েছেন বহু কর্মচারী। আর্থিক সমস্যা মেটাতে জনগনের থেকে আর্থিক সাহায্যের অনুরোধ করা হয়েছে সরকারের পক্ষ থেকে।

করোনা যুদ্ধে প্রয়োজনীয় স্বেচ্ছাসেবী  স্বাস্থ্য় কর্মী নিয়োগের প্রয়োজন হতে পারে গোটা দেশে। এই সময় স্বাস্থ্যখাতে প্রয়োজেন প্রচুর অর্থের সেই মত দেশের শিল্পপতি থেকে শুরু সেলিব্রেটি। পাশে দাঁড়িয়েছেন সাধারণ মানুষও। সাধ্য মতন সরকারের তহবিলে জমা দিয়েছেন নিজেদের জমানো পুঁজি। আশা শুধু একটাই এই যুদ্ধে জয়লাভ করতেই হবে। ইতালি, আমেরিকার মত মৃত্যু মিছিল দেখতে চায়না ভারত। এমন পরিস্থিতিতে করোনা মোকাবিলায় ভারতে চিকিৎসার সরঞ্জামের জন্য ১০০ কোটি অনুদান দিন টিকটক সংস্থা।

টিকটকের এই অনুদানে ভারতের ডাক্তার ও স্বাস্থ্যকর্মীদের জন্য ২ লক্ষের মত মাস্ক ও ৪ লক্ষের মত মেডিক্যাল প্রোটেকটিভ স্যিটস দান করেছে টিকটক। পুরো দেশ যখন করোনার থেকে রক্ষার জন্য সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখছে। ডাক্তার ও স্বাস্থ্যকর্মীরা সেই সময় করোনা আক্রান্তদের সুস্থ করে তুলতে দিনরাত তাঁদের কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন। তাই এই করোনা যোদ্ধাদের পাশে দাঁড়াতেই এমন অভিনব উদ্য়োগ নিয়েছে এই জনপ্রিয় টিকটক। সমস্ত নিয়ম মেনেই এই অনুদানের সরঞ্জাম কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে। টিকটক সংস্থার থেকে এও আশ্বাস দেওয়া হয়েছে যে করোনা যুদ্ধে ভারতের পাশে রয়েছে এই সংস্থা।