বৃহস্পতিবার একেবারে ঝলমলে আকাশ না হলেও, সাউদাম্পটনে কিছুটা হলেও মেঘ কেটে রোদের দেখা মিলল। একই কথা বলা যায় ভারেতর চোটের তালিকা নিয়েও। সমর্থকদের আস্বস্ত করে মাঠে ফিরলেন বিজয় শঙ্কর। বুধবারই অনুশীলনে পায়ের পাতায় চোট পেয়েছিলেন তিনি। শিখর ধাওয়ান, ভুবনেশ্বর কুমারের পর তাঁর নাম চোটের তালিকায় উঠে যাওয়ায় চিন্তায় পড়েছিলেন ভারতীয় সমর্থকরা। কিন্তু পরের দিনই তাঁকে দলের সঙ্গেই গা ঘামাতে দেখা গেল।

বুধবার নেট অনুশীলনে ব্যাট করার সময় যশপ্রীত বুমরার একটি প্রচন্ড গতির ইয়র্কার আছড়ে পড়ে শঙ্করের বাঁ-পায়ের পাতায়। যন্ত্রনায় ব্যাট ফেলে দিয়ে নেটের মধ্যে বসে পড়েন। দ্রুত ছুটে আসেন অন্যান্যরা। প্রাথমিক শুশ্রূষার পরও খোড়াতে খোড়াতেই নেট ছেড়ে যান তামিলনাড়ুর অলরাউন্ডার। তাঁর সঙ্গে চিন্তিত মুখে মাঠ ছাড়েন প্রধান কোচ রবি শাস্ত্রী ও ব্যাটিং কোচ সঞ্জয় বাঙ্গারও।

তবে বৃহস্পতিবার সামান্য খোড়ালেও দলের সঙ্গে তাঁকে অনুশীলন করতে দেখে বোঝা গিয়েছে তাঁর চোট সেইরকম গুরুতর নয়। বুধবার তাঁকে চোট পেতে দেখে ভারতীয় সমর্থকরা বেশ চিন্তায় পড়েছিলেন। ভুবনেশ্বর কুমার আফগানিস্তান ম্যাচে খেলতে পারবেন না। তাঁর বদলে খেলবেন মহম্মদ শামি। তবে পাকিস্তান ম্যাচে বিজয় শঙ্কর দেখিয়ে দিয়েছিলেন বল হাতে ইংল্যান্ডের মাঠে কিন্তু উইকেট তুলে নেওয়ার ক্ষমতা রয়েছে তাঁর। তাছাড়া চার নম্বরে ব্যাট করার জন্যও তাঁর উপরই ভরসা করা হচ্ছে।

কাজেই তিনি খেলতে না পারলে ভারত শিখর ভুবির অবর্তমানে ভারত আরোই দুর্বল হয়ে পড়ত।