আইপিএল ২০১৯-এর পর ছোট্ট ছুটি কাটিয়ে মঙ্গলবার ফের একত্রিত হয়েছেন ভারতীয় ক্রিকেটারদের। বুধবার ভোরেই বিরাট কোহলিরা উড়ে যাবেন ইংল্যান্ডে। তার আগে শেষ সাংবাদিক সম্মেলনে বিরাট কোহলি বা রোহিত শর্মা নয়, সেই অভিজ্ঞ মহেন্দ্র সিং ধোনির উপরই সবচেয়ে বেশি আস্থা দেখালেন ভারতীয় দলের প্রধান কোচ রবি শাস্ত্রী। তার আগে অবশ্য তাঁকে দেখা গেল শিরদি-তে সাইবাবার আশ্রমে।

এদিন সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে রবি শাস্ত্রী বলেন, বিশ্বকাপ অবশ্যই বড় মঞ্চ। কিন্তু এই মঞ্চ উপভোগের। দল যদি তার ক্ষমতা অনুযায়ী খেলতে পারে, তাহলে দেশে কাপ ফিরিয়ে আনা কঠিন বিষয় হবে না।

তবে এইবারের টুর্নামেন্টে প্রতিযোগিতার মান যে খুব উচ্চ হতে চলেছে তাও মেনে নিয়েছেন ভারতীয় কোচ। তিনি জানিয়েছেন ২০১৫ সালে বাংলাদেশ বা আফগানিস্তানকে ছোট দল হিসেবে দেখা যেত। এখন তারাও অত্যন্ত শক্তিশালী।

তবে এই কঠিন প্রতিযোগিতায় সফল হতে ভারতের প্রধান অস্ত্র হয়ে উঠতে,পারেন বহু যুদ্ধের নায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি। এমনটাই মত শাস্ত্রীর। তিনি জানিয়েছেন এই বিশ্বকাপেও ভারতের হয়ে বড় ভূমিকা থাকবে প্রাক্তন ভারত অধিনায়কের। তিনি সাফ জানিয়েছেন একদিনের ক্রিকেটে একও ধোনির থেকে ভালো ক্রিকেটার কেউ নেই। বিশেষ করে ম্যাচের মধ্যে একটি অভাবনীয় রানআউট বা বিদ্যুৎগতির স্টাম্পিং - এই ছোট্ট ছোট্ট মুহূর্ত উপহার দিয়েই ম্যাচ ঘুরিয়ে দেওয়ার ক্ষমতা রাখেন এমএসডি।

সাংবাদিকদের মুখোমুখি হওয়ার আগে ঝটিকা সফরে শিরদি-তে সাইবাবার আশ্রমে গিয়েছিলেন শাস্ত্রী। সঙ্গে ছিলেন ফিল্ডিং কোচ আর শ্রীধর। হেলিকপ্টারে করে শিরদিতে উড়ে যান তাঁরা। ভারতীয় দল যাতে বিশ্বকাপে চুড়ান্ত সাফল্য পায়, তার জন্যই তাঁরা সাইবাবার আশীর্বাদ নিতে  গিয়েছিলেন বলে জানিয়েছেন ভারতীয় দলের ফিল্ডিং কোচ।