ক্রিকেট দক্ষিণ আফ্রিকার বোর্ডের অন্দরে দীর্ঘ দিন ধরেই ডামাডোল চলছিল। অবশেষে ক্রিকেট সাউথ আফ্রিকার ক্রিকেট দক্ষিণ আফ্রিকার (সিএসএ) ১০ সদস্যের বোর্ড তাদের পদ থেকে পদত্যাগ করেছে। একটি টুইটার পোস্টে সিএসএ ঘোষণা করেছে, "সমস্ত স্বতন্ত্র ও নিয়ন্ত্রণাধীন বোর্ড মেম্বাররা পদত্যাগ করেছেন।" সিএসএর এক বিবৃতি অনুসারে, পদত্যাগপত্র গ্রহণ করা হয়েছে এবং তাৎক্ষণিকভাবে কার্যকর হয়েছে। বোর্ড পরিচালনার জন্য একটি অন্তর্বর্তীকালীন কমিটি গঠন করবে সিএসএ।যার প্রধান হবেন রিহান রিচার্ডস।

ভারপ্রাপ্ত প্রেসিডেন্ট বেরেসফোর্ড উইলিয়ামসের অন্তর্ভুক্ত ছয় পরিচালক রবিবার সভার পরে পদ থেকে সরে দাঁড়িয়েছিলেন। অন্যদিকে, পাশাপাশি বাকি ৪ সদস্যরা ২৬ শে অক্টোবর পদত্যাগ করেছেন। ক্রিকেট দক্ষিণ আফ্রিকার বিবৃতিতে স্পষ্টতই বলা হয়েছে যে, জাতির ক্রিকেটের উন্নতির স্বার্থে সাহসী সিদ্ধান্ত নেওয়া হচ্ছে। হঠাৎ ঘটনার পরে শীঘ্রই একটি অন্তর্বর্তীকালীন সংস্থাকে এই দায়িত্ব দেওয়া হবে। তবে এই ঘটনার পরই আলোড়ন সৃষ্টি হয়েছে প্রোটিয়া ক্রিকেটের অন্দরে। সামনেই ইংল্যান্ড আসার কথা দক্ষিণ আফ্রিকায়। তার আগে এত বড় রদবদল কি পরিস্থিতি তৈরি করে এখন সেটাই দেখার।

বিশ্ব ক্রিকেট এই ঘটনা নজিরবিহীন। বোর্ডের বিবৃতি বলা হয়েছে,'সদস্যের কাউন্সিল হওয়ার পর সবার আলোচনায় উঠে এসেছিল যে দক্ষিণ আফ্রিকার ক্রিকেটের ভালো করার জন্য পুরো বোর্ডের পদত্যাগ করা উচিৎ। সেটিই করেছেন তারা। কমিটিতে থাকা সকল পদাধিকারীরাই তাদের পদ থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন।' কয়েক বছর ধরে দেশের সরকার নিয়ন্ত্রণ করছিল দক্ষিণ আফ্রিকার ক্রিকেট বোর্ড। যা ভালভাবে নেয়নি বা মেনে নিতে পারেনি দেশের অলিম্পিক কমিটি। দেশের অভ্যন্তরীন বিষয় হওয়ায় হস্তক্ষেপ করেনি আইসিসিও। তাই অবশেষে পদত্যাগের সি্দধান্ত নিলেন সকলেই।