ব্যাট তার দানবীয় ভাষায় কথা বললেও, মানুষ ক্রিস গেইল কোনওভাবেই দানবীয় নন। মাঠে সর্বদা শান্ত স্বভাবের গেইলকেই দেখে অভ্যস্ত ক্রিকেট বিশ্ব। ভালবাসেন আনন্দ করতে। ২২ গজকেও একইভাবেই উপভোগ করেন ক্রিস্টোফার হেনরি গেইল। ক্রিকেট মাঠে তার সেলিব্রেশন দেখার জন্য মুখিয়ে থাকেন সকলে। কিন্তু এবার সুপার হিরোর কায়দায় নিজের শরীর চর্চার ভিডিও সোশাল সাইটে পোস্ট করে সকলকে চমকে দিলেন এই ক্যারেবিয়ান তারকা। সোশাল মিডিয়ায় ইতিমধ্যেই ভাইরাল ‘ইউনিভার্স বস’-এর সেই ভিডিও।

আরও পড়ুনঃভারতীয় ফুটবলে যুগের অবসান, প্রয়াত কিংবদন্তী পিকে বন্দ্যোপাধ্যায়

করোনা আতঙ্কের জেরে পৃথিবী জুড়ে বন্ধ সমস্ত ধরনের স্পোর্টিং ইভেন্ট। আক্রান্ত একাধিক প্লেয়ার ও কোচ। কোভিড ১৯-এর আতঙ্ক গ্রাস করেছে অ্যাথলিটদের। সংক্রমণ থেকে বাঁচতে সেল্ফ কোয়ারেবন্টাইনে গেছেন বিশ্বের অনেক ক্রীড়া ব্যক্তিত্ব। প্রকোপ রুখতে ও সাধারণ মানুষের মধ্যে করোনা ভাইরাস নিয়ে সচেতনতা বাড়াতে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার হ্যাশ ট্য়াগ সেফ হ্যান্ডস চ্যালেঞ্জ নিতে দেখা গেছে সচিন তেন্ডুলকর, পিভি সিন্ধু, হিমা দাসদের। চ্যালেঞ্জ গ্রহণ করেছেন স্বয়ং কেন্দ্রীয় ক্রীড়া মন্ত্রী কিরেণ রিজিজুও। এবার হ্যাশ ট্যাগ স্টে অ্যাট হোম চ্যালেঞ্জ নিলেন ক্রিস গেইল। নিজের শরীর চর্চার ভিডিও শেয়ার করে অনুগামীদের বার্তা দিয়েছেন ওয়েস্ট উইন্ডিজের এই বিধ্বংসী ব্যাটসম্যান।

আরও পড়ুনঃফুটবলারদের কাছে তিনি ছিলেন বন্ধু, তাঁর 'পেপ টকের' জন্য মুখিয়ে থাকতেন সকলে

আরও পড়ুনঃ'অনুপ্রেরণা হয়ে থাকবেন', পিকে বন্দ্যোপাধ্যায়ের মৃত্যুতে শোকজ্ঞাপন মুখ্যমন্ত্রীর

সোশাল সাইটে শেয়ার করা ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে, করোনা কারণে বিশ্ব জুড়ে সব খেলা বন্ধ থাকলেও নিজের বাড়ির জিমেই গাঁ ঘামাচ্ছেন ক্রি গেইল। মাইক্রোব্লগিং সাইট টুইটারে পোস্ট করা ভিডিওতে গেইলকে দেখে প্রথমটায় চমকে যেতে পারেন তাঁর অনুরাগীরা। ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে সুপারহিরোর বেশে মুখোশব পড়ে ‘ইউনিভার্স বস’। পুশ আপ, ওয়েট লিফটিং সবকিছুই চলছে নিয়মমাফিক, তবে তা সাবধানতা অবলম্বন করে। অর্থাৎ, ভিডিও বার্তার মধ্যে দিয়ে অনুরাগীদের বাড়িতে থাকারই বার্তা দিয়েছেন উইন্ডিজ ব্যাটসম্যান। কঠিন সময় প্রয়োজনীয় যাবতীয় সতর্কতা অবলম্বন করতে বলেছেন গেইল। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার আধিকারিকদের মতে, গেইলের এই ভিডিও করোনা ভাইরাসের ক্ষেত্রে মানুষের সচেতনতার বাড়াতে অনেকটা অনুপ্রেরণা দেবে।

 

;