ভারতীয় তথা বিসিব ক্রিকেটের অনেক ইতিহাসের সাক্ষী তিনি। টেস্ট ক্রিকেটে প্রথম ১০ হাজার রান পূর্ণ করা ব্যাটসম্যানও তিনি। তাকে দেখেই ছো
ট বেলায় ক্রিকেটার হওয়ার স্বপ্ন দেখতেন ভবিষ্যতের তারকারা। তিনি 'লিটল মাস্টার' সুনীল গাভাসকর। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেকের ৫০ বছর পূরণ করেছেন কিংবদন্তী এই ব্যাটসম্যান। তাই ভারত-ইংল্যান্ড টেস্ট ম্য়াচের মাঝেই ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের তরফে সংবর্ধনা দেওয়া হল সুনীল গাবাসকরকে। যা পেয়ে আবেগ প্রবণ হয়ে পড়লেন সানি।

 

 

ভারত-ইংল্যান্ড চতুর্থ টেস্টের তৃতীয় দিনের খেলা চলছিল।  মধ্যাহ্ন ভোজের বিরতির সময়, কিংবদন্তী সুনীল গাভাসকরের হাতে সংবর্ধনা তুলে দিলেন বিসিসিআই সচিব জয় শাহ। সংবর্ধনা স্বরূপ ভারতীয় দলের বিশেষ টুপি তুলে দেওয়া হয়। সেই টুপিতে লেখা রয়েছে ‘সেলিব্রেটিং ফিফটি ইয়ার্স’। সেই পুরস্কার গ্রহণ করার পর গ্যালারিতে হাজির থাকা দর্শকদের দিকে হাত নেড়ে ধন্যবাদ জানান ‘লিটল মাস্টার’।  একইসঙ্গে একটি ব্যানারের উদ্বোধন করা হয়। পুরোনো দিনের স্মৃতি দিয়ে সাজানো হয় সেই গ্যালারি। যা দেখে আবেগ ধরে রাখতে পারেননি সুনীল গাভাসকর। সংবর্ধনা পেয়ে আবেগাপ্লুত সুনীল গাভাসকর বলেন,'আমাকে সম্মান জানানোর জন্য বোর্ডকে ধন্যবাদ জানাই। জাতীয় দলের নীল রঙের টুপি হাতে নেওয়ার পর অতীতের দিনগুলোর কথা মনে পড়ে যাচ্ছিল। ব্যানারটাও ছিল অসাধারণ। সত্যি আবেগপ্রবণ হয়ে পড়েছি।' 

 

 

মাস্টার ব্লাস্টার সচিন তেন্ডুলকরও শুভে্চছা জানিয়েছেন সুনীল গাভাসকরকে। ট্যুইটে তিনি লিখেছেন, ‘৫০ বছর আগে এই দিনটিতেই উনি ক্রিকেটবিশ্বে ঝড় বইয়েছিলেন। নিজের অভিষেক সিরিজের ৭৭৪ রান করে উনি। আমাদের প্রত্যেকের কাছেউ উনি ছিলেন হিরো এবং ওঁকে দেখেই আমরা বড় হয়েছি। ভারত ওয়েস্ট ইন্ডিজে সিরিজ জেতে এবং তার পর ইংল্যান্ডে। ভারতীয় খেলাধুলো হঠাৎ করেই নতুন মাত্রা পায়। একজন বালক হিসেবে আমি জানতাম আমার সামনে এমন একজন রয়েছেন, যাঁর মতো হওয়ার চেষ্টা করতে পারি। এটা কোনও দিন বদলায়নি। উনি এখনও আমার হিরো।’

 

 

ভারতীয় বোর্ড থেকে শুরু সচিন তেন্ডুলকর, অঅমনকী দেশ জুড়ে ভক্তরা তার এই বিশেষ সময়ে যেভাবে তাকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন, তাতে খুব খুশি ও নিজেকে খুব ভাগ্যবান বলে জানিয়েছেন সানি। এই পরিচিতি পাওয়ার জন্য ক্রিকেটকেও ধন্যবাদ জানিয়েছেন সুনীল গাভাসকর।