গোটা দেশের সঙ্গে বাংলাতেও আছড়ে পড়তে পারে গেরুয়া ঝড়। এক্সিট পোলের এ হেন সম্ভাবনা প্রকাশের পরে স্বভাবতই উল্লসিত রাজ্য বিজেপি-র সভাপতি দিলীপ ঘোষ। তাঁর অবশ্য দাবি, এক্সিট পোলে বাংলায় বিজেপি-র সম্ভাব্য যা আসন সংখ্যা দেখানো হচ্ছে, বাস্তবে তার থেকেও বেশি আসন পাবে তাঁর দল। একই সঙ্গে কলকাতায় চন্দ্রবাবুর সঙ্গে মমতার বৈঠককেও কটাক্ষ করেছেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি।

এমনিতেই গরমাগরম বক্তব্য রাখার জন্য দলের মধ্যে জনপ্রিয় দিলীপবাবু। এক্সিট পোলে বাংলাতেও দলের দারুণ ফলের সম্ভাবনার কথা জেনে তাই বিরোধী নেতানেত্রীদের বিঁধতে দেরি করেননি তিনি। তার উপরে মেদিনীপুর কেন্দ্র থেকে দিলীপবাবুর নিজের জেতার সম্ভাবনাও প্রবল বলে এবিপি আনন্দ নিয়েলসেন সমীক্ষায় প্রকাশিত হয়েছে। খোশমেজাজে থাকা দিলীপ ঘোষ তাই চন্দ্রবাবুকে কটাক্ষ করে বলেছেন, "চন্দ্রবাবু আসবেন, চা খেয়ে আবার চলে যাবেন।"

এ দিন কলকাতায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কালীঘাটের বাড়িতে মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করার কথা অন্ধ্র প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রবাবু নাইডুর। বিরোধী মহাজোট গঠন নিয়েই তাঁদের মধ্যে আলোচনা হওয়ার কথা। সেই বৈঠককেই কটাক্ষ করেছেন দিলীপ ঘোষ। তিনি বলেন, "দিদিমণির তো মন খারাপ হয়ে গিয়েছে, কীসের বৈঠক আবার? মায়াবতী তো দিল্লি যাচ্ছেন না। এতদিনের যে ড্রামা সেই সব প্ল্যান ভেস্তে গিয়েছে। চন্দ্রবাবু নিজের জায়গায় হারবেন, দিদি নিজের জায়গায় হারবেন। এর পরেও যদিও আসেন, চা খেয়ে চলে যাবেন।"

প্রসঙ্গত দিলীপ ঘোষের নিজের কেন্দ্র মেদিনীপুরের খড়্গপুরে এসে তৃণমূলের হয়ে প্রচার করে গিয়েছিলেন চন্দ্রবাবু নাইডু। কারণ ওই কেন্দ্রে বহু তেলুগু ভোটার রয়েছেন। শেষ পর্যন্ত অবশ্য মেদিনীপুর থেকে দিলীপ ঘোষই জিততে চলেছেন বলে বুথ ফেরত সমীক্ষায় দাবি করা হয়েছে।