রবিবার সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে অভিনেতা ভিক্টর বন্দ্যোপাধ্যায়ের মৃত্যুর খবর। মুহূর্তে নেটিজেনদের মধ্যে নেমে এসেছিল। পরে অবশ্য জানা যায় এই খবর পুরোটাই মিথ্যে। এবার খোদ ভিক্টর নিজের মিথ্যে মৃত্যু সংবাদ নিয়ে মুখ খুললেন। 

ভিক্টর নিজের মৃত্যু সংবাদ হেসে উড়িয়ে দেন এবং রসিকতা করে এক সংবাদমাধ্যমকে বলেন, ভুয়ো মৃ্ত্যু সংবাদ আমায় আরও জলপ্রিয় করে দিল। কিন্তু এটা খুবই খারাপ জোক। 

রবিবার ভিক্টরের মৃত্যুর খবর ছড়ায় বেশ কয়েকটি ফেসবুক পেজের মাধ্যমে। তবে প্রথম পোস্টটি কোথা থেকে করা হয়েছিল, তার সন্ধান এখনও পাওয়া যায়নি। অনেকে আবার সেই পোস্ট শেয়ার করে লেখেন, ভিক্টর বন্দ্যোপাধ্যায়ের আত্মার শান্তি কামনা করছি। তারই মধ্যে একটি পোস্টে ভিক্টরের মেয়ে কেয়া বন্দ্যোপাধ্যায় পণ্ডিত কিছুক্ষণেকর মধ্যেই কমেন্ট করে জানান, তাঁর বাবা বহাল তবিয়তে আছেন। 

এমনিতে মুসৌরীর ভিতরে একেবারে নিরিবিলি এলাকায় এক বিলাসবহুল বাড়িতে থাকেন ভিক্টর। রবিবার তিনি অসমের মোরান ব্লাইন্ড স্কুলের বাচ্চাদের সঙ্গে ছিলেন ভিক্টর। 

তবে খবর শুধু সোশ্যাল মিডিয়াতেই সীমাবদ্ধ থাকেনি। কিছুক্ষণের মধ্যেই দেখা যায় উইকিপিডিয়াতেও তাঁর মৃত্যু দিন হিসেবে ২৩ জুন দেখাচ্ছে। যদিও পরে তা ঠিক করে দেওয়া হয়। 

প্রসঙ্গত, অভিনেতা ভিক্টর বন্দ্যোপাধ্যায় বাংলা, হিন্দি, ইংরেজি, অসমিয়া-সহ বিভিন্ন ভাষার ছবিতে অভিনয় করেছেন।  খ্যাতির আলো থেকে নিজেকে দূরে রাখলেও, তিনি যে বাঙালির কাছে এক অমূল্য সম্পদ, তা বলাই বাহুল্য়।