অবশেষে সেই বিতর্কিত মিম ডিলিট করলেন বিবেক ওবেরয়। সঙ্গে টুইট করে ক্ষমাও চাইলেন। 

মঙ্গলবার টুইট করে বিবেক লেখেন, একজন মহিলাও যদি এই মিম নিয়ে অসন্তুষ্ট হয়ে থাকেন, তা হলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া উচিত। ক্ষমাপ্রার্থী। টুইটটি  ডিলিট করবেন। 

এছাড়াও  বিবেক টুইট করে লেখেন, অনেক সময়ে প্রথম দেখাতেই আমাদের চোখে যেটা মজার লাগে, সেটা অন্যদের চোখে না-ও লাগতে পারে। আমি ১০ বছর ধরে ২০০০ দুঃস্থ মহিলার জন্য কাজ করছি। আমি কোনও মহিলাকে অশ্রদ্ধা করার কথা ভাবতেও পারি না। 

 

 

প্রসঙ্গত, সোমবার একটি মিম শেয়ার করেন বিবেক ওবেরয়। মিমটিতে ঐশ্বর্যকে তিন জনের সঙ্গে পর পর দেখা যাচ্ছে- সলমন খান, স্বয়ং বিবেক ওবেরয় এবং অভিষেক বচ্চন। একথা সকলেই জানেন, এক সময় সলমন খানের সঙ্গে সম্পর্কে ছিলেন ঐশ্বর্য। সেই সম্পর্ক ভেঙে যায়। তার পরে বিবেকের সঙ্গেও বেশ কিছুদিন সম্পর্কে ছিলেন তিনি। সেই সম্পর্কও টেকেনি। শেষে অভিষেকের সঙ্গে বিয়ে হয় ঐশ্বর্যের। এই বিষয়টিই বিবেকের পোস্ট করা মিমটিতে ফুটে উঠেছে। 

সলমনের সঙ্গে ছবিটি তুলনা করা হয়েছে মতামত সমীক্ষা বা ওপিনিয়ন পোলের সঙ্গে। বিবেক নিজের ছবিটি তুলনা করেছেন এক্সিট পোল-এর সঙ্গে আর অভিষেকের সঙ্গে ঐশ্বর্যের ছবিটি তুলনা করা হয়েছে  অন্তিম ফলাফলের সঙ্গে। মিমটির ক্যাপশনে বিবেক লেখেন- "এটি ক্রিয়েটিভ। এর মধ্যে রাজনীতি নেই। শুধুই জীবন। "

এই মিমটি শেয়ার করার পর থেকেই সোশ্য়াল মিডিয়ায় সমালোচনার মুখে পড়েন বিবেক। এক সংবাদমাধ্যমের কাছে বলেন, "মানুষ কেন এটাকে এত বড় করছে?"যদিও শেষ পর্যন্ত মিমটিকে ডিলিট করলেন বিবেক ওবেরয় এবং ক্ষমাও চাইলেন।