ধর্মের জন্য অভিনয় জগতে ইতি টেনেছেন দঙ্গল খ্যাত অভিনেত্রী জাইরা ওয়াসিম। ৩০ জুন বলিউডে পাঁচ বছর পূর্ণ করেন জাইরা। সেদিনই একটি লম্বা পোস্টের মাধ্যমে জানিয়ে দেন আর অভিনয় চালিয়ে নিয়ে যাবেন না তিনি। তিনি জানান, তাঁর কাছে ধর্মই মূল। বলিউডে তাঁকে দর্শকরা পছন্দ করলেও, তিনি এখানে মানানসই নন। এতে আল্লাহর উপরে বিশ্বাসের সঙ্গে আপোশ করে ফেলছেন তিনি। অন্য এক মানুষ হয়ে ওঠার চেষ্টা করে চলেছেন। নিজেকে হারিয়ে ফেলছেন। এসব বলেই অভিনয় জগত থেকে বিদায় নিয়েছেন তিনি। 

অনেকে জাইরার এই সিদ্ধান্তের সমর্থন জানিয়েছেন। অনেকেই আবার এভাবে অভিনয় থেকে সরে যাওয়ার সিদ্ধান্তকে ভালোভাবে নেননি। কেউ আবার প্রশ্ন তুলেছেন, ওই পোস্ট সত্যিই জাইরাই করেছে তো! নাকি কেউ হ্যাক করে জাইরার হয়ে এমন একটি পোস্ট করেছেন। এই ধন্দ নিজেই কাটিয়ে দিলেন জাইরা ওয়াসিম। 

তিনি ১ জুলাই আরও একটি পোস্ট করেন, আমি সবাইকে জানাচ্ছি, আমার কোনও সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্টই হ্যাক করা হয়নি। প্রত্যেকটি অ্যাকাউন্ট আমি নিজেই হ্যান্ডেল করি। দয়া করে আমার অ্যাকাউন্ট হ্যাক হয়েছে এমন ভুল খবর ছড়াবেন না। ধন্যবাদ। 

 

 

লেখিকা তসলিমা নাসরিন জাইরার অভিনয় ছেড়ে দেওয়া প্রসঙ্গে বলেন, আল্লাহর উপর থেকে বিশ্বাস ভেঙ্গে যাচ্ছে বলে বলিউডের প্রতিভাবান অভিনেত্রী জায়রা ওয়াসিম অভিনয় ছেড়ে দিতে চান। কি অদ্ভুত সিদ্ধান্!। মুসলিম সম্প্রদায়ের কত প্রতিভাবান কত প্রতিভা এভাবে বোরখার অন্ধকারে চলে যাচ্ছে।

অভিনেত্রী রবিনা ট্যান্ডনও নিন্দা করে বলেন, দুটো ছবি করে অকৃতজ্ঞের মত এই চলচ্চিত্র জগত থেকে বেরিয়ে গেলে খুব একটা কিছু এসে যায় না। কিন্তু তারা ভালোভাবে এই ইন্ডাস্ট্রি থেকে বেরিয়ে যাবেন এবং এই ধরনের মন্তব্য নিজেদের কাছেই রাখবেন এটুকুই কাম্য। 

জাইরার প্রথম ছবি দঙ্গল। আমির খানের সঙ্গে প্রথম এই ছবিতেই প্রশংসা কোড়ান জাইরা। তবে আমির খান এখনও এই সম্পর্করে কোনও মন্তব্য করেননি। এরর পরে সিকরেট  সুপারস্টারেও ভালো অভিনয় করেন তিনি।