সোমবার রাতেই দিউ ও গুজরাতের সৌরাষ্ট্র উপকূলের মধ্যবর্তী এলাকায় আছড়ে পড়েছিল ঘূর্ণী ঝড় তাউতে। কিন্তু তার আগে এই ঝড় বয়ে গিয়েছিল বাণিজ্য নগরি মুম্বইয়ের ওপর দিয়ে। আবহাওয়া দফতর জানিয়েছেন মুম্বইয়ের ওপর দিয়ে ঘণ্টা ১১৪ কিলোমিটার বেগে ঝোড়ো হাওয়া বয়ে গিয়েছিল। স্থানীয় প্রশাসনও জানিয়েছেন প্রবল শক্তিশালী ঘূর্ণীঝড় তাউতের দাপটে প্রায় বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছিল মুম্বই। ঝড়ের সঙ্গে ছিল প্রবল বৃষ্টি। আর সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে এই ঝড়েই একাধিক ভিডিও। যার মধ্যে একটি ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে ঝড়ের দাপটে গাড়ির ওপর ভারি কিছু পড়ায় পুরো চূর্ণ বিচূর্ণ হয়ে যায় বেশ কয়েকটি গাড়ি। 


ভিডিওর বিষয়বস্তুঃ 
সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়া ভিডিওটি ন্যারিম্যানের ট্রাইড্রেন্ট হোটেলের। ভিডিওটি মূলত একটি সিসিটিভি ফুটেজ। যেখানে দেখা যাচ্ছে প্রবল ঝড় হচ্ছে। আর হোটেলের সামনে দাঁড়িয়ে থাকা  গাড়ির ওপর একটি গাছ বা ভারী কোনও বস্তু পড়ছে। যার জেরে বেশ কয়েকটি গাড়ি ভেঙে গিয়েছিল। রীতিমত ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল। মুম্বইয়ে ঝড়ে দেখুন, ঝড়ের তাণ্ডব দেখুন-এজাতীয় ক্যাপশান দিয়ে শেয়ার করা হয়েছিল ভিডিওটি। 
ভিডিওটি দেখুনঃ 


এই ভিডিও টুইটার ফেসবুকের মত সোশ্যাল মিডিয়ায় একাধিকবার শেয়ার করা হয়েছে। ঝড়ের তীব্রতার কথা বলা হয়েছে। একই সঙ্গে ক্ষয়ক্ষতির বিষয় নিয়েও নেটিজেনরা আলোচনা করেছেন। কিন্তু ভিডিওটি কি সত্যি?

ফ্যাক্ট চেট 
ভিডিওটি সত্যি। কিন্তু এই ভিডিওর সঙ্গে চলতি তাউতের কোনও সম্পর্ক নেই। সম্পর্ক নেই মুম্বইয়ের। এই ভিডিওটি তোলা হয়েছিল গতবছর।  ২০২০ সালে সৌদি আরবের মদিনায় প্রবল ঝড় বৃষ্টি হয়েছিল। সেই সময় বলা হয়েছিল হোটেলের নিচে দাঁড়িয়ে থাকা গাড়িগুলিতে একটি ঝড়ের দাপটে ছাদ বা কার্নিসের একটি অংশ ভেঙে পড়ে যায়। সংবাদ সংস্থা আলজাজিরাই এই খবর সম্প্রচার করেছিল। এআইআর নিউজ মুম্বই টুইটারে স্পষ্ট করে দিয়েছে ট্রাইডেন্ট মুম্বইয়ে ঝড়ের কারণে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে যান বাহন এই খরব সম্পূর্ণ মিথ্য। 

তার থেকেই স্পষ্ট হয়ে যায় এই ভিডিওটি মুম্বই থেকে তোলা হয়নি। তোলা হয়েছিল মদিনা থেকে।