আইএসএলের প্রথম ম্যাচে খুব একটা ভাল ফুটবল না খেলেও, ১-০ গোলে জয় দিয়ে মরসুম শুরু করল এটিকে মোহনবাগান দল। দলের হয়ে ম্যাচে একমাত্র গোলটি করেন সবুজ-মেরুণের তারকা স্ট্রাইকার রয় কৃষ্ণা। ম্যাচের দ্বিতীয়ার্ধের ৬৭ মিনিটে গোল করে এটিকে মোহনবাগানের জয় নিশ্চিৎ করেন ফিজি স্ট্রাইকার। যদিও ম্যাচে এটিকে মোহনবাগানকে কড়া টক্কল দিল মোহনাবাগানের প্রাক্তন আইলিগ জয়ী কোচ কিবু ভিকুনা। তবে জয় দিয়ে মরসুম শুরু করতে পেরে খুশি সবুজ মেরুণ শিবির।

করোনা আবহে দর্শকশূন্য স্টেডিয়ামে খেলা হলেও আইএসলের প্রথম ম্যাচ ঘিরে বাগান সমর্থকদের উৎসাহ ছিল তুঙ্গে। ৩-৫-২ ছকে দল নামান এটিকে মোহনবাগান কোচ অ্যান্তেনিও লোপেজ হাবাস। অপরদিকে ৪-২-৩-১ ছকে দল নামান কেরালা ব্লাস্টার্সের কোচ কিবু ভিকুনা। ম্যাচের প্রথমার্ধ থেকেই টান টান উত্তেজনায় শুরু হয় খেলা। খাতায় কলমে হাবাসের এটিকে মোহনবাগান দল শক্তিশালী হলেও, সমানে সমানে টক্কর দেয় কিবু ভিকুনার দল। প্রথম ম্যাচ হওয়ায় দুই দলই একটু সাবধানীভাবে শুরু করে। রক্ষণ সামলে আক্রমণে যায় দুই দল। এটিকে মোহনবাগান ও কেরালা ব্লাস্টার্স দুই দলই গোলের সামনে কয়েকটি সুযোগ তৈরি করলেও, গোলের মুখ খুলতে সমর্থ হয়নি কেউই।  বিশেষ বেশ কয়েকটি সুযোগ নষ্ট করেন রয় কৃষ্ণা। প্রথমার্ধের খেলা শেষ হয় গোলশূন্যভাবে।

দ্বিতীয়ার্ধে খেলার শুরু থেকেই গোলের জন্য ঝাঁপায় দুই দল। প্রথমার্ধে দুই দলই একে অপরকে মেপে নেওয়ার পর, স্ট্র্যাটেজি চেঞ্জ করে দুই কোচ। কিন্তু ম্যাচের ৬৭ মিনিটে কেরালা ব্লাস্টার্সের রক্ষণের ভুলে বল গিয়ে পড়ে রয় কৃষ্ণার পায়ে। এবার আর সহজ  সুযোগ নষ্ট করেননি ফিজির স্ট্রাইকার। বাঁ-পায়ের জোড়ালো শটে জালে বল জড়িয়ে দেন তিনি। এরপর কিবু ভিকুনার দল ম্যাচে ফেরার চেষ্টা করলেও, গোলের মুখ খপলতে পারেনি। কিন্তু গোচা ম্যাচে  বল পজিশনে বাগানের থেকে অনেকটা এগিয়ে থাকে কেরালা ব্লাস্টার্স। সব মিলিয়ে কষ্টার্জিত হলেও, প্রথম ম্যাচে জয় পেয়ে খুশি এটিকে মোহনবাগান কোচ অ্যান্তেনিও লোপেজ হাবাস। ২৭ তারিখ আইএসএলের ইতিহাসে প্রথম ইস্ট-মোহন ডার্বিতে নামার আগে এই জয় সবুজ মেরুণ শিবিরের আত্মবিশ্বাস বাড়াবে বলেই মনে করছেন ফুটবল বিশেষজ্ঞরা।