আর দেড় থেকে দুই মাসের মধ্যে শুরু হতে চলেছে আইএসএল। নতুন অবতারে প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের পর বাকি সমস্ত ফ্র্যাঞ্চাইজি ও ক্লাবদের আগেই গোয়ায় পৌঁছে নিজেদের প্রাক-মরশুম প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছে এটিকে মোহনবাগান। একে একে সকল দেশীয় ফুটবলার ও কোচিং স্টাফরা হাজির হয়েছেন। যে কয়েকজন এখনও যোগ দেননি তারাও খুব দ্রুত যোগ দেবেন বলে জানা গিয়েছে। আপাতত জৈব সুরক্ষা বলয়ে এই ফুটবলাররা থাকলেও যাতে তারা মানসিকভাবে ফিট থাকে, তার জন্য এবার বিশেষ বিশেষ ব্যবস্থা নিচ্ছে এটিকে-মোহনবাগান।

বেশিরভাগ বিদেশি ফুটবলারদের পাশাপাশি এখনও শিবিরে এসে পৌঁছতে পারেননি আন্তোনিও লোপেজ হাবাস। ক্লাব সূত্রে জানা গিয়েছে, বর্তমানে স্পেনে থাকলেও হেড কোচ আন্তোনিও হাবাসের নির্দেশমত এবার দলে নিয়োগ করা হয়েছে গোয়ার এক যোগা ট্রেনারকে। মাঠে নামার আগে খেলোয়াড়দের শারীরিক ও মানসিক সক্ষমতা বজায় রাখার জন্য যোগব্যায়াম অত্যন্ত জরুরি। আর সেই কারণে গোয়ার এক বিশেষ ট্রেনারকে নিয়োগ করা হয়েছে যাতে খেলোয়াড়দের ফ্রি টাইমে যোগব্যায়াম করানো হয়।

বেছে বেছে দলের খেলোয়াড়দের সুবিধার্থেই গোয়ার সবথেকে বিখ্যাত হোটেলগুলির মধ্যে একটিকে বেছে নিয়েছে ম্যানেজমেন্ট। যে বিলাসবহুল হোটেলে তারা রয়েছেন, সেখানে খেলোয়াড়দের জন্য বিশেষ গেম রুমের ব্যবস্থা করা হয়েছে। প্রসঙ্গত, ইউএই-তে এই একই ধাঁচের গেম রুমের ব্যবস্থা করে রেখেছে আইপিএল-এর প্রতিটি ফ্র্যাঞ্চাইজি। একই রকম ভাবে একাধিক বোর্ড গেম ও ভিডিও গেমের আয়োজন করা হয়েছে। সারাদিন প্র্যাকটিসে ঘাম ঝরানোর পরেও যাতে খেলোয়াড়রা নিশ্চিন্তমনে থাকতে পারে এই জৈব সুরক্ষা বলয়ে, তার জন্য পূর্ণ প্রচেষ্টা তৈরিতে বদ্ধপরিকর এটিকে-মোহনবাগান কর্তারা।