অবশেষে সারা পৃথিবী জুড়ে থাকা সমস্ত ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো ভক্তদের জন্য এলো সুখবর। ৩৫ বছর বয়সী পর্তুগিজ মহাতারকা ফরোয়ার্ড করোনাভাইরাসের কবল থেকে মুক্তি পেলেন। প্রসঙ্গত এই পর্তুগিজ ফুটবলার গত ১৩ই অক্টোবর পর্তুগালের হয়ে নেশনস লিগে নামার আগে করণা আক্রান্ত হন। গতকাল বেশি রাতের দিকে এই খবর প্রকাশ করেছে জুভেন্তাস। 

নেশনস লিগে পর্তুগালের তৃতীয় ম্যাচে ফ্রান্সের বিরুদ্ধে গোলশূন্য ড্র করার পরের দিনই রোনাল্ডোর করোনা সংক্রমণ পরীক্ষার রিপোর্ট পজিটিভ আসে। তারপরেই রোনাল্ডো “মেডিক্যাল ফ্লাইটে” লিসবন থেকে তুরিনে ফিরে আসেন এবং সেখানেই আইসোলেশনে কিছু দিন কাটাতে থাকেন। তারপর থেকে রোনাল্ডো ভক্তদের দিন কাটছিল উৎকণ্ঠায়। এক সপ্তাহ পরে ২২শে অক্টোবর তার দ্বিতীয় টেস্টটিও পজিটিভ আসে। ২৭ শে অক্টোবর বার্সেলোনার বিরুদ্ধে জুভেন্তাসের ম্যাচের আগের দিন ফের তার রিপোর্ট পজিটিভ আসে। ফলে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের অতি গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে বার্সেলোনার বিরুদ্ধে, বা বলা ভালো তার চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী লিওনেল মেসির বিরুদ্ধে নামা হয়নি তার। অবশেষে কাল রাতে দীর্ঘ ১৯ দিন পর রোনাল্ডোর পরীক্ষার রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। অর্থাৎ রবিবার জুভেন্তাসের সিঁরি আ-র ম্যাচে নামতে তার কোনও বাঁধা থাকছে না আপাতত। 

করোনা সংক্রমণের কারণে ক্লাব ও দেশ মিলিয়ে মোট ৫ টি ম্যাচ মিস করেছেন রোনাল্ডো। দেশের হয়ে তার নামার কথা ছিল নেশনস লিগে সুইডেনের বিরুদ্ধে। তাকে ছাড়াই অবশ্য পর্তুগিজ ফুটবল দল ৩-০ ব্যবধানে সুইডিশদের হারিয়েছে। কিন্তু রোনাল্ডোর অনুপস্থিতিতে সিঁরি আ-তে টানা দুটি ম্যাচে ড্র করে পয়েন্ট নষ্ট করেছে জুভেন্তাস। চ্যাম্পিয়ন্স লিগে প্রথম ম্যাচে মোরাতার জোড়া গোল ডায়নামো কিয়েভকে হারালেও গ্রূপের দ্বিতীয় ম্যাচে বার্সেলোনার কাছে নিজেদের ঘরের মাঠে লজ্জার হার উপহার পেয়েছে জুভেন্তাস। সেই সমস্ত দুর্যোগ কাটিয়ে রবিবার দলকে আবার জয়ের সরণিতে আনতে পারবেন কিনা রোনাল্ডো, সেই প্রশ্নর উত্তর জানতেই অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছে সিআরসেভেন অনুগামীরা।