এ  মোহনবাগানকে থেকে থামাবে কে! প্রেমদিবসে ঘরের মাঠে নেরোকাকে গোলের মালা পরালেন গঞ্জালেজ-মোরান্তেরা। আইলিগে কিবু ব্রিগেডের নবম জয় এল ৬-২ ব্যবধানে। হ্যাটট্রিক করলেন ফ্রান গঞ্জালেজ। গোল পেলেন মোরান্তে, বাবা এবং রোমারিও। তিন পয়েন্ট তো এলই, গোলপার্থক্যও অনেকটা বাড়িয়ে নিল সুবজ-মেরুন। দ্বিতীয় আই লিগ জয়ের প্রহর গুনছেন সমর্থকরা।

অ্যাওয়ে ম্যাচে নেরোকাকে ৩ গোলে হারিয়ে দিল মোহনবাগান। ঘরের মাঠেও ফেভারিট হিসেবেই খেলতে নেমেছিলেন কিবু ভিকুনার ছেলেরা।  ভয় ছিল একটাই, টানা জিততে জিততে ফুটবলাররা যেন আত্মতুষ্টিতে না ভোগেন। ম্যাচের আগে বেইতিয়াদের সতর্ক করে দিয়েছিলেন কোচ ভিকুনা। সত্যি কথা কথা বলতে, আগের ম্যাচের নেরোকার থেকে এই নেরোকা অনেক শক্তিশালী। কিন্তু লিগ জয়ের গন্ধ পেয়ে যাওয়া মোহনবাগানকে থামানোর সাধ্য ছিল না তাদের। বরং ম্যাচের শুরু থেকেই আধিপত্য ছিল সবুজ-মেরুন ফুটবলাদেরই। ফলস্বরূপ ম্যাচের প্রথমার্ধেই পাঁচটি গোল করে ফেলে মোহনবাগান।  ম্যাচের ১১ মিনিটে প্রথম গোল গঞ্জালেসের। ১ মিনিট পর ফের ব্যবধান বাড়ান মোরান্তে। ২৪ ও ৪৫ মিনিটে আরও দুটি গোল করে হ্যাটট্রিক করেন গঞ্জালেস। বাকি দুটি গোল করেছেন বাবা দিওয়ারা ও রোমারিও।  দ্বিতীয়ার্ধে কিছুটা লড়াইয়ে ফেরে নেরোকা। দুটি গোলও শোধ দেয় তারা। বেশ কয়েকটি সুযোগ তৈরি করলেও, তা কাজে আসেনি। 

ঘরের নেরোকা বধের হল বটে। তবে একটা অস্বস্তি কিন্তু রয়েই গেল সবুজ-মেরুন শিবিরে। ম্যাচে লালকার্ড দেখলেন ধনচন্দ্র সিং। প্রতিপক্ষের স্ট্রাইকারের একটি শট গোললাইন থেকে ফেরাতে গিয়ে হ্যান্ডবল করে ফেলেন তিনি।  আপাতত আইলিগে ২৬টি ম্যাচ খেলে মোহবাগানের পয়েন্ট ২৯। দ্বিতীয় স্থানে থাকা মির্নাভার পঞ্জাবের সঙ্গে তাদের পয়েন্টের ব্যবধান ১২।