নেশনস লিগে পর্তুগালের তৃতীয় ম্যাচে ফ্রান্সের বিরুদ্ধে গোলশূন্য ড্র করার পরের দিনই রোনাল্ডোর করোনা সংক্রমণ পরীক্ষার রিপোর্ট পজিটিভ আসে। তারপর টানা ২১ দিন মাঠের বাইরে কাটাতে হয় পর্তুগিজ মহাতারকাকে। নামতে পারেননি সুইডেন, বার্সেলোনার মতো প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে। অবশেষে ভক্তদের দীর্ঘদিনের অপেক্ষার অবসান ঘটিয়ে মাঠে নামলেন তিনি। সিঁরি আ-তে এবারই ফার্স্ট ডিভিশনে প্রোমোট হওয়া স্পেজিয়ার বিরুদ্ধে অ্যাওয়ে ম্যাচে বেঞ্চে থেকে ম্যাচের ৫৭ মিনিটে মাঠে ফিরলেন তিনি। 

ম্যাচের শুরুতে জুভেন্তাসের ফরোয়ার্ড লাইনে দিবালা এবং মোরাতাকে জুড়ে দিয়েছিলেন জুভে কোচ আন্দ্রেয়া পিরলো। কিন্তু ম্যাচে কোনোরকম প্রভাব ফেলতে ব্যর্থ হন দিবালা। মোরাতার গোলে পিছিয়ে পড়েও পবেগার গোলে সমতা ফেরায় স্পেজিয়া। দ্বিতীয়ার্ধের ৫৭ মিনিট অবধি অপেক্ষা করে দিবালার বদলে রোনাল্ডোকে নামান পিরলো। মাঠে নামার তিন মিনিটের মধ্যে মোরাতার থ্রু বল ধরে গোলকিপারকে কাটিয়ে গোল দিয়ে জুভেন্তাসকে এগিয়ে দেন রোনাল্ডো। পরে জুভেন্তাসের লেফট আউট কিয়েজাকে বক্সের মধ্যে ফাউল করলে পেনাল্টি পায় জুভেন্তাস। ঠান্ডা মাথায় পানেনকা স্টাইলে গোলকিপারকে বোকা বানিয়ে জুভেন্তাসের চতুর্থ ও ম্যাচে নিজের দ্বিতীয় গোলটি তুলে নেন রোনাল্ডো। জুভেন্তাস জেতে ৪-১ ফলে। অপর গোলটি করেন পরিবর্ত হিসাবে নামা জুভেন্তাসের ফ্রেঞ্চ মিডফিল্ডার র‍্যাবিওট। 

অপরদিকে জুলাটান ইব্রাহিমোভিচের বাইসাইকেল কিকে মরশুমে নিজেদের পঞ্চম জয় তুলে নিল এসি মিলান। সাথে জমে উঠলো সিঁরি আ খেতাবের লড়াই। এই মুহূর্তে দ্বিতীয় স্থানে থাকা সাসুলোর থেকে ২ পয়েন্টে এগিয়ে এসি মিলান। ৩৯ বছর বয়সেও ফিটনেসের চূড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছেন জুলাটান। এই মুহূর্তে ৪ ম্যাচে ৭ গোল করে সিঁরি আ-এর সর্বোচ্চ স্কোরারের খেতাবের দৌড়ে সবচেয়ে এগিয়ে জুলাটান। পিছিয়ে নেই ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোও। ৩ ম্যাচে তার গোলসংখ্যা ৫।