ইস্টবেঙ্গল ক্লাবের শতবর্ষে সমর্থকদের কাছে সবথেকে বড় পাওনা প্রিয় দলের আইএসএলে অন্তর্ভুক্তি। যদিও এই রাস্তাটা সহজ ছিল লাল-দলুদের পক্ষে। একসময় প্রায় নিশ্চিৎ হয়ে গিয়েছিল চির প্রতীদ্বন্দ্বী দল মোহনবাগান আইএসএল খেললেও এবছর আর আইএসএল খেলা হবে না ইস্টবেঙ্গলের। স্পনসর, কোয়েসের থেকে স্পোর্টিং রাইটস ফেরত সহ নানা সমস্যা ইস্টবেঙ্গলের আইএসএল খেলার পথে বাধা হয়ে দাঁড়ায়। তবে অবশেষে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী ও বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট নিজে উদ্যোগ নিয়ে ইস্টবেঙ্গলের জন্য আইএসএলের দরজা খোলার ব্যবস্থা করে। অবশেষে শ্রী সিমেন্ট ইস্টবেঙ্গলের স্পনসর হিসেবে এগিয়ে আসে ও আইএসএলে খেলা নিশ্চিৎ হয় শতাব্দী প্রাচীন ক্লাবের।

আইএসএলে খেলা নিশ্চিৎ হওয়ার আগে থেকেই অবশ্য দল গোছানো শুরু করে দিয়েছিল ইস্টবেঙ্গল। শ্রী সিমেন্ট স্পনসর হিসেবে আসার পর বিদেশি প্লেয়ার, কোচ সহ আরও একাধিক প্লেয়ার নির্বাচিত করা হয়। ইতিমধ্যেই গোয়ায় পুরো দল নিয়ে অনুশীলন শুরু করে দিয়েছেন এসসি ইস্টবেঙ্গলের কোচ রবি ফাওলার। হাতে সময় কম, তারউপর ২৭ নভেম্বর মরসুম শুরু করতে হবে ডার্বি ম্যাচ দিয়ে, ফলে যতটা সম্ভব দলকে গুছিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করছেন লাল-হলুদ কোচ। রণকৌশলও ঠিক করে নিচ্ছেন প্লেয়ার ও সাপোর্টিং স্টাফদের সঙ্গে। ইতিমধ্যেই সমর্থকদের দলের উপর ভরসা রাখার বার্তাও দিয়েছেন রবি ফাওলার। শতবর্ষে ইস্টবেঙ্গলকে ভারত সেরা করার লক্ষ্যেই এগোচ্ছেন তিনি। এবার আইএসল শুরুর আগে দেখে নেওয়া যাক ইস্টবেঙ্গলের টিম প্রোফাইল।

স্পোর্টস ক্লাব ইস্টবেঙ্গলের টিম প্রোফাইল-
প্রধান কোচ-  রবি ফাওলার
সহকারি কোচ- অ্যান্থনি গ্রান্ট, টেরেন ম্যাকফিলিপ, জ্যাক ইনমান, মিচেল হার্ডিং, রবার্ট মিমস এবং রেনেডি সিং
গোলরক্ষক- দেবজিৎ মজুমদার, শঙ্কর রায়, রফিক আলী সর্দার, মিরশাদ মিচু
ডিফেন্ডার- স্কট নেভিল, ড্যানি ফক্স, রানা ঘরামী, গুরতেজ সিং, মহম্মদ ইরশাদ, লালরামচুল্লোভা, নারায়ণ দাস, সামাদ আলী মল্লিক, অভিষেক আম্বেকার, অনিল চাওয়ান, নবীন গুরুং, প্রীতম সিং
মিডফিল্ডার- শেহনাজ সিং, বিকাশ জাইরু, ইজউয়েনসন লিংডো, ইয়ুমনুম গোপী সিং, সুরচন্দ্র সিং, আংসুয়ানা, লোকেন মিতেই, মহম্মদ রফিক, হাওয়াম সিং, মিলান সিং, ওয়াহেংবাম লুয়ান, ম্যাটি স্টেইনম্যান, জ্যাক ম‍্যাঘোমা, অ্যান্থনি পিলকিংটন
ফরওয়ার্ড- জেজে লালপেখলুয়া, বলবন্ত সিং, গিরিক খোসলা, অ্যারণ আমাদী হ্যালওয়ে, হরমনপ্রিত সিং