চৈত্র মাসেই কাটিয়ে উঠুন সকল বাধা, সহজেই ফেরান আপনার সৌভাগ্য

First Published 18, Mar 2020, 11:19 AM IST

আর্থিক ও পারিবারি বিষয় ছাড়া শারীরিক দিকেও প্রভাব বিস্তার করে ৯ টি গ্রহ। বিভিন্ন সময় আমরা যে সমস্যার সম্মুখীন হই তার প্রধাণ কারণগুলি হল গ্রহের প্রভাব। যদি কোনও ব্যক্তির কুণ্ডলীতে গ্রহদোষ থাকে, তা হলে ভাগ্য তার সঙ্গ দিতে চায় না। যে কোনও কাজেই তাকে ব্যর্থ হতে হয়। কিন্তু জানলে অবাক হবেন একমাত্র সহজ উপাদান জল ব্যবহার করেই আপনি নিজের ভাগ্য ফেরাতে পারেন। শাস্ত্র মতে, জেনে নিন কীভাবে সহজ পদ্ধতিতে ফেরাবেন নিজের ভাগ্য। এই মাস শিবের উপাসনার মাস। এই মাসে নীলের পুজো হয়ে থাকে।

প্রতিদিন শিবলিঙ্গে এক ঘটি জল ঢাললে প্রসন্ন হন শিব ঠাকুর। সেই কারণে তিনি ভক্তদের মনোস্কামনা পূর্ণও করেন। শিবকে প্রসন্ন করার সবথেকে সহজ উপায় এটিই। তাই চৈত্র মাসে সমস্যা কাটিয়ে উঠতে মেনে চলতে পারেন এই নিয়ম।

প্রতিদিন শিবলিঙ্গে এক ঘটি জল ঢাললে প্রসন্ন হন শিব ঠাকুর। সেই কারণে তিনি ভক্তদের মনোস্কামনা পূর্ণও করেন। শিবকে প্রসন্ন করার সবথেকে সহজ উপায় এটিই। তাই চৈত্র মাসে সমস্যা কাটিয়ে উঠতে মেনে চলতে পারেন এই নিয়ম।

জল নিবেদন করার সময়ে ‘ওঁ সূর্যায় নমঃ’মন্ত্র জপ করুন। বট গাছে জল দিলে এবং পুজো করলে সমস্ত রকম সুখ-সমৃদ্ধি লাভ করা যায়।

জল নিবেদন করার সময়ে ‘ওঁ সূর্যায় নমঃ’মন্ত্র জপ করুন। বট গাছে জল দিলে এবং পুজো করলে সমস্ত রকম সুখ-সমৃদ্ধি লাভ করা যায়।

প্রতিদিন সকালে সূর্যদেবকে প্রণাম করে জল নিবেদন করলে সুফল পাওয়া যায়। কাটিয়ে উঠতে পারবেন সকল বাধা।

প্রতিদিন সকালে সূর্যদেবকে প্রণাম করে জল নিবেদন করলে সুফল পাওয়া যায়। কাটিয়ে উঠতে পারবেন সকল বাধা।

স্নান করার পরে তামার পাত্রে জল ভরে সেই জলের মধ্যে লাল ফুল, সিঁদুর, চাল, ডাল মিশিয়ে সূর্যকে নিবেদন করুন।

স্নান করার পরে তামার পাত্রে জল ভরে সেই জলের মধ্যে লাল ফুল, সিঁদুর, চাল, ডাল মিশিয়ে সূর্যকে নিবেদন করুন।

প্রতিদিন ভোরে উঠে স্নান করে তামার ঘটিতে করে শিবলিঙ্গে জল ঢালা উচিত। জল ঢালার সময়ে 'ওঁ নমঃ শিবায়' মন্ত্র পাঠ করা উচিত। নিয়মিত এই পদ্ধতি মেনে চললে খারাপ নজর থেকে রক্ষা পাওয়া যায়।

প্রতিদিন ভোরে উঠে স্নান করে তামার ঘটিতে করে শিবলিঙ্গে জল ঢালা উচিত। জল ঢালার সময়ে 'ওঁ নমঃ শিবায়' মন্ত্র পাঠ করা উচিত। নিয়মিত এই পদ্ধতি মেনে চললে খারাপ নজর থেকে রক্ষা পাওয়া যায়।

বাংলা বছরের শেষ মাসে যে কোনও শুভ কাজ করার আগে বা শুভ মুহূর্তে বট গাছে জল দেওয়া উচিত। এতে জীবনের বহু বাধা কাটিয়ে উঠতে পারবেন সহজেই।

বাংলা বছরের শেষ মাসে যে কোনও শুভ কাজ করার আগে বা শুভ মুহূর্তে বট গাছে জল দেওয়া উচিত। এতে জীবনের বহু বাধা কাটিয়ে উঠতে পারবেন সহজেই।

শাস্ত্র মতে, সকালে ও সন্ধ্যায় দুবেলা ঠাকুর দেওয়ার সময় তুলসী গাছে জল দিয়ে পুজো করলে দেবতার কৃপাদৃষ্টি পাওয়া সম্ভব হয়। এতে করে জীবনের বহু সমস্যা কাটিয়ে উঠতে পারবেন সহজেই।

শাস্ত্র মতে, সকালে ও সন্ধ্যায় দুবেলা ঠাকুর দেওয়ার সময় তুলসী গাছে জল দিয়ে পুজো করলে দেবতার কৃপাদৃষ্টি পাওয়া সম্ভব হয়। এতে করে জীবনের বহু সমস্যা কাটিয়ে উঠতে পারবেন সহজেই।

loader