১৪ বছর বয়সে শারীরিক নির্যাতনের শিকার আমির কন্যা, সোশ্যাল মিডিয়ায় বিস্ফোরক ইরা

First Published 3, Nov 2020, 11:47 AM

সেলেব কিড বলে মেলেনি ছাড়, দেশের আর পাঁচটা মেয়ের মতই ভয়াবহ পরিস্থিতির মুখে পড়তে হয়েছিল আমির কন্যাকেও। সমাজের এই অন্ধকার দিকটা দেখে ফেলেছিলেন ইরা মাত্র ১৮ বছর বয়সেই। তা নিয়েই এবার মুখ খুললেন আমির কন্যা। 

<p>সোশ্যাল মিডিয়ায় বরাবরই সক্রিয় আমির কন্যা। একাধিকবার বিভিন্ন বিষয় নিয়ে প্রকাশ্যে মুখ খুলতে দেখা যায় তাঁকে।</p>

সোশ্যাল মিডিয়ায় বরাবরই সক্রিয় আমির কন্যা। একাধিকবার বিভিন্ন বিষয় নিয়ে প্রকাশ্যে মুখ খুলতে দেখা যায় তাঁকে।

<p>এবার নিজের জীবনের তিন গুরুত্বপূর্ণ দিক নিয়ে কথা বললেন আমির কন্যা ইরা। জানালেন তাঁর পরিবারের কথা। পাশাপাশি তুলে ধরলেন ভয়াবহ অভিজ্ঞতার কথাও।&nbsp;</p>

এবার নিজের জীবনের তিন গুরুত্বপূর্ণ দিক নিয়ে কথা বললেন আমির কন্যা ইরা। জানালেন তাঁর পরিবারের কথা। পাশাপাশি তুলে ধরলেন ভয়াবহ অভিজ্ঞতার কথাও। 

<p>আমিরের মেয়ে, বর্তমানে সেটাই তাঁর প্রথম পরিচয় হয়ে দাঁড়িয়েছে বলে মন্তব্য করে ইরা। বাবা মা হিসেবে সকলকে কাছে পেয়েছেন ইরা সব সময়।&nbsp;</p>

আমিরের মেয়ে, বর্তমানে সেটাই তাঁর প্রথম পরিচয় হয়ে দাঁড়িয়েছে বলে মন্তব্য করে ইরা। বাবা মা হিসেবে সকলকে কাছে পেয়েছেন ইরা সব সময়। 

<p>যেকনও সমস্যাতেই তাঁরা এগিয়ে এসেছে বারে বারে। আর্থিক কষ্টও কখনও পেতে হয়নি। তবে মাত্র ১৪ বছর বয়সে যে ভয়াবহ দিক দেখেছে ইরা তা ভোলার নয়।&nbsp;</p>

যেকনও সমস্যাতেই তাঁরা এগিয়ে এসেছে বারে বারে। আর্থিক কষ্টও কখনও পেতে হয়নি। তবে মাত্র ১৪ বছর বয়সে যে ভয়াবহ দিক দেখেছে ইরা তা ভোলার নয়। 

<p style="text-align: justify;">আমির কন্যার অকপট স্বীকারোক্তি, শারীরিক নির্যাতনের শিকার হয়েছিলেন তিনি। প্রথমে বুঝতে না পারলেও পরবর্তীতে বুঝেছিলেন ইরা।&nbsp;</p>

আমির কন্যার অকপট স্বীকারোক্তি, শারীরিক নির্যাতনের শিকার হয়েছিলেন তিনি। প্রথমে বুঝতে না পারলেও পরবর্তীতে বুঝেছিলেন ইরা। 

<p>মা-বাবা ঘটনাস্থলে গিয়ে ইরাকে উদ্ধার করে। এরপর থেকেই পাল্টে যায় ইরার জীবন। ১২ বছরের পর থেকে কখনও কাঁদত না ইরা।&nbsp;</p>

মা-বাবা ঘটনাস্থলে গিয়ে ইরাকে উদ্ধার করে। এরপর থেকেই পাল্টে যায় ইরার জীবন। ১২ বছরের পর থেকে কখনও কাঁদত না ইরা। 

<p style="text-align: justify;">কিন্তু এই ঘটনার জেরে আবারও চোখে আসে জল। পাল্টে যায় জীবন যাপনের ধরন। দীর্ঘক্ষণ বিছানাতে পড়ে থাকতেন ইরা।&nbsp;</p>

কিন্তু এই ঘটনার জেরে আবারও চোখে আসে জল। পাল্টে যায় জীবন যাপনের ধরন। দীর্ঘক্ষণ বিছানাতে পড়ে থাকতেন ইরা। 

<p>নিজেও বুঝতেন, ঠিক হচ্ছে না কিছু। কিন্তু তাও যেন ভালো না লাগা তাঁকে গিলে খেতে আসে। একা থাকা, চুপচাপ থাকাটাই যেন নিত্য কাজ। &nbsp;</p>

নিজেও বুঝতেন, ঠিক হচ্ছে না কিছু। কিন্তু তাও যেন ভালো না লাগা তাঁকে গিলে খেতে আসে। একা থাকা, চুপচাপ থাকাটাই যেন নিত্য কাজ।  

<p>যদিওপরে তিনি বুঝতে পারেন, ঘটনাটিকে এতটও গুরুত্ব দেওয়া উচিৎ হয়নি। সবটা ঝেরে ফেলে পথ চলতেই হয়।&nbsp;</p>

যদিওপরে তিনি বুঝতে পারেন, ঘটনাটিকে এতটও গুরুত্ব দেওয়া উচিৎ হয়নি। সবটা ঝেরে ফেলে পথ চলতেই হয়। 

loader