মুক্তির গেরোয় ব্রহ্মাস্ত্র, আর কোন কোন ছবির কপালে জুটেছিল এই পরিস্থিতি

First Published 7, Feb 2020, 6:19 PM IST

২০১৯ সালের প্রথম থেকেই খবরের শিরোনামে জায়গা করে নিয়েছিল ব্রহ্মাস্ত্র। রিয়েল লাইফ জুটিকে রিল লাইফে দেখার জন্য অধীর আগ্রহে রয়েছে ভক্তরা। কিন্তু কোথায় ছবি। একের পর এক মুক্তির দিন সামনে উঠে আসতে থাকে। কিন্তু কোথাও গিয়ে যেন বাধ সাধে পরিস্থিতি। এমনই চিত্র হামেসাই দেখা যায় ছবির জগতে। ছবি মুক্তির পথে অন্তরায় হয়ে দাঁড়ায় একাধিক বিষয়। কখনও ছবির কাস্ট, কখনও ছবির বাজেট, আবার আইনি গেঁরোও জোটে। এমনই পরিস্থিতি মুখে পড়তে হয়েছিল বেশ কিছু ছবিকে।

ব্রহ্মাস্ত্রঃ এই ছবি মুক্তির কথা ছিল ২০২০-র মাঝামাঝি। কিন্তু শেষ হয়নি এখনও ছবির ভিএফএক্স-এর কাজ। ফলে পিছিয়ে গেল মুক্তির দিন।

ব্রহ্মাস্ত্রঃ এই ছবি মুক্তির কথা ছিল ২০২০-র মাঝামাঝি। কিন্তু শেষ হয়নি এখনও ছবির ভিএফএক্স-এর কাজ। ফলে পিছিয়ে গেল মুক্তির দিন।

বাহুবলি ২- এই ছবিতে একাধিক ভিএফএক্স-এর কাজ থাকার ফলে তা শেষ হতে বেশ কিছুটা সময় হয়। ছবির শেষ অংশ তৈরি করতে লাগে বেশ কিছুদিন। যার ফলে ছবির মুক্তিতে দেরি হয়।

বাহুবলি ২- এই ছবিতে একাধিক ভিএফএক্স-এর কাজ থাকার ফলে তা শেষ হতে বেশ কিছুটা সময় হয়। ছবির শেষ অংশ তৈরি করতে লাগে বেশ কিছুদিন। যার ফলে ছবির মুক্তিতে দেরি হয়।

বাজিরাও মস্তানিঃ হাম দিল দে চুকে সনম ছবিটি মুক্তির পরই এই ছবি তৈরির কথা ভেবেছিলেন পরিচালক। কিন্তু ছবির কাস্ট পছন্দ না হওয়ায় থিতিয়ে যায় ছবি।

বাজিরাও মস্তানিঃ হাম দিল দে চুকে সনম ছবিটি মুক্তির পরই এই ছবি তৈরির কথা ভেবেছিলেন পরিচালক। কিন্তু ছবির কাস্ট পছন্দ না হওয়ায় থিতিয়ে যায় ছবি।

বম্বে ভেলভেটঃ এই ছবির শ্যুটিং শেষ হতে সময় লেগেছিল বেশ কিছুদিন। মাঝে বাজেটের সমস্যা হওয়ায় স্থগিত করতে হয় শ্যুটিং।

বম্বে ভেলভেটঃ এই ছবির শ্যুটিং শেষ হতে সময় লেগেছিল বেশ কিছুদিন। মাঝে বাজেটের সমস্যা হওয়ায় স্থগিত করতে হয় শ্যুটিং।

ডরঃ এই ছবির জন্য একাধিক অভিনেতা অভিনেত্রীর কাছে প্রস্তাব যায়। কিন্তু অনেকেই ছবির প্রস্তাব গ্রহণ করতে ইচ্ছুক হননি। .অজয় দেবগণ, আমির খানের হাত ঘুরে এই ছবি আসে শাহরুখ খানের কাছে।

ডরঃ এই ছবির জন্য একাধিক অভিনেতা অভিনেত্রীর কাছে প্রস্তাব যায়। কিন্তু অনেকেই ছবির প্রস্তাব গ্রহণ করতে ইচ্ছুক হননি। .অজয় দেবগণ, আমির খানের হাত ঘুরে এই ছবি আসে শাহরুখ খানের কাছে।

এক থা টাইগারঃ এই ছবির শ্যুটিং-এর দিন পিছিয়ে দিয়েছিলেন সলমন খান। তাঁর আগের ছবির শ্যুটিং শেষ হতে সময় লাগে। ফলে দেরিতে শুরু হয় এক থা টাইগার ছবির শ্যুটিং।

এক থা টাইগারঃ এই ছবির শ্যুটিং-এর দিন পিছিয়ে দিয়েছিলেন সলমন খান। তাঁর আগের ছবির শ্যুটিং শেষ হতে সময় লাগে। ফলে দেরিতে শুরু হয় এক থা টাইগার ছবির শ্যুটিং।

গুরুঃ এই ছবির শ্যুটিং নিয়ে সমস্যা হয় না। যা হয় তা হল ছবির চিত্রনাট্য। এই ছবিতেই দেখা যায় ভারতের এক ব্যাবসায়ী টাইক্যুনের জীবনের ছাপ। ফলে আইনি জটিলতায় পড়তে হয় ছবিকে।

গুরুঃ এই ছবির শ্যুটিং নিয়ে সমস্যা হয় না। যা হয় তা হল ছবির চিত্রনাট্য। এই ছবিতেই দেখা যায় ভারতের এক ব্যাবসায়ী টাইক্যুনের জীবনের ছাপ। ফলে আইনি জটিলতায় পড়তে হয় ছবিকে।

যাব উই মেটঃ এই ছবিতে কাস্ট কাদের করা হবে, তা নিয়ে মত বিরোধ সৃষ্টি হয় পরিচালক ও প্রযোজকের মধ্যে। প্রযোজকের পছন্দের তালিকাতে ছিলেন ববি দেওয়ল ও প্রীতি জিন্টা।

যাব উই মেটঃ এই ছবিতে কাস্ট কাদের করা হবে, তা নিয়ে মত বিরোধ সৃষ্টি হয় পরিচালক ও প্রযোজকের মধ্যে। প্রযোজকের পছন্দের তালিকাতে ছিলেন ববি দেওয়ল ও প্রীতি জিন্টা।

হাম কো তুমসে পেয়ার হ্যায়ঃ এই ছবি চলা কালিন মারা যান ছবির পরিচালক বান্টি শর্মা। পরে সেই ছবি শেষ করার দ্বায়িত্ব নেন বিক্রম ভাট।

হাম কো তুমসে পেয়ার হ্যায়ঃ এই ছবি চলা কালিন মারা যান ছবির পরিচালক বান্টি শর্মা। পরে সেই ছবি শেষ করার দ্বায়িত্ব নেন বিক্রম ভাট।

পদ্মাবতঃ এই ছবির প্রথম নাম ছিল পদ্মাবতী। কিন্তু তা বিতর্কে জড়িয়ে পড়ায় সমস্যায় পড়তে ছবির প্রযোজক সংস্থাকে। পরে এর নাম বদলে হয় পদ্মাবত।

পদ্মাবতঃ এই ছবির প্রথম নাম ছিল পদ্মাবতী। কিন্তু তা বিতর্কে জড়িয়ে পড়ায় সমস্যায় পড়তে ছবির প্রযোজক সংস্থাকে। পরে এর নাম বদলে হয় পদ্মাবত।

রং রসিয়াঃ এই ছবিতে থাকা একাধিক নগ্ন দৃশ্য ও সাহসী চিত্রনাট্য মুক্তির পথে অন্তরায় হয়ে দাঁড়ায়। ২০০৮-এ তৈরি এই ছবি মুক্তি পায় ২০১৪ সালে।

রং রসিয়াঃ এই ছবিতে থাকা একাধিক নগ্ন দৃশ্য ও সাহসী চিত্রনাট্য মুক্তির পথে অন্তরায় হয়ে দাঁড়ায়। ২০০৮-এ তৈরি এই ছবি মুক্তি পায় ২০১৪ সালে।

loader