সিগারেটে গাঁজা ভরে বানিয়ে রাখতেন নীরজ, রবিবার সিবিআই জেরায় চাঞ্চল্যকর দাবি রাঁধুনির

First Published 24, Aug 2020, 8:11 AM

সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যু নিয়ে একাধিক প্রশ্ন এখন সকলের মনে। ঠিক কী ঘটেছিল সুশান্তের সঙ্গে, তা আজও স্পষ্ট নয়। না না জনের বয়ানে উঠে আসছে নানা কথা। কেন, কীভাবে সুশান্তের এই মৃত্যু তা ক্ষতিয়ে দেখতে গিয়ে একাধিক বিষয় উঠে আসছে সামনে, এবার এলো গাঁজা প্রসঙ্গ। 

<p>রবিবারই সিবিআই জেরার মুখে পড়েছিলেন সুশান্তের রাঁধুনি নীরজ সিং। দিনভর তদন্তের মুখে একাধিক প্রশ্নের উত্তর দিতে আবারও সামনে এলো নতুন তথ্য।&nbsp;</p>

রবিবারই সিবিআই জেরার মুখে পড়েছিলেন সুশান্তের রাঁধুনি নীরজ সিং। দিনভর তদন্তের মুখে একাধিক প্রশ্নের উত্তর দিতে আবারও সামনে এলো নতুন তথ্য। 

<p>নীরজের দাবি সুশান্ত গাঁজার নেশা করতেন। মাঝে মধ্যেই নীরজকে বানিয়ে দিতে বলতেন। নীরজ সিগারেটের মধ্যে তা রোল করে রাখতেন।&nbsp;</p>

নীরজের দাবি সুশান্ত গাঁজার নেশা করতেন। মাঝে মধ্যেই নীরজকে বানিয়ে দিতে বলতেন। নীরজ সিগারেটের মধ্যে তা রোল করে রাখতেন। 

<pre data-placeholder="अनुवाद" dir="ltr" id="tw-target-text">
মৃত্যুর কয়েকদিন আগেই তিনি সুশান্তের কথায় এমনই একবাক্স বানিয়ে রেখেছিলেন। কিন্তু মৃত্যুর নীরজ দেখেন সেই প্যাকেট সুশান্তের ঘরে পড়ে রয়েছে।&nbsp;
</pre>

মৃত্যুর কয়েকদিন আগেই তিনি সুশান্তের কথায় এমনই একবাক্স বানিয়ে রেখেছিলেন। কিন্তু মৃত্যুর নীরজ দেখেন সেই প্যাকেট সুশান্তের ঘরে পড়ে রয়েছে। 

<p>যা ছিল সম্পূর্ণ খানি। দেখে চমকে গিয়েছিলেন নীরজ। নীরজ সুশান্তের সঙ্গে রয়েছেন ২০১৯ সালের এপ্রিল মাস থেকে। যার ফলে অনেক কাছ থেকে শেষ সময় দেখেন তিনি।</p>

যা ছিল সম্পূর্ণ খানি। দেখে চমকে গিয়েছিলেন নীরজ। নীরজ সুশান্তের সঙ্গে রয়েছেন ২০১৯ সালের এপ্রিল মাস থেকে। যার ফলে অনেক কাছ থেকে শেষ সময় দেখেন তিনি।

<p style="text-align: justify;">নীরজের কথায়, ৮ জুন রিয়া সুশান্তকে ছেড়ে বিরক্তভাবেই চলে যান। সেদিন রিয়া খানওনি। এরপরই সুশান্তের সঙ্গে থাকতে শুরু করেছিলেন তাঁর দিদি।&nbsp;</p>

নীরজের কথায়, ৮ জুন রিয়া সুশান্তকে ছেড়ে বিরক্তভাবেই চলে যান। সেদিন রিয়া খানওনি। এরপরই সুশান্তের সঙ্গে থাকতে শুরু করেছিলেন তাঁর দিদি। 

<p>১২ তারিখ ফ্ল্যাট থেকে চলে গিয়েছিলেন তাঁর দিদিও। মৃত্যুর দিন সকালে ঠাণ্ডা জল চেয়েছিলেন নীরজের কাছ থেকে সুশান্ত।&nbsp;&nbsp;</p>

১২ তারিখ ফ্ল্যাট থেকে চলে গিয়েছিলেন তাঁর দিদিও। মৃত্যুর দিন সকালে ঠাণ্ডা জল চেয়েছিলেন নীরজের কাছ থেকে সুশান্ত।  

<p>কিন্তু সুশান্তের ঠাণ্ডা জল পান করা নিষেধ ছিল, তিনি ঘাবরে গিয়ে অল্প ঠাণ্ডা জল পাঠিয়ে ছিলেন। এরপর এক পরিচারক তাঁকে গিয়ে জুস দিয়ে আসেন। ব্যাস সেই শেষ।&nbsp;</p>

কিন্তু সুশান্তের ঠাণ্ডা জল পান করা নিষেধ ছিল, তিনি ঘাবরে গিয়ে অল্প ঠাণ্ডা জল পাঠিয়ে ছিলেন। এরপর এক পরিচারক তাঁকে গিয়ে জুস দিয়ে আসেন। ব্যাস সেই শেষ। 

<p style="text-align: justify;">এরপর দুপুরে কী খাবেন জানতে গেলে আর মেলেনি সাড়া। তারপর দরজা খুলেই মেলে সুশান্তের দেহ। রবিবার নীরজের বয়ান।</p>

এরপর দুপুরে কী খাবেন জানতে গেলে আর মেলেনি সাড়া। তারপর দরজা খুলেই মেলে সুশান্তের দেহ। রবিবার নীরজের বয়ান।

loader