"দেখি কে গুলি চালায়", আবু সালেমের হুমকি করণকে, বন্ধুর জন্য প্রাণ দিতে রাজি ছিলেন কিং খান

First Published 15, May 2020, 9:12 PM

অ্যান আনস্যুটবল বয়, করণ জোহারের বায়োগ্রাফিতে এমন বহু অজানা কথা প্রকাশ্যে আসে। সেই বই থেকেই জানা যায় এক সময় করণ জোহারের জন্য শাহরুখ খান গুলি পর্যন্ত নিতে রাজি ছিলেন। ইন্ডাস্ট্রির সকলের ভাই বলতে কেবল সলমন খানকেই চেনে। তবে করণের কাছে তাঁর ভাই বলতে একজনই শাহরুখ। তাঁর সেরা হিরো, কফি উইথ করণের সেরা অথিতি, সবই শাহরুখ। কঙ্গনা রনাওয়াত এবং অসংখ্য সিনেপ্রেমীদের কথায় করণ নেপটিজমের ফ্ল্যাগ বেয়ারার বললেও শাহরুখের মত একজন আউটসাইডারকে নিজের ভাই হিসেবে মেনে নিয়েছিলেন। এর পিছনেও রয়েছে একটি কারণ। 

<p>১৯৯৮ সালে করণের জীবনে এমন এক মুহূর্ত আসে যার কারণে শাহরুখের কাছে আজও কৃতজ্ঞ করণ। এমনকি সারাজীবনেও শাহরুখের এই ঋণ সোদ করতে পারবেন না তিনি। আন্ডারওয়ার্ল্ড ডন আবু সালেম কুছ কুছ হোতা হ্যয় মুক্তি পাওয়ার সময় করণকে প্রাণের হুমকি দিতে থাকে।&nbsp;</p>

১৯৯৮ সালে করণের জীবনে এমন এক মুহূর্ত আসে যার কারণে শাহরুখের কাছে আজও কৃতজ্ঞ করণ। এমনকি সারাজীবনেও শাহরুখের এই ঋণ সোদ করতে পারবেন না তিনি। আন্ডারওয়ার্ল্ড ডন আবু সালেম কুছ কুছ হোতা হ্যয় মুক্তি পাওয়ার সময় করণকে প্রাণের হুমকি দিতে থাকে। 

<p>সেই সময় করণের পাশে শাহরুখে এক প্রকৃত বন্ধুর মত দাঁড়িয়ে ছিলেন। করণ যে এই পরিস্থিতিতে একা নেই সেই আশ্বাস দিয়ে তাঁর জন্য গুলি খেতেও রাজি ছিলেন।&nbsp;</p>

সেই সময় করণের পাশে শাহরুখে এক প্রকৃত বন্ধুর মত দাঁড়িয়ে ছিলেন। করণ যে এই পরিস্থিতিতে একা নেই সেই আশ্বাস দিয়ে তাঁর জন্য গুলি খেতেও রাজি ছিলেন। 

<p>তিনি সেই সময়ের কথা মনে বইতে লেখেন, "আমার এখনও মনে আছে দিনটা ছিল সোমবার। আমার কার্ড তৈরি করছিলাম প্রযোজনরা কাজের জন্য পাঠাতে হত।"</p>

তিনি সেই সময়ের কথা মনে বইতে লেখেন, "আমার এখনও মনে আছে দিনটা ছিল সোমবার। আমার কার্ড তৈরি করছিলাম প্রযোজনরা কাজের জন্য পাঠাতে হত।"

<p>সেই দিন করণের মাসিও ছিলেন সেটে। তিনি মাসিকে বাড়ি ছাড়তে গিয়েছিলেন। বাড়িতে শুধু ছিলেন তাঁর মা হিরু জোহার। কাজের লোকেরাও কেউ ছিল না বাড়িতে।&nbsp;</p>

সেই দিন করণের মাসিও ছিলেন সেটে। তিনি মাসিকে বাড়ি ছাড়তে গিয়েছিলেন। বাড়িতে শুধু ছিলেন তাঁর মা হিরু জোহার। কাজের লোকেরাও কেউ ছিল না বাড়িতে। 

<p>সেই সময় ফোন বেজে ওঠে। করণের মাই ফোন তোলেন। আন্ডারওয়ার্ল্ড থেকে আসা ফোনের ওপার থেকে একজন বলে উঠল, "আপনার ছেলে লাল রঙের জামা পরে আছে আমরা ওকে দেখতে পাচ্ছি। আমরা ওকে এখনই শ্যুট করে ফেলব যদি ও শুক্রবার ছবিটা রিলিজ করে।"</p>

সেই সময় ফোন বেজে ওঠে। করণের মাই ফোন তোলেন। আন্ডারওয়ার্ল্ড থেকে আসা ফোনের ওপার থেকে একজন বলে উঠল, "আপনার ছেলে লাল রঙের জামা পরে আছে আমরা ওকে দেখতে পাচ্ছি। আমরা ওকে এখনই শ্যুট করে ফেলব যদি ও শুক্রবার ছবিটা রিলিজ করে।"

<p>কোনও এক কারণে কুছ কুছ হোতা হ্যয় শুক্রবার মুক্তি পাক, সেটা চায়নি আন্ডারওয়ার্ল্ডের লোকজন। করণ এবং কেউই সেই কারণের বিষয় এখনও কিছু জানেন না।</p>

কোনও এক কারণে কুছ কুছ হোতা হ্যয় শুক্রবার মুক্তি পাক, সেটা চায়নি আন্ডারওয়ার্ল্ডের লোকজন। করণ এবং কেউই সেই কারণের বিষয় এখনও কিছু জানেন না।

<p>করণের মা স্বাভাবিকভাবেই ভয়েতে কাঁপতে শুরু করেন। বাড়ি থেকে চটজলদি বেরিয়ে এসে লিফ্টের বোতাম টিরতে থাকেন। সেই সময় লিফ্টে করে করণ উঠে এসেছেন।&nbsp;</p>

করণের মা স্বাভাবিকভাবেই ভয়েতে কাঁপতে শুরু করেন। বাড়ি থেকে চটজলদি বেরিয়ে এসে লিফ্টের বোতাম টিরতে থাকেন। সেই সময় লিফ্টে করে করণ উঠে এসেছেন। 

<p>করণকে দেখেই হাঁপাতে হাঁপাতে তিনি বলেন এখনই পুলিশ ডাকতে হবে, আন্ডারওয়ার্ল্ড থেকে ফোন এসেছিল। তোমায় মেরে ফেলতে চায় ওরা।&nbsp;</p>

করণকে দেখেই হাঁপাতে হাঁপাতে তিনি বলেন এখনই পুলিশ ডাকতে হবে, আন্ডারওয়ার্ল্ড থেকে ফোন এসেছিল। তোমায় মেরে ফেলতে চায় ওরা। 

<p>সেই দিন সন্ধেবেলা করণের বাব, শাহরুখ এবং আদিত্য চোপড়া সকলেই করণের বাড়িতে ছিলেন। পুলিশ করণকে সম্পূর্ণ সুরক্ষা দেওয়ার আশ্বাস দিয়ে ছবি শুক্রবারেই রিলিজ করার কথা বলে।</p>

সেই দিন সন্ধেবেলা করণের বাব, শাহরুখ এবং আদিত্য চোপড়া সকলেই করণের বাড়িতে ছিলেন। পুলিশ করণকে সম্পূর্ণ সুরক্ষা দেওয়ার আশ্বাস দিয়ে ছবি শুক্রবারেই রিলিজ করার কথা বলে।

<p>করণের মা কিছুতেই এই সিদ্ধান্তে রাজি ছিলেন না। শাহরুখ করণের মা কে বোঝান। এবং করণের টেনে বাইরে নিয়ে গিয়ে বলেন, "দেখি কে তোমায় শ্যুট করে, এখানেই দাঁড়িয়ে আমি, তোমায় ঢেকে, দেখি কে গুলি চালাবার সাহস পায়।"</p>

করণের মা কিছুতেই এই সিদ্ধান্তে রাজি ছিলেন না। শাহরুখ করণের মা কে বোঝান। এবং করণের টেনে বাইরে নিয়ে গিয়ে বলেন, "দেখি কে তোমায় শ্যুট করে, এখানেই দাঁড়িয়ে আমি, তোমায় ঢেকে, দেখি কে গুলি চালাবার সাহস পায়।"

loader