ফের তৃণমূলের নিশানায় বিজেপির মহিলা নেত্রী,এবার ভেঙে দেওয়া হল বাড়ি

First Published 12, Sep 2020, 8:36 PM

দক্ষিণ ২৪ পরগনার পর এবার পূর্ব বর্ধমান। ফের বিজেপি মহিলা নেত্রীর ওপর হামলার অভিযোগ। কাঠগড়ায় সেই তৃণমূল কংগ্রেস। যদিও এবার তৃণমূলের দিকে ঘর ভাঙার অভিযোগ তুলেছেন বিজেপির মন্ডল সভাপতি সঞ্চিতা দাস। ঘটনাটি ঘটেছে, পূর্ব বর্ধমানের আউসগ্রামের অমরপুর গ্রামে।
 

<p style="text-align: justify;"><strong>পত্রলেখা বসু চন্দ্র :&nbsp;</strong>দক্ষিণ ২৪ পরগনার পর এবার পূর্ব বর্ধমান। ফের বিজেপি মহিলা নেত্রীর ওপর হামলার অভিযোগ। কাঠগড়ায় সেই তৃণমূল কংগ্রেস। যদিও এবার তৃণমূলের দিকে ঘর ভাঙার অভিযোগ তুলেছেন বিজেপির মন্ডল সভাপতি সঞ্চিতা দাস। ঘটনাটি ঘটেছে, পূর্ব বর্ধমানের আউসগ্রামের অমরপুর গ্রামে।&nbsp;বিজেপির মন্ডল সভাপতি সঞ্চিতা দাস এর অভিযোগ, গতকাল গ্রামের এক মহিলার বাড়ি ভেঙে যাওয়ার জন্য তাকে নিয়ে গ্রামেরই তৃণমূলের এক পঞ্চায়েত সদস্যের বাড়িতে গিয়েছিল তারা ত্রিপল চাওয়ার জন্য। কিন্তু তাদেরকে ফিরিয়ে দেওয়া হয়।&nbsp;</p>

পত্রলেখা বসু চন্দ্র : দক্ষিণ ২৪ পরগনার পর এবার পূর্ব বর্ধমান। ফের বিজেপি মহিলা নেত্রীর ওপর হামলার অভিযোগ। কাঠগড়ায় সেই তৃণমূল কংগ্রেস। যদিও এবার তৃণমূলের দিকে ঘর ভাঙার অভিযোগ তুলেছেন বিজেপির মন্ডল সভাপতি সঞ্চিতা দাস। ঘটনাটি ঘটেছে, পূর্ব বর্ধমানের আউসগ্রামের অমরপুর গ্রামে। বিজেপির মন্ডল সভাপতি সঞ্চিতা দাস এর অভিযোগ, গতকাল গ্রামের এক মহিলার বাড়ি ভেঙে যাওয়ার জন্য তাকে নিয়ে গ্রামেরই তৃণমূলের এক পঞ্চায়েত সদস্যের বাড়িতে গিয়েছিল তারা ত্রিপল চাওয়ার জন্য। কিন্তু তাদেরকে ফিরিয়ে দেওয়া হয়। 

<p style="text-align: justify;">হঠাৎই আজ সকালে গ্রামের দুজন মহিলা তার বাড়িতে হাজির হয় ত্রিপল নেওয়ার জন্য। এরপর তিনি তাদেরকে শাসক দলের কাছে ত্রিপল নেওয়ার জন্য যেতে বলায় বচসা শুরু হয়ে যায়। বচসার মধ্যে হঠাৎই প্রায় দেড়শো জন তৃণমূল কর্মী সমর্থক হঠাৎই তার বাড়িতে চড়াও হয়। বাড়ি ভাঙচুর করে । বাড়িতে থাকা টাকা লুট হয়েছে বলে তিনি অভিযোগ করেছেন।&nbsp; তিনি আরও জানান, ত্রিপল চাইতে যাওয়াটাই তার অপরাধ। তাই তারা এমন ঘটনা ঘটিয়েছে।</p>

হঠাৎই আজ সকালে গ্রামের দুজন মহিলা তার বাড়িতে হাজির হয় ত্রিপল নেওয়ার জন্য। এরপর তিনি তাদেরকে শাসক দলের কাছে ত্রিপল নেওয়ার জন্য যেতে বলায় বচসা শুরু হয়ে যায়। বচসার মধ্যে হঠাৎই প্রায় দেড়শো জন তৃণমূল কর্মী সমর্থক হঠাৎই তার বাড়িতে চড়াও হয়। বাড়ি ভাঙচুর করে । বাড়িতে থাকা টাকা লুট হয়েছে বলে তিনি অভিযোগ করেছেন।  তিনি আরও জানান, ত্রিপল চাইতে যাওয়াটাই তার অপরাধ। তাই তারা এমন ঘটনা ঘটিয়েছে।

<p>যদিও সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করে তৃণমূল জানিয়েছে, নিজেরাই বাড়ি ভেঙে তৃণমূলের উপর দোষ চাপাচ্ছে। এখানে তৃণমূলের কোনও যোগ নেই। তবে এ নিয়ে বিজেপির স্থানীয় নেতৃত্বের বক্তব্য, বিজেপি &nbsp;করলেই তৃণমূলের হিংসার শিকার হতে হচ্ছে রাজ্য়ে। তৃণমূলের দুষ্কৃতীরা মহিলাদেরও ছাড়ছে না। কদিন আগেই সেই ঘটনা দেখেছে রাজ্য়বাসী।&nbsp;<br />
&nbsp;</p>

যদিও সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করে তৃণমূল জানিয়েছে, নিজেরাই বাড়ি ভেঙে তৃণমূলের উপর দোষ চাপাচ্ছে। এখানে তৃণমূলের কোনও যোগ নেই। তবে এ নিয়ে বিজেপির স্থানীয় নেতৃত্বের বক্তব্য, বিজেপি  করলেই তৃণমূলের হিংসার শিকার হতে হচ্ছে রাজ্য়ে। তৃণমূলের দুষ্কৃতীরা মহিলাদেরও ছাড়ছে না। কদিন আগেই সেই ঘটনা দেখেছে রাজ্য়বাসী। 
 

<p style="text-align: justify;">কদিন আগে বিজেপির মহিলা কর্মীর গুলিবিদ্ধ হওয়ার ঘটনায় মুখ্যমন্ত্রীকে সরাসরি আক্রমণ করেন বিজেপির রাজ্য় সভাপতি। দিলীপ ঘোষ বলেন, হিংসাকেই এখন নীতি হিসাবে মেনে নিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। এই হামলার পর মুখ্য়মন্ত্রীর চেয়ারে বসার অধিকার হারিয়েছেন মমতা। রাজ্য় রাজনীতির সাম্প্রতিক ঘটনা বলছে, গুলিবিদ্ধ হয়েছেন এক মহিলা বিজেপি কর্মী। ঘটনাটি ঘটেছে, দক্ষিণ ২৪ পরগনা বিষ্ণুপুর থানার রঘুদেবপুর গ্রামে। গুলিবিদ্ধ গৃহবধূর পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, বিজেপি করে বলেই তাদের বাড়ির উপর এই আক্রমণ। অভিযোগের তির তৃণমূলের দিকে।</p>

কদিন আগে বিজেপির মহিলা কর্মীর গুলিবিদ্ধ হওয়ার ঘটনায় মুখ্যমন্ত্রীকে সরাসরি আক্রমণ করেন বিজেপির রাজ্য় সভাপতি। দিলীপ ঘোষ বলেন, হিংসাকেই এখন নীতি হিসাবে মেনে নিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। এই হামলার পর মুখ্য়মন্ত্রীর চেয়ারে বসার অধিকার হারিয়েছেন মমতা। রাজ্য় রাজনীতির সাম্প্রতিক ঘটনা বলছে, গুলিবিদ্ধ হয়েছেন এক মহিলা বিজেপি কর্মী। ঘটনাটি ঘটেছে, দক্ষিণ ২৪ পরগনা বিষ্ণুপুর থানার রঘুদেবপুর গ্রামে। গুলিবিদ্ধ গৃহবধূর পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, বিজেপি করে বলেই তাদের বাড়ির উপর এই আক্রমণ। অভিযোগের তির তৃণমূলের দিকে।

loader