ইডেনের ২২ গজে কথা বলেছে কাদের ব্যাট, উল্টে দেখুন ইতিহাসের পাতা

First Published 17, Nov 2019, 3:27 PM IST

ইডেন গার্ডেন্সে হতে চলেছে ঐতিহাসিক পিঙ্ক বল টেস্ট। ইডেনে টেস্টের আগে এক নজরে শতরানের রেকর্ড বুকে ভারতীয় ক্রিকেটাররা। ক্রিকেটের নন্দন কাননে সব থেকে বেশি শতরান করেছেন আজহারউদ্দিন। আজহারের পাশাপাশি ইডেনে সব থেকে বিশ শতরান লক্ষ্মণ, দ্রাবিড়ের।

প্রথম ভারতীয় হিসাবে এই মাঠে শতরান করেছিলেন সৈয়দ মুস্তাক আলি। ১৯৪৮ সালে প্রথম ইডেনে ভারতের হয়ে ১০৬ রান করে টেস্ট ক্রিকেটে শতরান করেছিলেন মুস্তাক আলি। একই সঙ্গে এই মাঠে দুটি শতরানের মালিক ছিলেন সুনীল গাভাসকরও। ২৯ ডিসেম্বর ১৯৭৮ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে ১৮২ রানের ইনিংস খেলে সেঞ্চুরি করেছিলেন সুনীল।

প্রথম ভারতীয় হিসাবে এই মাঠে শতরান করেছিলেন সৈয়দ মুস্তাক আলি। ১৯৪৮ সালে প্রথম ইডেনে ভারতের হয়ে ১০৬ রান করে টেস্ট ক্রিকেটে শতরান করেছিলেন মুস্তাক আলি। একই সঙ্গে এই মাঠে দুটি শতরানের মালিক ছিলেন সুনীল গাভাসকরও। ২৯ ডিসেম্বর ১৯৭৮ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে ১৮২ রানের ইনিংস খেলে সেঞ্চুরি করেছিলেন সুনীল।

বাকি ক্রিকেটারদের পাশাপাশি ইডেন গার্ডেন্স অন্যতম পয়া মাঠ ছিল প্রাক্তন ভারতীয় অধিনায়ক ও ব্যাটসম্যান মহম্মদ আজহারউদ্দিনের। ইডেনে আজহার মানেই ব্যাট থেকে রান নিশ্চিত। ইডেন গার্ডেন্স ব্যাট হাতে আজহারকে কখনও ফেরায়নি এটাও এক কথায় সঠিক। আর সেই আজহারউদ্দিনের ব্যাট থেকেই এসেছে মোট ৫টি টেস্ট সেঞ্চুরি। রাহুল দ্রাবিড়ের ৪টি ও লক্ষ্মণের ৫টি শতরানের আগে ইডেনে আজহার করেছিলেন পাঁচটি টেস্ট সেঞ্চুরি। ১৯৮৪ সালে ইংল্যান্ড, ১৯৮৭ সালে পাকিস্তান, ১৯৯৩ সালে ইংল্যান্ড, ১৯৯৬ সালে দক্ষিণ আফ্রিকা ও ১৯৯৮ সালে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে পাঁচটি শতরান করেছিলেন এই প্রাক্তন ভারতীয় অধিনায়ক।

বাকি ক্রিকেটারদের পাশাপাশি ইডেন গার্ডেন্স অন্যতম পয়া মাঠ ছিল প্রাক্তন ভারতীয় অধিনায়ক ও ব্যাটসম্যান মহম্মদ আজহারউদ্দিনের। ইডেনে আজহার মানেই ব্যাট থেকে রান নিশ্চিত। ইডেন গার্ডেন্স ব্যাট হাতে আজহারকে কখনও ফেরায়নি এটাও এক কথায় সঠিক। আর সেই আজহারউদ্দিনের ব্যাট থেকেই এসেছে মোট ৫টি টেস্ট সেঞ্চুরি। রাহুল দ্রাবিড়ের ৪টি ও লক্ষ্মণের ৫টি শতরানের আগে ইডেনে আজহার করেছিলেন পাঁচটি টেস্ট সেঞ্চুরি। ১৯৮৪ সালে ইংল্যান্ড, ১৯৮৭ সালে পাকিস্তান, ১৯৯৩ সালে ইংল্যান্ড, ১৯৯৬ সালে দক্ষিণ আফ্রিকা ও ১৯৯৮ সালে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে পাঁচটি শতরান করেছিলেন এই প্রাক্তন ভারতীয় অধিনায়ক।

একই ভাবে এই তালিকায় ফেবারিট হিসাবে রয়েছেন ভারতের ভিভিএস লক্ষ্মণও। ইডেন গার্ডেন্সে লক্ষ্মণের ব্যাট থেকেও বেড়িয়েছে ৫টি শতরান। যাঁর মধ্যে রয়েছে ২৮১ রানের একটি দুরন্ত ইনিংস। যা ক্রিকেট ইতিহাসে এখনও পর্যন্ত স্মরণীয়। ২০০১ সালে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে এই দ্বিশতরানের ইনিংস ইডেনে খেলেছিলেন লক্ষ্মণ। তাছাড়াও ২০০২ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে, ২০০৭ সালে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে, ২০১০ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে ও ২০১১ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের সঙ্গে ইডেনে শতরান করেছিলেন তিনি।

একই ভাবে এই তালিকায় ফেবারিট হিসাবে রয়েছেন ভারতের ভিভিএস লক্ষ্মণও। ইডেন গার্ডেন্সে লক্ষ্মণের ব্যাট থেকেও বেড়িয়েছে ৫টি শতরান। যাঁর মধ্যে রয়েছে ২৮১ রানের একটি দুরন্ত ইনিংস। যা ক্রিকেট ইতিহাসে এখনও পর্যন্ত স্মরণীয়। ২০০১ সালে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে এই দ্বিশতরানের ইনিংস ইডেনে খেলেছিলেন লক্ষ্মণ। তাছাড়াও ২০০২ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে, ২০০৭ সালে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে, ২০১০ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে ও ২০১১ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের সঙ্গে ইডেনে শতরান করেছিলেন তিনি।

ইডেন অন্যতম ফেভারিট রাহুল দ্রাবিড়ের জন্যও। ইডেনে মোট চারটি টেস্ট সেঞ্চুরির মালিক তিনি। ২০০১ সালে ইডেন গার্ডেন্সে লক্ষ্মণের সঙ্গে জুটি বেঁধে ১৮০ রানের ইনিংস খেলেছিলেন রাহুল। তারপর ২০০৫ সালে পাকিস্তানের বিরুদ্ধেই ইডেনে দুটি শতরান করেছিলেন তিনি। একই সঙ্গে ২০১১ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধেও শতরান করেন তিনি।

ইডেন অন্যতম ফেভারিট রাহুল দ্রাবিড়ের জন্যও। ইডেনে মোট চারটি টেস্ট সেঞ্চুরির মালিক তিনি। ২০০১ সালে ইডেন গার্ডেন্সে লক্ষ্মণের সঙ্গে জুটি বেঁধে ১৮০ রানের ইনিংস খেলেছিলেন রাহুল। তারপর ২০০৫ সালে পাকিস্তানের বিরুদ্ধেই ইডেনে দুটি শতরান করেছিলেন তিনি। একই সঙ্গে ২০১১ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধেও শতরান করেন তিনি।

আজহার, রাহুল, লক্ষ্মণদের পাশাপাশি ইডেনে শতরান করেছেন ঘরের মাঠের ছেলে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ও। পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ২০০৭ সালে শতরান করেন তিনি। পাশাপাশি ২০১৩ সালে ইডেনে বড় শতরান করেছিলেন বর্তমানে ভারতীয় টেস্ট দলের ওপেনার রোহিত শর্মাও। ১৭৭ রানের ইনিংস ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে খেলেছিলেন এই ভারতীয়। অপরদিকে, ইডেনে শেষ টেস্ট শতরানটি এসেছে ২০১৭ সালে বিরাট কোহলির ব্যাট থেকে। ভারতীয় অধিনায়ক ইডেনে এই মুহূর্তে ইডেনের ৭৬ নম্বর শতরান করেছেন তিনি।

আজহার, রাহুল, লক্ষ্মণদের পাশাপাশি ইডেনে শতরান করেছেন ঘরের মাঠের ছেলে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ও। পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ২০০৭ সালে শতরান করেন তিনি। পাশাপাশি ২০১৩ সালে ইডেনে বড় শতরান করেছিলেন বর্তমানে ভারতীয় টেস্ট দলের ওপেনার রোহিত শর্মাও। ১৭৭ রানের ইনিংস ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে খেলেছিলেন এই ভারতীয়। অপরদিকে, ইডেনে শেষ টেস্ট শতরানটি এসেছে ২০১৭ সালে বিরাট কোহলির ব্যাট থেকে। ভারতীয় অধিনায়ক ইডেনে এই মুহূর্তে ইডেনের ৭৬ নম্বর শতরান করেছেন তিনি।

loader