প্রায় ৬ মাস পর ফের পথচলা শুরু দিল্লি মেট্রোর, রেক ছুটল বেঙ্গালুরু, চেন্নাই ও লখনউ থেকেও

First Published 7, Sep 2020, 10:01 AM

করোনার সংক্রমণ মাথাচাড়া দিতেই দেশজুড়ে শুরু হয় লকডাউন। গত ২২ মার্চ থেকে বন্ধ করে দেওয়া হয় দিল্লি সহ গোটা দেশের মেট্রো পরিষেবা। ৫ মাস পার করে ৭ সেপ্টেম্বর সোমবার দিল্লিতে চালু হল মেট্রো পরিষেবা। তবে একাধিক বিধি নিষেধ মানতে হচ্ছে যাত্রীদের। এইদিন বেঙ্গালুরু, চেন্নাই ও লখনউ মেট্রোও বিধিনিষেধ মেনে ফের চলা শুরু করল। 
 

<p><br />
<strong>ঘোষণা আগেই হয়েছিল। দীর্ঘ ৫ মাসের বেশি বন্ধ থাকার পরে দিল্লিতে ফের শুরু হল মেট্রো রেল পরিষেবা। তবে করোনার সংক্রমণ রুখতে সমস্ত ধরনের সতর্কতামূলক পদক্ষেপ করা হয়েছে বলে আশ্বস্ত করেছে কর্তৃপক্ষ।</strong><br />
&nbsp;</p>


ঘোষণা আগেই হয়েছিল। দীর্ঘ ৫ মাসের বেশি বন্ধ থাকার পরে দিল্লিতে ফের শুরু হল মেট্রো রেল পরিষেবা। তবে করোনার সংক্রমণ রুখতে সমস্ত ধরনের সতর্কতামূলক পদক্ষেপ করা হয়েছে বলে আশ্বস্ত করেছে কর্তৃপক্ষ।
 

<p><strong>সোমবার সকাল ৭টা থেকে গুরুগ্রামের সঙ্গে উত্তর দিল্লির সংযোগকারী ইয়েলো লাইনে মেট্রো চলাচল শুরু হল।</strong></p>

সোমবার সকাল ৭টা থেকে গুরুগ্রামের সঙ্গে উত্তর দিল্লির সংযোগকারী ইয়েলো লাইনে মেট্রো চলাচল শুরু হল।

<p><strong>&nbsp;প্রথম দু'দিন সকাল ৭টা থেকে ১১টা পর্যন্ত এবং বিকেল ৪টে থেকে ৮টা পর্যন্ত পরিষেবা চালু থাকবে। আপাতত ৫৭টি মেট্রো চলবে। ৯ সেপ্টেম্বর থেকে অন্য লাইনগুলিতেও পরিষেবা চালু হবে। ধীরে ধীরে প্রতি লাইনে বাড়বে ট্রেনের সংখ্যাও। এমনই জানিয়েছে দিল্লি মেট্রো রেল কর্পোরেশন।</strong></p>

 প্রথম দু'দিন সকাল ৭টা থেকে ১১টা পর্যন্ত এবং বিকেল ৪টে থেকে ৮টা পর্যন্ত পরিষেবা চালু থাকবে। আপাতত ৫৭টি মেট্রো চলবে। ৯ সেপ্টেম্বর থেকে অন্য লাইনগুলিতেও পরিষেবা চালু হবে। ধীরে ধীরে প্রতি লাইনে বাড়বে ট্রেনের সংখ্যাও। এমনই জানিয়েছে দিল্লি মেট্রো রেল কর্পোরেশন।

<p><strong>সোমবার থেকে আপাতত নিয়মিত ৪৯ কিলোমিটার পাড়ি দেবে দিল্লির মেট্রো। মোট ৩৭টি স্টেশনে দাঁড়াবে ট্রেন। সকালে ৭টা থেকে ১১ টা পর্যন্ত এবং বিকেলে ৪টে থেকে ৮টা পর্যন্ত চলবে মেট্রো।</strong><br />
&nbsp;</p>

সোমবার থেকে আপাতত নিয়মিত ৪৯ কিলোমিটার পাড়ি দেবে দিল্লির মেট্রো। মোট ৩৭টি স্টেশনে দাঁড়াবে ট্রেন। সকালে ৭টা থেকে ১১ টা পর্যন্ত এবং বিকেলে ৪টে থেকে ৮টা পর্যন্ত চলবে মেট্রো।
 

<p><strong>আনলক-৪ গাইডলাইনে মেট্রো চালানোর অনুমতি দিয়েছে কেন্দ্র। যার পরেই মেট্রো চালানোর প্রাথমিক রূপরেখা ঘোষণা করে দিল্লি সরকার। জানানো হয়েছে, কামরায় বাতানুকুল ব্যবস্থা থাকবে না। মাস্ক, থার্মাল স্ক্রিনিং, হ্যান্ড স্যানিটাইজারের বন্দোবস্ত করার পাশাপাশি শুধুমাত্র স্মার্ট কার্ডেই যাতায়াত করা যাবে বলে জানিয়েছে অরবিন্দ কেজরিওয়াল প্রশাসন। সংক্রমণ ছড়ানোর ভয় থাকায় যাত্রীদের কোনও টোকেনও দেওয়া হবে না।</strong></p>

আনলক-৪ গাইডলাইনে মেট্রো চালানোর অনুমতি দিয়েছে কেন্দ্র। যার পরেই মেট্রো চালানোর প্রাথমিক রূপরেখা ঘোষণা করে দিল্লি সরকার। জানানো হয়েছে, কামরায় বাতানুকুল ব্যবস্থা থাকবে না। মাস্ক, থার্মাল স্ক্রিনিং, হ্যান্ড স্যানিটাইজারের বন্দোবস্ত করার পাশাপাশি শুধুমাত্র স্মার্ট কার্ডেই যাতায়াত করা যাবে বলে জানিয়েছে অরবিন্দ কেজরিওয়াল প্রশাসন। সংক্রমণ ছড়ানোর ভয় থাকায় যাত্রীদের কোনও টোকেনও দেওয়া হবে না।

<p><strong>এর বাইরেও একগুচ্ছ বিধিনিষেধ থাকছে যাত্রীদের জন্য। মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক। স্টেশনে ঢোকার আগে প্রত্যেক যাত্রীর থার্মাল স্ক্রিনিং করবেন মেট্রোর কর্মীরা। রাখা হবে স্যানিটাইজারও। মেট্রোর প্রতিটি কামরায় যাত্রী সংখ্যাও নির্দিষ্ট থাকবে।</strong><br />
&nbsp;</p>

এর বাইরেও একগুচ্ছ বিধিনিষেধ থাকছে যাত্রীদের জন্য। মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক। স্টেশনে ঢোকার আগে প্রত্যেক যাত্রীর থার্মাল স্ক্রিনিং করবেন মেট্রোর কর্মীরা। রাখা হবে স্যানিটাইজারও। মেট্রোর প্রতিটি কামরায় যাত্রী সংখ্যাও নির্দিষ্ট থাকবে।
 

<p><strong>দীর্ঘ দিন পরে মেট্রো পরিষেবা চালু হওয়ায় স্বাভাবিক ভাবেই দিল্লির &nbsp;আমজনতার মধ্যে কিছুটা উৎসাহ ফিরেছে। যদিও করোনাভাইরাসের সংক্রমণ নিয়ে দুশ্চিন্তা এড়ানো যাচ্ছে না।</strong></p>

দীর্ঘ দিন পরে মেট্রো পরিষেবা চালু হওয়ায় স্বাভাবিক ভাবেই দিল্লির  আমজনতার মধ্যে কিছুটা উৎসাহ ফিরেছে। যদিও করোনাভাইরাসের সংক্রমণ নিয়ে দুশ্চিন্তা এড়ানো যাচ্ছে না।

<p><strong>সোমবার সকাল থেকে উত্তরপ্রদেশের লখনউতেও মেট্রো &nbsp;পরিষেবা শুরু করা হয়েছে। আপাতত সকাল ৬টা থেকে রাত ১০ পর্যন্ত প্রতি ৫.৫ মিনিট অন্তর মেট্রো চলবে। স্টেশন চত্বর এবং ট্রেনে প্রত্যেকের ক্ষেত্রে মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক। এছাড়া স্পর্শহীন সফরের জন্য প্রত্যেক যাত্রীকে স্মার্টকার্ড ব্যবহারের আবেদন করা হয়েছে।</strong></p>

<p>&nbsp;</p>

সোমবার সকাল থেকে উত্তরপ্রদেশের লখনউতেও মেট্রো  পরিষেবা শুরু করা হয়েছে। আপাতত সকাল ৬টা থেকে রাত ১০ পর্যন্ত প্রতি ৫.৫ মিনিট অন্তর মেট্রো চলবে। স্টেশন চত্বর এবং ট্রেনে প্রত্যেকের ক্ষেত্রে মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক। এছাড়া স্পর্শহীন সফরের জন্য প্রত্যেক যাত্রীকে স্মার্টকার্ড ব্যবহারের আবেদন করা হয়েছে।

 

<p><br />
<strong>সোমবার ৭ সেপ্টেম্বর থেকে মেট্রো পরিষেবা চালু হয়েছে দক্ষিণের ২ শহর বেঙ্গালুরু ও চেন্নাইতেও।</strong><br />
&nbsp;</p>


সোমবার ৭ সেপ্টেম্বর থেকে মেট্রো পরিষেবা চালু হয়েছে দক্ষিণের ২ শহর বেঙ্গালুরু ও চেন্নাইতেও।
 

<p><strong>অসম্ভব কড়াকড়ির মধ্যে দিয়ে যেতে হচ্ছে যাত্রীদের। করোনার সংক্রমণ এড়ানোর জন্য স্টেশনে থার্মাল স্ক্রিনিং করা হচ্ছে, মাস্ক ছাড়া কাউকে ট্রেনে উঠতে দেওয়া হচ্ছে না। শুধুমাত্র স্মার্টকার্ড ব্যবহারকারীদের মেট্রোয় উঠতে দেওয়া হচ্ছে। টোকেন ব্যবস্থা এখনই চালু হয়নি।</strong></p>

<p>&nbsp;</p>

<p>&nbsp;</p>

অসম্ভব কড়াকড়ির মধ্যে দিয়ে যেতে হচ্ছে যাত্রীদের। করোনার সংক্রমণ এড়ানোর জন্য স্টেশনে থার্মাল স্ক্রিনিং করা হচ্ছে, মাস্ক ছাড়া কাউকে ট্রেনে উঠতে দেওয়া হচ্ছে না। শুধুমাত্র স্মার্টকার্ড ব্যবহারকারীদের মেট্রোয় উঠতে দেওয়া হচ্ছে। টোকেন ব্যবস্থা এখনই চালু হয়নি।

 

 

<p><strong>&nbsp;১৪ সেপ্টেম্বর থেকে কলকাতায় মেট্রো পরিষেবা শুরুর সম্ভাবনা। সূত্রের খবর, প্রাথমিকভাবে দিনে মোট ১১০টি রেক চালানো হবে। প্রতি কামরায় ৫০ অর্থাৎ প্রতি রেকে ৪০০ জন করে যাত্রী উঠতে পারবেন। প্রতি কামরায় ৪৮টি আসন রয়েছে। এর মধ্যে মাত্র ১৬টি আসনে বসতে পারবেন যাত্রীরা। ৩৪ জনকে দাঁড়িয়ে যেতে দেওয়া হবে।</strong></p>

 ১৪ সেপ্টেম্বর থেকে কলকাতায় মেট্রো পরিষেবা শুরুর সম্ভাবনা। সূত্রের খবর, প্রাথমিকভাবে দিনে মোট ১১০টি রেক চালানো হবে। প্রতি কামরায় ৫০ অর্থাৎ প্রতি রেকে ৪০০ জন করে যাত্রী উঠতে পারবেন। প্রতি কামরায় ৪৮টি আসন রয়েছে। এর মধ্যে মাত্র ১৬টি আসনে বসতে পারবেন যাত্রীরা। ৩৪ জনকে দাঁড়িয়ে যেতে দেওয়া হবে।

loader