আরও শক্তিশালী ভারতীয় বায়ুসেনা, চুক্তি মতো সব অ্যাপাচে আর চিনুক বাহিনীর হাতে তুলে দিল বোয়িং

First Published 10, Jul 2020, 7:03 PM

লাদাখ সীমান্ত থেকে চিন সেরা সরালেও এখনও দুই দেশের মধ্যে চাপা উত্তেজনা আছে। প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখা থেকে লালফৌজ সরলেও এখনও মোতায়েন রয়েছে বিরাট সংখ্যক চিনাবাহিনী। এই আবহেই নিজের শক্তি আরও বাড়িয়ে নিল ভারতীয় বিমান বাহিনী। ২২টি অ্যাপাচে এএইচ–৬৪ই কপ্টারের শেষ পাঁচটি হিন্ডানে বায়ুসেনার বিমানঘাঁটিতে পৌঁছে গেল। 

<p><br />
<strong>চুক্তি মতো সব অ্যাপাচে আর চিনুক হেলিকপ্টারই ভারতীয় বায়ুসেনার হাতে তুলে দিল বোয়িং। </strong></p>


চুক্তি মতো সব অ্যাপাচে আর চিনুক হেলিকপ্টারই ভারতীয় বায়ুসেনার হাতে তুলে দিল বোয়িং। 

<p><strong>ভারতীয় বায়ুসেনার হাতে মোট ২২টি অ্যাপাচে এএইচ–৬৪ই  এবং ১৫টি চিনুক কপ্টার তুলে দেওয়ার প্রক্রিয়া সম্পন্ন করল মার্কিন সংস্থা বোয়িং৷</strong></p>

ভারতীয় বায়ুসেনার হাতে মোট ২২টি অ্যাপাচে এএইচ–৬৪ই  এবং ১৫টি চিনুক কপ্টার তুলে দেওয়ার প্রক্রিয়া সম্পন্ন করল মার্কিন সংস্থা বোয়িং৷

<p><strong>২২টি অ্যাপাচে এএইচ–৬৪ই কপ্টারের শেষ পাঁচটি হিন্ডানে বায়ুসেনার বিমানঘাঁটিতে পৌঁছে গিয়েছে। শুক্রবার এক বিবৃতিতে এমনটাই জানাল বায়ুসেনা।</strong></p>

২২টি অ্যাপাচে এএইচ–৬৪ই কপ্টারের শেষ পাঁচটি হিন্ডানে বায়ুসেনার বিমানঘাঁটিতে পৌঁছে গিয়েছে। শুক্রবার এক বিবৃতিতে এমনটাই জানাল বায়ুসেনা।

<p><strong>চলতি ছরের মার্চের শুরুতেই ১৫টি সিএইচ–৪৭এফ(‌আই)‌ চিনুক কপ্টারের শেষ ৫ টি দেওয়া হয়ে গিয়েছিল বায়ুসেনাকে। এই চিনুক কপ্টারগুলি ভারী ওজন বহনে সক্ষম। </strong></p>

চলতি ছরের মার্চের শুরুতেই ১৫টি সিএইচ–৪৭এফ(‌আই)‌ চিনুক কপ্টারের শেষ ৫ টি দেওয়া হয়ে গিয়েছিল বায়ুসেনাকে। এই চিনুক কপ্টারগুলি ভারী ওজন বহনে সক্ষম। 

<p><strong>বোয়িং প্রতিরক্ষার ভারতের এমডি সুরেন্দ্র আহুজা জানান, ভারতের সঙ্গে বোয়িং–এর পার্টনারশিপের কারণেই এই কপ্টারগুলি পাঠানো হল। এর ফলে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক আরও মজবুত হবে। </strong></p>

বোয়িং প্রতিরক্ষার ভারতের এমডি সুরেন্দ্র আহুজা জানান, ভারতের সঙ্গে বোয়িং–এর পার্টনারশিপের কারণেই এই কপ্টারগুলি পাঠানো হল। এর ফলে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক আরও মজবুত হবে। 

<p><strong>বিশ্বের ১৭টি দেশের কাছে  এই অ্যাপাচে কপ্টার রয়েছে। ভারত তার মধ্যে অন্যতম। এএইচ–৬৪ই অ্যাপাচে হেলিকপ্টারে আধুনিক সংযোগকারী ব্যবস্থা, নেভিগেশন, সেন্সর এবং অস্ত্র ব্যবস্থা আছে। </strong></p>

বিশ্বের ১৭টি দেশের কাছে  এই অ্যাপাচে কপ্টার রয়েছে। ভারত তার মধ্যে অন্যতম। এএইচ–৬৪ই অ্যাপাচে হেলিকপ্টারে আধুনিক সংযোগকারী ব্যবস্থা, নেভিগেশন, সেন্সর এবং অস্ত্র ব্যবস্থা আছে। 

<p><strong>অ্যাপাচে কপ্টারে রয়েছে  দিন–রাত বা যে কোনওরকম আবহাওয়ায় আধুনিক লক্ষ্য সন্ধানকারী ব্যবস্থা এবং রাতেও পরিষ্কার দেখতে পাওয়ার ক্ষমতা। ভূমি বা আকাশ, যেকোনও জায়গায় নিখুঁতভাবে লক্ষ্য সন্ধানে সক্ষম এই কপ্টারের মধ্যে আছে অগ্নি নিয়ন্ত্রক রেডার। যে কোনও পরিবেশে, কমান্ডারের নিরাপত্তা জোগাতে, প্রাণঘাতী হামলা ঠেকাতে বা অংশ নিতে, অথবা শান্তিস্থাপন প্রক্রিয়াতেও কাজ দেয় এই কপ্টার।</strong></p>

অ্যাপাচে কপ্টারে রয়েছে  দিন–রাত বা যে কোনওরকম আবহাওয়ায় আধুনিক লক্ষ্য সন্ধানকারী ব্যবস্থা এবং রাতেও পরিষ্কার দেখতে পাওয়ার ক্ষমতা। ভূমি বা আকাশ, যেকোনও জায়গায় নিখুঁতভাবে লক্ষ্য সন্ধানে সক্ষম এই কপ্টারের মধ্যে আছে অগ্নি নিয়ন্ত্রক রেডার। যে কোনও পরিবেশে, কমান্ডারের নিরাপত্তা জোগাতে, প্রাণঘাতী হামলা ঠেকাতে বা অংশ নিতে, অথবা শান্তিস্থাপন প্রক্রিয়াতেও কাজ দেয় এই কপ্টার।

<p><br />
<strong>অন্যদিকে সারা বিশ্বের যে ২০টি দেশের সেনাবাহিনীতে চিনুক কপ্টার আছে, তার মধ্যে এখন অন্যতম ভারতও।</strong></p>


অন্যদিকে সারা বিশ্বের যে ২০টি দেশের সেনাবাহিনীতে চিনুক কপ্টার আছে, তার মধ্যে এখন অন্যতম ভারতও।

<p><strong>ট্যান্ডেম–রোটোর হেলিকপ্টার চিনুক গত ৫০ বছর ধরে ভারী ওজন বহন করে আসছে। খুব উষ্ণ তাপমাত্রা বা অত্যন্ত উচ্চতায় অতি সহজে উড়তে সক্ষম চিনুক। সিএইচ–৪৭এফ(‌আই)‌ চিনুক কপ্টারগুলিতে আছে আধুনিক মেশিন্ড এয়ারফ্রেম, একটি কমন এভিওনিক্স আর্কিটেকচার সিস্টেম বা সিএএএস ককপিট, ডিজিটাল অটোমেটিক ফ্লাইট কন্ট্রোল সিস্টেম বা ডিএএফসিএস।</strong></p>

ট্যান্ডেম–রোটোর হেলিকপ্টার চিনুক গত ৫০ বছর ধরে ভারী ওজন বহন করে আসছে। খুব উষ্ণ তাপমাত্রা বা অত্যন্ত উচ্চতায় অতি সহজে উড়তে সক্ষম চিনুক। সিএইচ–৪৭এফ(‌আই)‌ চিনুক কপ্টারগুলিতে আছে আধুনিক মেশিন্ড এয়ারফ্রেম, একটি কমন এভিওনিক্স আর্কিটেকচার সিস্টেম বা সিএএএস ককপিট, ডিজিটাল অটোমেটিক ফ্লাইট কন্ট্রোল সিস্টেম বা ডিএএফসিএস।

<p><strong>এই নতুন শক্তিশালী দু'রকমের কপ্টার পেয়ে ভারতীয় বায়ুসেনার বল আরও বৃদ্ধি পেল তা বলাই বাহুল্য।</strong></p>

এই নতুন শক্তিশালী দু'রকমের কপ্টার পেয়ে ভারতীয় বায়ুসেনার বল আরও বৃদ্ধি পেল তা বলাই বাহুল্য।

loader