অক্সফোর্ডের ভ্যাকসিনের ট্রায়ালে এদেশে স্বেচ্ছাসেবক না নিতে সেরামকে নির্দেশ, হতাশার কিছু নেই আশা দিচ্ছেন সৌম্যা

First Published 12, Sep 2020, 11:37 AM

অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকা করোনা টিকার দ্বিতীয় ও তৃতীয় দফার পরীক্ষার জন্য স্বেচ্ছাসেবক নিয়োগ আপাতত বন্ধ রাখার জন্য সিরাম ইনস্টিটিউটকে ড্রাগ কন্ট্রোলার জেনারেল অফ ইন্ডিয়া বা ডিজিসিআই নির্দেশ দিয়েছে। বলেছে, পরবর্তী নির্দেশ না আসা পর্যন্ত স্বেচ্ছাসেবকর নিয়োগ করা যাবে না। 

<p><strong>ভ্যাকসিন নেওয়ার পর স্বেচ্ছাসেবক অসুস্থ হয়ে পড়ায় বিশ্বজুড়ে ট্রায়াল বন্ধ হয়েছে অক্সফোর্ড ভ্যাকসিনের। অক্সফোর্ডের এই ভ্যাকসিনটি ট্রায়ালের প্রথম এবং দ্বিতীয় ধাপ সাফল্যের সঙ্গে উতরে গিয়েছিল।&nbsp;</strong></p>

ভ্যাকসিন নেওয়ার পর স্বেচ্ছাসেবক অসুস্থ হয়ে পড়ায় বিশ্বজুড়ে ট্রায়াল বন্ধ হয়েছে অক্সফোর্ড ভ্যাকসিনের। অক্সফোর্ডের এই ভ্যাকসিনটি ট্রায়ালের প্রথম এবং দ্বিতীয় ধাপ সাফল্যের সঙ্গে উতরে গিয়েছিল। 

<p><br />
<strong>ভ্যাকসিন &nbsp;প্রয়োগের পর ইংল্যান্ডের এক স্বেচ্ছাসেবকের গুরুতর শারীরিক জটিলতা দেখা দেওয়ায় অন্যান্য দেশেও অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা পরীক্ষা বন্ধ রাখা হয়েছে।</strong></p>


ভ্যাকসিন  প্রয়োগের পর ইংল্যান্ডের এক স্বেচ্ছাসেবকের গুরুতর শারীরিক জটিলতা দেখা দেওয়ায় অন্যান্য দেশেও অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা পরীক্ষা বন্ধ রাখা হয়েছে।

<p><strong>এদেশেও জটিলতা বাড়ছে অক্সফোর্ডের করোনা ভ্যাকসিন কোভিশিল্ডকে ঘিরে। এই ভ্যাকসিনের দ্বিতীয় ও তৃতীয় দফার ট্রায়ালের জন্য নতুন নিয়োগ আপাতত বন্ধ রাখার নির্দেশ দেওয়া হল পুনের সেরাম ইনস্টিটিউট অফ ইন্ডিয়াকে।&nbsp;</strong></p>

এদেশেও জটিলতা বাড়ছে অক্সফোর্ডের করোনা ভ্যাকসিন কোভিশিল্ডকে ঘিরে। এই ভ্যাকসিনের দ্বিতীয় ও তৃতীয় দফার ট্রায়ালের জন্য নতুন নিয়োগ আপাতত বন্ধ রাখার নির্দেশ দেওয়া হল পুনের সেরাম ইনস্টিটিউট অফ ইন্ডিয়াকে। 

<p><br />
<strong>সেরাম ইনস্টিটিউট অফ ইন্ডিয়াকে দেওয়া নির্দেশে &nbsp;ড্রাগস কনট্রোলার জেনারেল অফ ইন্ডিয়া বা ডিজিসিএ জানিয়েছে যে পরবর্তী নির্দেশ না আসা পর্যন্ত এই কোভিশিল্ডের দ্বিতীয় ও তৃতীয় দফার ট্রায়াল বন্ধ রাখতে হবে। এছাড়া যাঁদের শরীরে ইতোমধ্যেই এই ভ্যাকসিন পরীক্ষামূলক ভাবে প্রয়োগ করা হয়েছে, তাঁদের স্বাস্থ্যের দিকে আরও বেশি নজর রাখারও নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।</strong></p>


সেরাম ইনস্টিটিউট অফ ইন্ডিয়াকে দেওয়া নির্দেশে  ড্রাগস কনট্রোলার জেনারেল অফ ইন্ডিয়া বা ডিজিসিএ জানিয়েছে যে পরবর্তী নির্দেশ না আসা পর্যন্ত এই কোভিশিল্ডের দ্বিতীয় ও তৃতীয় দফার ট্রায়াল বন্ধ রাখতে হবে। এছাড়া যাঁদের শরীরে ইতোমধ্যেই এই ভ্যাকসিন পরীক্ষামূলক ভাবে প্রয়োগ করা হয়েছে, তাঁদের স্বাস্থ্যের দিকে আরও বেশি নজর রাখারও নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

<p><strong>মঙ্গলবার রাতে অ্যাস্ট্রোজেনেকার &nbsp; তরফ থেকে জানানো হয়েছে, অপ্রত্যাশিতভাবে একজন ভলান্টিয়ার অসুস্থ হয়ে যাওয়ায় তাঁদের তৈরি করোনার &nbsp;টিকার ট্রায়াল সাময়িকভাবে বন্ধ করা হচ্ছে। জানা গিয়েছে, এই টিকা নেওয়ার পর একজন স্বেচ্ছাসেবক অতিরিক্ত জ্বরে কাবু হয়ে পড়েছেন। আর সেজন্যই নিয়ম অনুযায়ী এই ভ্যাকসিনের ট্রায়াল এই মুহূর্তে পুরোপুরি বন্ধ করা হয়েছে।&nbsp;</strong><br />
&nbsp;</p>

মঙ্গলবার রাতে অ্যাস্ট্রোজেনেকার   তরফ থেকে জানানো হয়েছে, অপ্রত্যাশিতভাবে একজন ভলান্টিয়ার অসুস্থ হয়ে যাওয়ায় তাঁদের তৈরি করোনার  টিকার ট্রায়াল সাময়িকভাবে বন্ধ করা হচ্ছে। জানা গিয়েছে, এই টিকা নেওয়ার পর একজন স্বেচ্ছাসেবক অতিরিক্ত জ্বরে কাবু হয়ে পড়েছেন। আর সেজন্যই নিয়ম অনুযায়ী এই ভ্যাকসিনের ট্রায়াল এই মুহূর্তে পুরোপুরি বন্ধ করা হয়েছে। 
 

<p><strong>অ্যাস্ট্রাজেনেকার পর বৃহস্পতিবার ভারতেও স্থগিত হয়ে যায় করোনাভাইরাসের অক্সফোর্ডের ভ্যাকসিন 'কোভিশিল্ড'-এর &nbsp;ট্রায়াল। সরকারি নোটিশের জেরে ভ্যাকসিনের ট্রায়াল বন্ধ রাখার কথা ঘোষণা করে কোভিশিল্ড তৈরিতে ভারতীয় পার্টনার সেরাম ইনস্টিটিউট অফ ইন্ডিয়া। অ্যাস্ট্রাজেনেকা ফের টিকার ট্রায়াল শুরু না করা পর্যন্ত ভারতেও তা বন্ধ থাকবে বলে বৃহস্পতিবার জানিয়েছে সেরাম। অ্যাস্ট্রাজেনেকা কোভিশিল্ডের ট্রায়াল বন্ধ করার পরেও পুনের সেরাম ইনস্টিটিউট অফ ইন্ডিয়া ট্রায়াল চালিয়ে যাওয়ায় বৃহস্পতিবারই তাদের নোটিশ পাঠায় দেশের সেন্ট্রাল ড্রাগ রেগুলেটর।</strong><br />
&nbsp;</p>

অ্যাস্ট্রাজেনেকার পর বৃহস্পতিবার ভারতেও স্থগিত হয়ে যায় করোনাভাইরাসের অক্সফোর্ডের ভ্যাকসিন 'কোভিশিল্ড'-এর  ট্রায়াল। সরকারি নোটিশের জেরে ভ্যাকসিনের ট্রায়াল বন্ধ রাখার কথা ঘোষণা করে কোভিশিল্ড তৈরিতে ভারতীয় পার্টনার সেরাম ইনস্টিটিউট অফ ইন্ডিয়া। অ্যাস্ট্রাজেনেকা ফের টিকার ট্রায়াল শুরু না করা পর্যন্ত ভারতেও তা বন্ধ থাকবে বলে বৃহস্পতিবার জানিয়েছে সেরাম। অ্যাস্ট্রাজেনেকা কোভিশিল্ডের ট্রায়াল বন্ধ করার পরেও পুনের সেরাম ইনস্টিটিউট অফ ইন্ডিয়া ট্রায়াল চালিয়ে যাওয়ায় বৃহস্পতিবারই তাদের নোটিশ পাঠায় দেশের সেন্ট্রাল ড্রাগ রেগুলেটর।
 

<p><strong>তবে অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটি ও আস্ট্রাজেনেকার করোনা টিকা নিয়ে হতাশার কিছু নেই বলে আশ্বাসের কথা জানিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বা 'হু'।</strong></p>

তবে অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটি ও আস্ট্রাজেনেকার করোনা টিকা নিয়ে হতাশার কিছু নেই বলে আশ্বাসের কথা জানিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বা 'হু'।

<p><strong>'হু' শীর্ষ বিজ্ঞানী সৌম্যা স্বামীনাথন বলেছেন, সংক্রামক রোগের টিকার পরীক্ষায় এমন ঘটনা নতুন কিছু নয়। টিকার পরীক্ষামূলক প্রয়োগ করতে গেলে অনেক সময়েই তার কিছু পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা যায়। সেই সমস্যার দ্রুত সমাধানও করে ফেলেন ভাইরোলজিস্টরা। তাই অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকার ট্রায়াল বন্ধ হয়ে গেছে মানে হতাশ হওয়ার কিছু নেই।&nbsp;</strong></p>

'হু' শীর্ষ বিজ্ঞানী সৌম্যা স্বামীনাথন বলেছেন, সংক্রামক রোগের টিকার পরীক্ষায় এমন ঘটনা নতুন কিছু নয়। টিকার পরীক্ষামূলক প্রয়োগ করতে গেলে অনেক সময়েই তার কিছু পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা যায়। সেই সমস্যার দ্রুত সমাধানও করে ফেলেন ভাইরোলজিস্টরা। তাই অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকার ট্রায়াল বন্ধ হয়ে গেছে মানে হতাশ হওয়ার কিছু নেই। 

<p><strong>'হু' -এর তরফেও অক্সফোর্ডের ভ্যাকসিনটিকেই সবচেয়ে সম্ভাবনাময় বলে উল্লেখ করা হয়েছিল। অক্সফোর্ড ভ্যাকসিনের ট্রায়াল বন্ধ হওয়া নিয়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান গবেষক সৌম্যা স্বামীনাথন &nbsp;বলছেন,”এটা আমাদের সতর্ক করে দিল। আমাদের বুঝতে হবে, কোনও ওষুধের আবিষ্কারের প্রক্রিয়ায় অনেকরকম বাধা বিপত্তি আসবে। এবং আমাদের সেজন্য প্রস্তুত থাকতে হবে।”</strong><br />
&nbsp;</p>

'হু' -এর তরফেও অক্সফোর্ডের ভ্যাকসিনটিকেই সবচেয়ে সম্ভাবনাময় বলে উল্লেখ করা হয়েছিল। অক্সফোর্ড ভ্যাকসিনের ট্রায়াল বন্ধ হওয়া নিয়ে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান গবেষক সৌম্যা স্বামীনাথন  বলছেন,”এটা আমাদের সতর্ক করে দিল। আমাদের বুঝতে হবে, কোনও ওষুধের আবিষ্কারের প্রক্রিয়ায় অনেকরকম বাধা বিপত্তি আসবে। এবং আমাদের সেজন্য প্রস্তুত থাকতে হবে।”
 

<p><strong>তবে স্বামীনাথন বলছেন, এতে হতাশ হওয়ার কোনও কারণ নেই। এই ধরনের ঘটনা ঘটবেই। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার আরেক কর্তা মাইক রায়ানের মুখে অবশ্য খানিকটা সতর্কতার সুর শোনা গিয়েছে। তিনি বলছেন,”আমাদের মনে রাখতে হবে এই লড়াইটা রোগের বিরুদ্ধে। এক সংস্থার বিরুদ্ধে আরেক সংস্থার নয়। বা এক দেশের বিরুদ্ধে আরেক দেশের নয়।”&nbsp;</strong></p>

তবে স্বামীনাথন বলছেন, এতে হতাশ হওয়ার কোনও কারণ নেই। এই ধরনের ঘটনা ঘটবেই। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার আরেক কর্তা মাইক রায়ানের মুখে অবশ্য খানিকটা সতর্কতার সুর শোনা গিয়েছে। তিনি বলছেন,”আমাদের মনে রাখতে হবে এই লড়াইটা রোগের বিরুদ্ধে। এক সংস্থার বিরুদ্ধে আরেক সংস্থার নয়। বা এক দেশের বিরুদ্ধে আরেক দেশের নয়।” 

<p style="text-align: justify;"><strong>বিশ্বজুড়ে ভ্যাকসিন তৈরি করা নিয়ে একটা অঘোষিত প্রতিযোগিতা শুরু হয়েছে। যাতে মেতেছে রাশিয়া, আমেরিকা, চিনের মতো দেশগুলি। এই প্রতিযোগিতা যে আসলে আমাদের ক্ষতিই করবে, সেটাই বোঝাতে চেয়েছেন 'হু' -এর কর্তারা।</strong></p>

বিশ্বজুড়ে ভ্যাকসিন তৈরি করা নিয়ে একটা অঘোষিত প্রতিযোগিতা শুরু হয়েছে। যাতে মেতেছে রাশিয়া, আমেরিকা, চিনের মতো দেশগুলি। এই প্রতিযোগিতা যে আসলে আমাদের ক্ষতিই করবে, সেটাই বোঝাতে চেয়েছেন 'হু' -এর কর্তারা।

loader